পেটের ভেতর স্টম্যাক অ্যাসিডে চলবে ব্যাটারি : চিকিৎসা শাস্ত্রে নতুন দিগন্ত

0
125

ম্যাসাচুসেটস : কোলোনোস্কপির মতো কষ্টদায়ক কিছু চিকিৎসাপদ্ধতি থেকে মুক্তি দিতে আবিষ্কার হল ছোটো ব্যাটারির মতো একটি ডিভাইস। যেটি পেটের ভেতরে পিত্তরস থেকে শক্তি সঞ্চয় করে সক্রিয় হয়ে ওঠে। এটি রোগীর শরীরের ভেতরের যাবতীয় খোঁজখবর দিতে পারে। তা-ও কোনো রকম বেদনা ছাড়া। এমনকি বাইরের সঙ্গে কোনো রকম তারের সংযোগ ছাড়াই। এর আকার খুবই ছোটো। মাত্র ৪ সেন্টিমিটার। এটিকে সিলিন্ডারের মতো দেখতে। একটি ক্যাপসুল বলা যায়। এটা আসলে একটি ব্যাটারি। প্রথমে এটাকে গিলে ফেলতে হয়। তার পর এই ডিভাইসটি কাজ শুরু করে। এমন একটি অত্যাধুনিক চিকিৎসাব্যবস্থার উদ্ভবের পেছনে রয়েছে এমটিআই অর্থাৎ ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি। 

highlightপরীক্ষায় দেখা গেছে, এই বিশেষ ডিভাইসটি পেটের ভেতরে যথেষ্ট পরিমাণ এনার্জি তৈরি করতে পারে, যার সাহায্যে ওষুধ সরবরাহকারী ডিভাইস সক্রিয় হয়ে উঠে। শুধু তা-ই নয়, শরীরের তাপমাত্রা, হৃদস্পন্দন, শ্বাস-প্রশ্বাসের গতি সম্পর্কে ১২ সেকেন্ড অন্তর অন্তর তথ্য সরবরাহ করতে থাকে এটি। 

এই গবেষণার প্রধান কর্মকর্তা হলেন জিওভানি ত্রাভেরসো আর ররার্ট লেনজার। এর আগে তাঁরা ওষুধ সরবরাহকারী একটি পদ্ধতি আবিষ্কার করেছিলেন। এর সাহায্যে মাত্র একবার খেলেই সপ্তাহভর রোগীর পেটের ভেতর একটু একটু করে ওষুধ সরবরাহ হতে থাকে। এই নতুন আবিষ্কারের বিষয়ে গবেষকরা জানান, তাঁরা দেখেছেন যে কোনো ব্যাটারি চালাতে অ্যাসিডের দরকার হয়। তার থেকেই তাঁরা মনে করেন তা হলে অ্যাসেটিক অ্যাসিডও এই একই কাজে ব্যবহার করে চিকিৎসাব্যবস্থার উন্নতি করা যায়।  

‘নেচার বায়োমেডিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারিং’ পত্রিকায় এই গবেষণাপত্রটি প্রকাশিত হয়েছে। 

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here