৩৫০ কোটি বছর আগে পৃথিবীর মতোই বায়ুমণ্ডল ছিল চাঁদেও, বলছে নাসা

0
1635

ওয়েবডেস্ক: চন্দ্রপৃষ্ঠে অগ্ন্যুৎপাতের সময় নির্গত হওয়া লাভা ছড়িয়ে যেত চার পাশে। সেই ম্যাগমায় নাকি ছিল বায়ুমণ্ডলের নানা উপাদান। ৩০০ থেকে ৪০০ কোটি বছর আগে পৃথিবীর মতোই চাঁদেও নাকি তৈরি হয়েছিল একটা বায়ুমণ্ডল। সম্প্রতি এমনই এক তথ্য জানিয়েছে মার্কিন গবেষণা সংস্থা নাসা।

চাঁদের ভু-পৃষ্ঠ থেকে আনা নমুনা পর্যবেক্ষণ করলে সহজেই ধরা পড়ে ব্যাসল্ট শিলার চিহ্ন। চাঁদের বুকে থাকা দানবাকৃতি যে সব গহ্বর রয়েছে (মারিয়া সাগর) সেগুলো তৈরি হয়েছিল অগ্ন্যুৎপাতের ফলেই। অগ্ন্যুৎপাতের সময় ম্যাগমা ছড়িয়ে যায় চাঁদের বুকে। নাসা-র গবেষণা বলছে, সেই ম্যাগমায় নাকি থাকত কার্বন মনোক্সাইড, জলের উপাদান, সালফার ইত্যাদি বায়ুমণ্ডলের নানা উপাদান। বিজ্ঞানীদের অনুমান অগ্ন্যুৎপাতের সময় নির্গত হওয়া লাভা চাঁদের বুক থেকে দূরে চলে যাওয়াই স্বাভাবিক, যে হেতু চাঁদের মাধ্যাকর্ষণ পৃথিবীর ছয় ভাগের এক ভাগ। কিন্তু নির্গত হওয়া লাভা চাঁদের পৃষ্ঠ থেকে যে গতিতে বেরিয়ে আসতে পারত, তার থেকেও দ্রুত গতিতে চন্দ্রপৃষ্ঠে ছড়িয়ে গিয়ে জমাট বেঁধেছে। এ সবই প্রায় ৩০০ থেকে ৪০০ কোটি বছর আগের ঘটনা। চাঁদের মাটি থেকে বায়ুমণ্ডল মুছে যাওয়ার আগে প্রায় ৭ কোটি বছর এ রকমটাই ছিল।

অ্যাপোলো-১৫ এবং ১৭ এই দুই চন্দ্রাভিযানের নভশ্চররা চাঁদ থেকে যে সব নমুনা এনেছিলেন, তা পরীক্ষা-নিরীক্ষা করেই এই সিদ্ধান্তে এসেছেন নাসার গবেষকরা। তা হলে কি এ বার পালটে যাবে চাঁদের ইতিহাসটাও? বায়ুমণ্ডল থাকলে যে প্রাণ থাকাটাও অস্বাভাবিক নয়!

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here