বৃহস্পতির উপগ্রহ ‘ইউরোপা’য় জলস্তম্ভের ছবি তুলল ‘হাবল’ স্পেস টেলিস্কোপ

0
354

জল আর প্রাণের অস্তিত্বের সন্ধানে বিশ্ব-ব্রহ্মাণ্ড তোলপাড় করে তল্লাশি চালাচ্ছেন বিজ্ঞানীরা। বিভিন্ন গ্রহ, উপগ্রহ বা অজানা নক্ষত্র, প্রায় কোনও কিছুই বাদ পড়েনি তাঁদের তল্লাশি থেকে। এবার বৃহস্পতির উপগ্রহ ‘ইউরোপা’য় জলের সন্ধান পেলেন নাসার গবেষকরা। নাসার ‘হাবল’ স্পেস টেলিস্কোপে ধরা পড়েছে ‘ইউরোপা’-র ছবি। যেখানে দেখা যাচ্ছে, উপগ্রহটির ভূ-পৃষ্ঠের উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে জলের স্রোত। ছবিতে বৃহস্পতি রয়েছে তার ঠিক পিছনে। ‘হাবল’-এর তোলা এই ছবিগুলোই জলস্তম্ভের যথেষ্ট প্রমাণ না হলেও তা অনেকটাই ভরসাযোগ্য বলে মনে করছেন গবেষকরা।

ছবি থেকে গবেষকরা মনে করছেন, প্রায় ১৬০ কিলোমিটার উচ্চতা অবধি জল ছিটকে গিয়েছে। এই নিয়ে দ্বিতীয়বার বৃহস্পতির উপগ্রহে জলের অস্বিত্ব জানা গেল। এর আগে ২০০৫ সালে ‘ক্যাসিনি’ মহাকাশযান ‘এন্সেলাডুস’-এ জলের প্রমাণ পেয়েছিল।nasa-1

জলের অস্বিত্ব মানেই প্রাণের অস্বিত্বের একটা বড় সম্ভাবনা থেকে যায়। ফলে স্বাভাবিক ভাবেই বিজ্ঞানীরা দারুণ উৎসাহী এই উপগ্রহটির ব্যাপারে। তাঁরা মনে করছেন জলস্তম্ভের উৎস কোনও জলপ্রবাহ। আবার ভূপৃষ্ঠের কোথাও হ্রদও থাকতে পারে। তাছাড়া জলের ওপর জোয়ার-ভাটার প্রভাবের সম্ভাবনাও উড়িয়ে দেওয়া যাচ্ছে না। এমনকি ‘পাত সঞ্চালনের’ কাজও হয় ‘ইউরোপা’য়। যার ফলেই ভূপৃষ্ঠে উঁচু জায়গার সৃষ্টি হয়েছে।

nasa2

‘হাবল’ ছাড়াও আরও অনেকগুলি স্পেস টেলিস্কোপ এই উপগ্রহটি নিয়ে পরীক্ষানিরীক্ষা চালাচ্ছে। ২০১৮ সালে ‘জেমস ওয়েব’ স্পেস টেলিস্কোপ ‘ইউরোপা’-র এই জলস্তম্ভের সঠিক তথ্য ও ছবি সংগ্রহ করতে সক্ষম হবে।

‘ইউরোপা’-য় প্রাণের অস্বিত্ব আছে কিনা সে সম্পর্কে জানতে গবেষকরা খুবই আগ্রহী। আর এই কারণেই নির্ভেজাল তথ্য পেতে যাবতীয় উপায় অবলম্বন করছেন তাঁরা। তাই বৃহস্পতির কাছে পাঠানো কৃত্রিম উপগ্রহ ‘জুনো’কেও ‘ইউরোপা’-র কাছাকাছি পাঠানোর জন্য ব্যবস্থা করা আছে। তবে ‘ইউরোপা’-র কাছাকাছি এত সুবিধাজনক জায়গায় ‘হাবল’ এর মতো আর কিছুই নেই। এটির পক্ষে আল্ট্রাভায়োলেট ইমেজ তোলা সম্ভব হয়।

ছবি :  নাসা

বিজ্ঞাপন
loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here