কপিল দেবের জন্মদিনে ভারতকে বড়ো লজ্জার হাত থেকে বাঁচালেন হার্দিক পান্ড্য

0
540

কেপটাউন: সকাল থেকেই সোশাল মিডিয়ায় সেই কুইজের প্রশ্নটা নিয়ে চর্চা চলছিল। কে পৃথিবীর একমাত্র ক্রিকেটার, যার টেস্টে ৪০০ উইকেট এবং ৫০০০ রান আছে। শনিবার ছিল কপিল দেবের ৫৮ তম জন্মদিন। তাই তাঁকে নিয়ে চর্চা হওয়াই স্বাভাবিক। সঙ্গে এটাও স্বাভাবিক কিনা বলা মুশকিল, যে এই দিনটাকেই নিজেকে টেস্ট অলরাউন্ডার হিসেবে প্রতিষ্ঠা করার প্রথম পদক্ষেপের দিন হিসেবে বেছে নেবেন হার্দিক পান্ড্য।

তথ্যের ম্যাজিক থাক। বাস্তবটা হল, পরপর দুটি টেস্ট শতরানের সুযোগ হাতছাড়া করলেন হার্দিক। আউট হয়ে গেলেন ৯৩ রানে। পেটে বল না লাগলে হয়তো হয়ে যেত। যদিও ক্যাচ মিস, স্টাম্প মিসের সুযোগ পেয়েছেন তিনি। যে ভঙ্গিতে খেলেছেন, সেটা ৫ উইকেটে ৭২ স্কোরে নেমেছিলেন বলে আর একটু পরেই ৯২ রানে ৭ উইকেট হয়ে যাওয়ায় টিম ম্যানেজমেন্ট মেনে নিয়েছেন(কদিন পরে এই ইনিংসটা দেখিয়ে রবি শাস্ত্রী প্রমাণ দেবেন এই ভারতীয় দল কত আগ্রাসী!)। নইলে গালাগালি নিশ্চিত ছিল।

কিন্তু এ সব পণ্ডিতি ফলিয়ে লাভ নেই। আসল কথাটা হল পান্ড্য এদিন নতুন বউয়ের সামনে বিরাটকে বড়ো লজ্জার থেকে বাঁচিয়েছেন এবং বাঁচিয়ে চলেছেন। ভুবনেশ্বর কুমারকে নিয়ে তাঁর অষ্টম উইকেটে ৯৯ রানের পার্টনারশিপটা ম্যাচটাকে এখনও একটু হলেও বাঁচিয়ে রেখেছে। তার আগে এদিন ভারতের আরও চারটে উইকেট চটপট পড়ে যায়। যেমন হওয়ার কথা আর কি! তবে এদিন ভুবনেশ্বর কুমার আশিরও বেশি বল খেলে ২৫ রানের যে ইনিংসটি খেললেন, সেটি না হলে পান্ড্যর ১৫টা চার, একটা ছয় মারার সুযোগ হত না।

শেষ বেলায় ম্যাচে আরও প্রাণ দিলেন হার্দিক। ৫২ রানের পার্টনারশিপ করে ফেলা দক্ষিণ আফ্রিকার দুই ওপেনারকে আউট করলেন পরপর। আমলারা আপাতত ভারতের থেকে ১৪২ রানে এগিয়ে।

ভারত-২০৯/১০ দক্ষিণ আফ্রিকা- ৬৫/২(দ্বিতীয় ইনিংস)

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here