এআইএফএফ-এর মিথ্যে প্রচার, আদৌ ইতালিকে হারায়নি ভারতের অনূর্ধ্ব ১৭ ফুটবল দল

0
1131

নয়াদিল্লি:শুক্রবারের পর থেকে অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন যতগুলো প্রেস বিবৃতি দিয়েছে, সবেতে লেখা হয়েছে ‘ভারতীয় ফুটবলে নতুন অধ্যায়’। ভারতের অনূর্ধ্ব ১৭ দলের প্রতিদ্বন্দ্বীর পরিচয় দেওয়া হয়েছে ‘ইতালির অনূর্ধ্ব ১৭ জাতীয় দল’। হ্যাঁ, খবরটা ছিল, ইতালির সেই জাতীয় দলকেই নাকি ২-০ গোলে হারিয়েছে ভারতের জাতীয় দল।

স্বাভাবিক ভাবেই তারপর উল্লাসে ফেটে পড়েছেন ফুটবলপ্রেমীরা। প্রাক্তন ফুটবলার, ক্রিকেটার, চলচ্চিত্র তারকা, এআইএফএফ কর্তা, ক্রীড়া মন্ত্রক এমনকি এশিয়াল ফুটবল কনফেডারেশনও ব্যস্ত হয়ে পড়ে এই ‘ঐতিহাসিক’ জয়কে উদ্‌যাপন করতে।

অনূর্ধ্ব ১৭ বিশ্বকাপের জন্য ভারতীয় দলের প্রস্তুতি কিন্তু যথেষ্ট ঘেঁটে রয়েছে। মাঠের মধ্যে এবং মাঠের বাইরে। প্রাক্তন কোচ নিকোলাই আদমকে চটজলদি ছাঁটাইয়ের পর নতুন কোচ হয়েছেন মাতোস। তাঁর দায়িত্বে এখন প্রস্তুতি সফরে রয়েছে ভারতীয় দল। প্রস্তুতি সফরের শুরুটা বেশ খারাপ হয়েছে। পর্তুগালের ৭টি ক্লাব দলের বিরুদ্ধে খেলে ৫টিতেই হেরেছে ভারতীয় দল। ২টিতে ড্র করেছে।

কিন্তু এখন জানা যাচ্ছে, সবই মায়া, থুরি ডাহা মিথ্যে। ইতালির ফুটবল ফেডারেশনের ওয়েবসাইটে ম্যাচটির উল্লেখ অবধি করা হয়নি। করার কথাও নয়। কারণ গত মাসে যখন এআইএফএফ ঘোষণা করে, যে ভারত ইতালির জাতীয় অনূর্ধ্ব ১৭ দলের বিরুদ্ধে খেলবে, তখন সেই দলটির ক্রীড়াসূচি ঠিক হয়েই রয়েছে। এই মাসে তারা ব্যস্ত ছিল ইউরোপিয়ান চ্যাম্পিয়নশিপ খেলতে। সেই টুর্নামেন্ট শেষ হয়েছে গত শনিবার, ২০ মে। ইতালি অবশ্য গ্রুপ লিগ থেকেই বিদায় নিয়েছে। তারা শেষ ম্যাচ খেলেছে গত ৯ মে। সেই ম্যাচে তুরস্কের কাছে ২-১ গোলে হারে তারা।

তাহলে কাদের হারাল ভারত?

ভারতের অনূর্ধ্ব ১৯ দল আরেজ্জো-তে যে দলটিকে হারিয়েছে, সেটি ইতালি ফুটবলের তৃতীয় ও চতুর্থ ডিভিশনের বিভিন্ন ক্লাবের বাছাই করা ফুটবলারদের একটি দল। এই ডিভিশনগুলির নাম সে দেশে ‘লিগা প্রো’ ও ‘লিগা প্রো ২’। লিগা প্রো-র ওয়েবসাইটে ওই ম্যাচটির উল্লেখ মিলেছে। সেখানে ইতালির দলটির নাম বলা হয়েছে, ‘রিপ্রেজেন্টেটিভ অফ ন্যাশনাল লিগা প্রো’। দলটির কোচ ছিলেন এমিলিয়ানো বিগিসা। ইতালির জাতীয় অনূর্ধ্ব ১৭ দলের কোচ ড্যানিয়েল আরিগোনি।

ইতালির অনূর্ধ্ব ১৭ জাতীয় দল, অনূর্ধ্ব ১৭ বিশ্বকাপে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে পারেনি।

অনূর্ধ্ব ১৭ বিশ্বকাপের জন্য ভারতীয় দলের প্রস্তুতি কিন্তু যথেষ্ট ঘেঁটে রয়েছে। মাঠের মধ্যে এবং মাঠের বাইরে। প্রাক্তন কোচ নিকোলাই আদমকে চটজলদি ছাঁটাইয়ের পর নতুন কোচ হয়েছেন মাতোস। তাঁর দায়িত্বে এখন প্রস্তুতি সফরে রয়েছে ভারতীয় দল। প্রস্তুতি সফরের শুরুটা বেশ খারাপ হয়েছে। পর্তুগালের ৭টি ক্লাব দলের বিরুদ্ধে খেলে ৫টিতেই হেরেছে ভারতীয় দল। ২টিতে ড্র করেছে।

দ্বিতীয় প্রস্তুতি সফরের শুরুতেই ছিল এই ইতালির ম্যাচটি। সেই ম্যাচে ২-০ গোলে জিতে ইতালির দলটিকে ‘ইতালির অনূর্ধ্ব ১৭ জাতীয় দল’ বলে চালিয়ে দেন সর্বভারতীয় ফুটবল কর্তারা। এখন সত্যিটা সামনে আসার পর, এআইএফএফ সভাপতি প্রফুল্ল প্যাটেল কিংবা সহসভাপতি কুশল দাস, কেউ মুখ খুলছেন না।

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here