হুইলচেয়ারেই রক ক্লাইম্বিং পক্ষাঘাতগ্রস্ত ক্রীড়াবিদের, ভিডিওয় দেখুন সেই অবিশ্বাস্য প্রয়াস

0
428
lai chi wai

ওয়েবডেস্ক: ভারতীয় আধ্যাত্মিকতা বলে, নিজের প্রচেষ্টার সঙ্গে যদি যুক্ত হয় ঐশ্বরিক কৃপা, তাহলে পঙ্গুও গিরি লঙ্ঘন করতে সমর্থ হয়! সেই কথাই এ বার সত্যি প্রমাণিত হল হংকংয়ের ক্রীড়াবিদ লাই চি-ওয়াইয়ের ক্ষেত্রে। হুইলচেয়ারবন্দি জীবন কাটালেও ১৬২৪ ফুট উঁচু পাহাড়ে চড়ে রেকর্ড তৈরি করলেন তিনি।

জানা গিয়েছে, চি-ওয়াই আজ থেকে সাত বছর আগে এক পথদুর্ঘটনার শিকার হয়ে পড়েন। কোমর থেকে শরীরের নীচের বাকি অংশটুকু পক্ষাঘাতগ্রস্ত হয়ে পড়ে। পরিণামে, হুইলচেয়ারেই আটকে যায় তাঁর জীবনযাত্রা।

কিন্তু বছর পঁয়ত্রিশের এই ক্রীড়াবিদ হাল ছাড়েননি। হুইলচেয়ার নিয়েই চলতে থাকে তাঁর রক ক্লাইম্বিংয়ের প্রচেষ্টা। নিরন্তর নিজেকে প্রশিক্ষণের মধ্যে ডুবিয়ে রাখেন তিনি। অবশেষে সিদ্ধান্ত নেন- এ বার হুইলচেয়ারে করেই রক ক্লাইম্বিংয়ের জন্য তিনি সমর্থ হয়েছেন।

সে কথা পরীক্ষা করার জন্য যে পাহাড়কে বেছে নিয়েছিলেন চি-ওয়াই, তা হংকংয়ের সামাজিকতায় এক বিশেষ স্থান অধিকার করে আছে। তাকে বলা হয় লায়ন রক। এই পাহাড়টিকে অধ্যবসায়, স্থৈর্য আর ঐক্যের প্রতীক বলে মান্য করা হয় হংকংয়ে। হুইলচেয়ারে করে সেই পাহাড় বেয়ে ওঠার মাধ্যমে এই তিনিটি ধাপ-ই যে জয় করতে পেরেছেন তিনি, তা এখন বিশ্বজনবিদিত।

এবং তার স্বীকৃতি মিলতেও দেরি হয়নি। দেশের অন্যতম ক্রীড়া সম্মান লরিয়াস স্পোর্টস অ্যাওয়ার্ড-এর দু’টি সম্মাননা দখল করতে পেরেছেন চি-ওয়াই। যার মধ্যে একটি হল সেরা ক্রীড়াবিদের সম্মান, অন্যটি চলতি মাসের সেরা ক্রীড়া মুহূর্তের সম্মান।

যদিও ক্রীড়া পুরস্কার পেয়ে আনন্দিত হলেও তা নিয়ে খুব একটা উচ্ছ্বসিত নন চি-ওয়াই। বরং, জীবনের কাছে যে শেষ পর্যন্ত তাঁকে হার মানতে হয়নি- এই বিষয়টিই আনন্দে তাঁর মন ভরিয়ে রেখেছে। “হুইলচেয়ারে করে রক ক্লাইম্বিং-এ সমর্থ হওয়া আমার অধরা স্বপ্নই পূরণ করেছে”, জানিয়েছেন তিনি। পাশাপাশি এ-ও জানাতে ভোলেননি, তাঁর এই দৃষ্টান্ত যে শারীরিক ভাবে পিছিয়ে পড়া অন্য মানুষদেরও নিজেদের প্রতিবন্ধকতা জয়ের উৎসাহ দেবে, সে বিষয়ে তিনি নিঃসন্দিগ্ধ!

এক ক্লিকে মনের মানুষ,খবর অনলাইন পাত্রপাত্রীর খোঁজ

loading...

মতামত দিন

Please enter your comment!
Please enter your name here