খবর অনলাইন: প্রাথমিক শিক্ষাস্তরে মাতৃভাষায় জোর দেওয়া, সমস্ত কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়ে হিন্দি ও সংস্কৃত ভাষায় শিক্ষা দেওয়া, যোগ, আয়ুর্বেদ, সংস্কৃত ও আধ্যাত্মিকতায় জোর দিয়ে উচ্চ শিক্ষার ‘আন্তর্জাতিকীকরণ’, ‘ভারত’ বিষয়ে বাধ্যতামূলক ফাউন্ডেশন কোর্স চালু করা — অখিল ভারতীয় বিদ্যার্থী পরিষদ (এবিভিপি) শিক্ষা সংক্রান্ত যে ২০ দফা কর্মসূচি গ্রহণ করেছে এই সুপারিশগুলি তার অন্যতম। নতুন শিক্ষানীতিতে অন্তর্ভুক্ত করার জন্য কেন্দ্রীয় মানবসম্পদ উন্নয়ন মন্ত্রকে এই ২০ দফা কর্মসূচি জমা দিয়েছে এবিভিপি।

এবিভিপি-র নথিতে বলা হয়েছে, “হিন্দি ও সংস্কৃত ভাষায় শিক্ষার ব্যবস্থা করলে জাতীয় সংহতি ও ভারতীয় সংস্কৃতির প্রচারে অনেক দূর এগিয়ে যাওয়া সম্ভব হবে এবং এ ব্যাপারে কেন্দ্রীয় বিশ্ববিদ্যালয়গুলির উচিত তাদের ভূমিকা পালন করা। ব্রতসাধনের মনোভাব নিয়ে ইংরিজি আর আঞ্চলিক ভাষায় প্রকাশিত কাজগুলি হিন্দি আর সংস্কৃত ভাষায় অনুবাদ করতে হবে।”

এবিভিপি বলেছে, যে সব প্রতিষ্ঠান কেন্দ্রীয় অনুদানে চলে তাদের উচিত হিন্দি এবং যেখানে সম্ভব আঞ্চলিক ভাষায় শিক্ষাদানের ব্যবস্থা শুরু করা যাতে ভাষার মাধ্যমে সাংস্কৃতিক সংহতি এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায়।

এবিভিপি ‘ভারত’ বিষয়ে একটি ফাউন্ডেশন কোর্স চালু করার পক্ষপাতী, যাতে শেখানো হবে শাস্ত্র, ইতিহাস, সংস্কৃতি, দর্শন ও প্রাচীন ভারতের জীবনযাত্রা। “উচ্চশিক্ষার সমস্ত কর্মসূচিতে এই কোর্স বাধ্যতামূলক হওয়া দরকার”, বলেছে এবিভিপি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here