খবর অনলাইন: কিছু ক্ষণ আগে বিস্ফোরণে কেঁপে উঠেছে কাবুল শহরের মধ্যাঞ্চল। তার পরই গোলাগুলি। প্রাথমিক হিসাবে হতাহত হয়েছেন প্রচুর মানুষ। ঘটনার দায় স্বীকার করেছে তালিবান।

মঙ্গলবার সকালে অফিসকাছারির সময়ে শহরের যেখানে এই বিস্ফোরণ ঘটানো হয়, সেটি খুবই ব্যস্ত এলাকা। এখানে বেশ কিছু আফগান সিকিউরিটি এজেন্সির অফিস আছে। রয়েছে মার্কিন দূতাবাস, আফগানিস্তানের প্রধান গোয়েন্দা সংস্থা ন্যাশনাল ডায়রেক্টোরেট অব সিকিউরিটি-র (এনডিএস) অফিস। প্রতিরক্ষা মন্ত্রকের দফতর এবং প্রেসিডেন্টের প্রাসাদও কয়েকশো মিটারের মধ্যে।

প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘনি বলেছেন, বিস্ফোরণের লক্ষ্য ছিল এনডিএস-এর অফিস। আফগান অভ্যন্তরীণ মন্ত্রকের মুখপাত্র সেদিক সেদ্দিকি জানান, প্রথম বিস্ফোরণটি ছিল আত্মঘাতী। একটি গাড়িতে করে এসে সে বিস্ফোরণ ঘটায়।

জানা গিয়েছে, আত্মঘাতী গাড়িবোমা প্রথমে এনডিএস-এর প্রধান ফটকের সামনে বিস্ফোরণ ঘটায়। প্রত্যক্ষদর্শীদের উদ্ধৃতি দিয়ে রয়টার জানিয়েছে, বিস্ফোরণের আধ ঘণ্টা পরে গোলাগুলি শুরু হয়।

তালিবানের মুখপাত্র জবিহুল্লাহ মুজাহিদের দাবি, তাদের বেশ কিছু যোদ্ধা এনডিএস-এর অফিসে ঢুকে পড়েছে। সেখানে আফগান সেনাদের সঙ্গে তাদের লড়াই চলছে। আফগান সরকারের অফিসারেরা অবশ্য এই দাবি স্বীকার করেননি। তবে এনডিএস চত্বরের কাছে থেকে ব্যাপক গোলাগুলির শব্দ শোনা যাচ্ছে।

গত মঙ্গলবারই তালিবানের তরফ থেকে জানানো হয়েছিল তারা খুব শীঘ্রই বসন্তকালীন আক্রমণ (স্প্রিং অফেন্সিভ) শুরু করবে। মোল্লা ওমরের নামে এই আক্রমণের নাম দেওয়া হয়েছে ‘অপারেশন ওমারি’। এই ঘোষণার এক সপ্তাহের মধ্যেই বিস্ফোরণ কাবুলে।


মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here