খবর অনলাইন: দরিদ্রদের চিহ্নিত করতে ‘দারিদ্র্য সীমারেখা’র সূত্রটি আর ব্যবহার করা হবে না। সরকারের বিভিন্ন কল্যাণমূলক প্রকল্প ও কর্মসূচির সুযোগসুবিধা গরিবদের কাছে পৌঁছে দিতে তাঁদের খুঁজে বার করা হবে। এই সিদ্ধান্ত নীতি আয়োগের। আয়োগের ভাইস চেয়ারম্যান অরবিন্দ পানাগরিয়া বলেন, “আমরা ঠিক করেছি দরিদ্রদের চিহ্নিত করতে আর ‘দারিদ্র্য সীমারেখা’র সূত্র কাজে লাগাব না। আমরা গরিব মানুষদের খুঁজে বার করব।”
হায়দরাবাদে দারিদ্র্য দূরীকরণ সংক্রান্ত রিজিওনাল কনসালটেশন মিটিঙে পানাগরিয়া বলেন, ‘হাউসিং ফর অল’-এর মতো কল্যাণমূলক প্রকল্পের সুবিধা পেতে যে যোগ্যতামান ঠিক করা হয়েছে, তার থেকে এমজিএনরেগায় যোগ্যতামান আলাদা। সুতরাং বিভিন্ন সরকারি প্রকল্পে যোগ্যতামান এক এক রকম। তাই সমস্ত সরকারি প্রকল্পের সুবিধা কারা পেতে পারেন তা ঠিক করতে ‘দারিদ্র্য সীমারেখা’র সূত্রটি অনুসরণ করার কোনও অর্থ হয় না। “আমরা দারিদ্র্য সীমারেখা নিয়ে আলোচনা করতে চাই না। তেন্ডুলকর কমিটির নির্ধারিত দারিদ্র্য সীমারেখার বিষয়টি নিয়ে রঙ্গরাজন কমিটি বা বিশ্ব ব্যাঙ্ক বিবেচনা করতে পারে, আমরা গরিব মানুষ খুঁজে বার করতে এটিকে অস্ত্র হিসাবে ব্যবহার করব না।”
পানাগরিয়ার দাবি, ১৯৯৩-৯৪ থেকে ২০১১-১২ পর্যন্ত সরকারের হাতে যে তথ্য আছে তা থেকে বলাই যায়, দেশে দরিদ্র মানুষের সংখ্যা কমেছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here