অ্যাপ বিক্রি না হওয়ায় হতাশা, নাইট্রোজেন গ্যাস নিয়ে আত্মহত্যা ডেভেলপারের

0

খবর অনলাইন:  যন্ত্রণাহীন মৃত্যু চেয়েছিল সে। তাই বাজার থেকে কিনে এনেছিল নাইট্রোজেন গ্যাসের ছোট্ট একটা সিলিন্ডার। নাকে মাস্ক লাগিয়ে সেই গ্যাস আস্তে আস্তে নিজের ফুসফুসে ভরে নিয়ে ঢলে পড়েছিল মৃত্যুর কোলে।

কী ভাবে যন্ত্রণাহীন মৃত্যু পাওয়া যায়, তার জন্য ইন্টারনেটে বেশ কিছুদিন ধরে খোঁজ চালিয়েছিল হায়দারবাদের আমিরপিটের বাসিন্দা সফটওয়্যার ডেভেলপার লাকি গুপ্তা আগরওয়াল (৩৩)। জানতে পারে নাইট্রোজেন গ্যাস নিলেই পাওয়া যায় যন্ত্রণাহীন মৃত্যু।

পুলিশ মৃতদেহের সামনে থেকে একটি সুইসাইড নোটও উদ্ধার করেছে। তাতে লেখা, ‘আমি আত্মহত্যা করছি, নাইট্রোজেন গ্যাসই সবচেয়ে যন্ত্রণাহীন আত্মহত্যার উপায়। সবাই শান্তিতে ও খুশিতে থাকুক।’

কিন্তু কেন আত্মহত্যা করল লাকি?

পুলিশ সূত্র জানা গিয়েছে, মাস কয়েক আগে একটি সফটওয়্যার কোম্পানির কাজ ছেড়ে দিয়ে নিজেই বাড়িতে বসে মোবাইল অ্যাপ ডেভেলপের কাজ শুরু করেছিল সে। সম্প্রতি একটি অ্যাপ ডেভেলপ করে বাজারে ছাড়ে। সেই অ্যাপের তেমন চাহিদা তৈরি হয়নি। এর ফলে তীব্র হতাশা থেকেই লাকি আত্মহত্যা করেছে বলে প্রাথমিক তদন্তে পুলিশের অনুমান।

লাকির পরিবারের বয়ান অনুযায়ী, চাকরি ছেড়ে দেওয়ার পর থেকে সারা দিন ঘরের মধ্যেই কাটাত সে। প্রতি দিন গভীর রাত পর্যন্ত কাজ করত। বুধবার অনেকক্ষণ ধরে তার ঘরের দরজা বন্ধ থাকায় বাড়ির লোকের সন্দেহ হয়। দরজা ভেঙে ঘর ঢুকে দেখা যায় নাকে মাস্ক লাগিয়ে মৃত অবস্থায় পড়ে আছে লাকি।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন