নেরুদার মৃত্যু কী ভাবে, উত্তর ১৫ মে

0

খবর অনলাইন: কী ভাবে মৃত্যু হয়েছিল নেরুদার? সত্যি সত্যি প্রস্টেট ক্যানসারে নাকি পিনোশের গুপ্তঘাতকদের হাতে ? উত্তর জানা যেতে পারে ১৫ মে নাগাদ।

১৯৭৩ সালের ১১ সেপ্টেম্বর এক রক্তাক্ত অভ্যুত্থানে চিলির প্রেসিডেন্ট সালভাদর আলান্দেকে হত্যা করে ক্ষমতায় আসেন স্বৈরাচারী শাসক আউগুস্তো পিনোশে। তার ১২ দিনে পরেই এক হাসপাতালে মারা যান নোবেল বিজয়ী কবি পাবলো নেরুদা। এই হাসপাতালে তাঁর প্রস্টেট ক্যানসারের চিকিৎসা চলছিল। তাঁর মৃত্যুর পড়ে এক সরকারি বিবৃতিতে জানানো হয়, প্রস্টেট ক্যানসারে তাঁর মৃত্যু হয়েছে।

নেরুদা ছিলেন চিলি কমিউনিস্ট পার্টির শীর্ষস্থানীয় সদস্য। তিনি নাকি পিনোশের স্বৈরাচারী শাসনের বিরুদ্ধে প্রতিরোধ গড়ে তোলার জন্য মেক্সিকোয় পালিয়ে যাওয়ার পরিকল্পনা করেছিলেন। নেরুদার প্রস্টেট ক্যানসারে মৃত্যুর ঘটনা বিশ্বাস করতে চাননি তাঁর বন্ধু ও কমিউনিস্ট পার্টির নেতারা।

সন্দেহ জোরদার হয় যখন ২০১১ সালে নেরুদার গাড়ির চালক ও ব্যক্তিগত সহকারী মানুয়েল আরায়া দাবি করেন নেরুদাকে বিষ প্রয়োগে হত্যা করা হয়েছে। যখন তাঁকে বিষ দেওয়া হয় বলে সেই সময়ে আরায়া হাসপাতালেই ছিলেন। তিনি বলেন, “নেরুদা বললেন, ‘মানুয়েল, আমি যখন ঘুমিয়েছিলাম, একজন ডাক্তার এল, আমার পেটে একটা ইঞ্জেকশন দিল। ভেতরটা আমার জ্বলে যাচ্ছে’।”

১৭ বছরের পিনোশে-জমানায় ৩২০০ বামপন্থী কর্মী ও অন্যান্য সন্দেহভাজন বিরোধীদের খুন করা হয়। চিলির বর্তমান সরকার ক্ষমতায় এসে পিনোশে-জমানায় বিভিন্ন অত্যাচারের তদন্তে নামে। তখনই সিদ্ধান্ত হয়, নেরুদারও মৃত্যুর তদন্ত হবে। তার পরই তাঁর দেহ ২০১৩ সালে কবর থেকে বার করে স্পেনে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানকার মুরসিয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের ফরেনসিক বিশেষজ্ঞরা নেরুদার দেহে অস্বাভাবিক ব্যাকটেরিয়া সংক্রমণ চিহ্নিত করেন। যে সংক্রমণের ব্যাখ্যা তাঁরা দিতে পারেননি। এর পর নেরুদার দেহ ডেনমার্ক ও কানাডায় নিয়ে গিয়ে পরীক্ষা করা হয়। পরীক্ষানিরীক্ষার পর মঙ্গলবার তাঁর দেহ ফের কবরস্থ করা হয়।

এই নিয়ে চার বার কবর দেওয়া হল তাঁকে। প্রথম বার সান্তিয়াগোর জেনারেল চে সেমেট্রিতে। এর এক বছর পর সেখান থেকে দেহ তুলে কবর দেওয়া হয় রাজধানীরই একটি ছড়ানোছেটানো সমাধিক্ষেত্রে। ১৯৯২-এ গণতন্ত্র ফিরে আসার পর প্রেসিডেন্ট পাত্রিসিও আইলউইন যথাযোগ্য মর্যাদায় নেরুদাকে সমাহিত করার নির্দেশ দেন। তাঁর নির্দেশে কবির দেহ ফের তুলে ইসলা নেগরায় তাঁকে সমাহিত করা হয়। অসুস্থ কবি এখানেই সমাহিত হওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিলেন।

১৫ মে পরীক্ষানিরীক্ষার রিপোর্ট পাওয়ার পর জানা যাবে কী ভাবে মারা যান বিশ্ববন্দিত এই কবি।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন