খবর অনলাইন : এই মুহূর্তে গরমের হাত থেকে স্বস্তির কোনও পূর্বাভাস তো নেই-ই, উল্টে তাপমাত্রা আরও ২-৩ ডিগ্রি বেড়ে তাপপ্রবাহের কবলে পড়তে পারে শহর কলকাতা। কলকাতার চেনা ঘেমো গরম উধাও, তার জায়গা নিয়েছে পশ্চিমাঞ্চল থেকে বয়ে আসা শুকনো বাতাস। এরই প্রভাবে বৃহস্পতিবার থেকে বাড়ছে গরম। সে দিন সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪০.১ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ওই দিন রাতের হাল্কা ঝড় আর পরের দিন ভোরের দু-এক ফোঁটা বৃষ্টির প্রভাবে শুক্রবার ৩৭.৬ ডিগ্রিতেই থমকে গিয়েছিল পারদ। আজ আবার মেঘমুক্ত আকাশ পেয়ে ছড়ি ঘুরিয়েছে রোদ্দুর। আজ, শনিবার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৩৮.৬ ডিগ্রি। কাল রবিবার কলকাতার তাপমাত্রা ছুঁতে পারে ৪১ ডিগ্রি, পরের দিন, সোমবার আরও এক ডিগ্রি বেড়ে ৪২ ডিগ্রিতে পৌঁছতে পারে পারদ। পশ্চিমাঞ্চলের জেলার অবস্থা আরও খারাপ। বৃহস্পতিবার থেকেই তাপপ্রবাহের কবলে পড়েছে বর্ধমান, বাঁকুড়া, পুরুলিয়া, বীরভূম আর পশ্চিম মেদিনীপুর। বৃহস্পতিবার বাঁকুড়ার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ছিল ৪৫ ডিগ্রি। উল্লেখ্য, সর্বোচ্চ তাপমাত্রা স্বাভাবিকের থেকে পাঁচ ডিগ্রি বেশি হলে তাকে তাপপ্রবাহ বলে। সোমবার পশ্চিমাঞ্চলের জেলায় তাপমাত্রা ৪৪ থেকে ৪৬ ডিগ্রির কাছাকাছি থাকার সম্ভাবনা। এই পরিস্থিতিতে গরম কমার কোনও লক্ষণ নেই বরং কলকাতা-সহ দুই ২৪ পরগণা, হাওড়া, হুগলি, নদীয়া আর পূর্ব মেদিনীপুরও তাপপ্রবাহের সম্মুখীন হতে পারে। তাপমাত্রা ৪১ ডিগ্রি ছুঁলেই তাপপ্রবাহ ঘোষণা করা হবে শহরে। এপ্রিল মাসে কলকাতার সর্বোচ্চ তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছিল ১৯৫৪ সালের ২৫  এপ্রিল, সে দিন পারদ পৌঁছেছিল ৪৩.৩ ডিগ্রিতে। সেই রেকর্ড ভাঙার সম্ভাবনা যদিও কম।

শনিবার দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জায়গায় দহনের হিসেব :

আসানসোল – ৪১.৯ ডিগ্রি (+৪); কৃষ্ণনগর – ৪০.২ ডিগ্রি (+৩); মেদিনীপুর – ৪০ ডিগ্রি (+৩);  বোলপুর – ৪২ ডিগ্রি (+৫); বাঁকুড়া – ৪৪.২ ডিগ্রি (+৭)


মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here