খবর অনলাইন : পশ্চিমবঙ্গে প্রথম দফার দ্বিতীয় দিনের ভোটে সন্ধ্যে ৬টা পর্যন্ত ১৮১০টি অভিযোগ জমা পড়েছে নির্বাচন কমিশনের দফতরে। এত অভিযোগ জমা পড়ায় উদ্বিগ্ন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার নসীম জৈদী ফোনে কথা বলেন মুখ্য নির্বাচন আধিকারিক  সুনীল গুপ্তের সঙ্গে। এ দিন ভোটগ্রহণ পর্ব শুরু হতেই হিংসা ও অশান্তির খবর আসতে শুরু করে। এই পর্বে ভোট নেওয়া হয়েছে বর্ধমানের ৯টি, বাঁকুড়ার ৯টি এবং পশ্চিম মেদিনীপুরের ১৩টি কেন্দ্রে। সোনামুখী কেন্দ্রে সন্ত্রাসের অভিযোগ উঠেছে বিদায়ী বিধায়ক দীপালি সাহার বাহিনীর বিরুদ্ধে। কোনও কোনও জায়গায় আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে দুষ্কৃতীদের দাপাদাপির অভিযোগ এসেছে। অনেক কেন্দ্রে বিরোধী দলের এজেন্টদের বুথে ঢুকতে দেওয়ার আগেই মারধর করে তাড়িয়ে দেওয়া হয়েছে বলে অভিযোগ। জামুরিয়ার কোনও কোনও বুথে বিরোধী দলের এজেন্টদের মেরে বার করে দেওয়া হয়েছে। একই ছবি পশ্চিম মেদিনীপুর জেলার সবং কেন্দ্রে, যেখানে বাম-গণতান্ত্রিক জোটের হয়ে লড়ছেন কংগ্রেস নেতা মানস ভুঁইয়া। সব জায়গাতেই কেন্দ্রীয় বাহিনীর বিরুদ্ধে নিষ্ক্রিয় থাকার অভিযোগ করা হয়েছে।

আজ যাঁদের ভাগ্য নির্ধারিত হল তাঁদের মধ্যে মানস ভুঁইয়া ছাড়াও রয়েছেন সিপিএম নেতা সূর্যকান্ত মিশ্র, রাজ্য বিজেপি সভাপতি দিলীপ ঘোষ, রাজ্যের প্রাক্তন পরিবহণ মন্ত্রী জ্ঞান সিং সোহনপাল, এখনকার মন্ত্রী সৌমেন মহাপাত্র ও মলয় ঘটক, টলিউড তারকা সোহম চক্রবর্তী প্রমুখ।

অসমেও এ দিন দ্বিতীয় দফার ভোটগ্রহণ হয়। রাজ্যের শেষ দফায় রাজধানী গুয়াহাটি সহ ৬১টি বিধানসভা কেন্দ্রে ভোট হয়। ভোট দেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিংহ।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here