খবর অনলাইন : হাইকোর্ট যতই নির্দেশ দিক, মন্দির কর্তৃপক্ষের কোনও হেলদোল নেই। মুম্বই হাইকোর্ট জানিয়েছিল, কোনও অবস্থাতেই মন্দিরে মহিলাদের আটকানো যায় না। যেখানে পুরুষদের প্রবেশের অধিকার আছে, সেখানে মহিলারাও ঢুকবেন। কিন্তু এই নির্দেশের পর শনি শিঙ্গনাপুরের মন্দিরে পরিস্থিতির কোনও পরিবর্তন হয়নি। হাইকোর্টের নির্দেশের বলে বলীয়ান হয়ে ভূমাতা ব্রিগেডের এক দল কর্মী পরের দিনই শনি শিঙ্গনাপুরের মন্দিরে যান এবং যেখানে বিগ্রহের অধিষ্ঠান সেই ‘চৌতারা’য় ওঠার চেষ্টা করেন। কিন্তু স্থানীয় প্রতিরোধ বাহিনীর সদস্যরা এবং মন্দিরের প্রশাসনিক কর্মীরা তাঁদের হটিয়ে দেন। তাঁরা ‘চৌতারা’টি ঘিরে রাখেন। পরে পুলিশ এসে ভূমাতা ব্রিগেডের কর্মীদের ১০০ মিটার দূরে নিয়ে চলে যায়। সেখানেই তাঁরা শুয়ে অবস্থান বিক্ষোভ শুরু করেন। ব্রিগেডের নেত্রী তৃপ্তি দেশাই দৃশ্যতই ক্ষুব্ধ। তিনি বলেন, মন্দিরের গর্ভগৃহে মহিলাদের প্রবেশের অধিকার সুপ্রশস্ত করে মুম্বই হাইকোর্ট যে রায় দিয়েছে, মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়ণবীশ তাকে সম্মান জানাতে ব্যর্থ হলে তাঁর বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হবে।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here