নিজস্ব সংবাদদাতা, জলপাইগুড়ি: ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইবুনালের নির্দেশে লাটাগুড়িতে গাছ কাটার ওপর স্থগিতাদেশ বহাল রইল ৪ জুলাই পর্যন্ত। শিলিগুড়ি-চ্যাংরাবান্ধা রেলপথের ওপরে উড়ালপুল তৈরির জন্য লাটাগুড়িতে ৫৫০টি বাণিজ্যিক গাছ সহ কয়েকশো গাছ কাটার সিদ্ধান্ত নেয় বন দফতর। গাছ কাটা শুরুও হয়ে যায়। বাধা দেয় পরিবেশপ্রেমী সংগঠনগুলি। সংগঠনের নেতারা গ্রেফতারও হন। এর পরেই তাঁরা হাইকোর্টের দ্বারস্থ হন। আদালতের নির্দেশে মামলা শুরু হয় ন্যাশনাল গ্রিন ট্রাইব্যুনালে। পরিবেশ রক্ষা আইন (১৯৮০) অনুযায়ী বন দফতর কেন্দ্রের কোনো ছাড়পত্র দেখাতে না পারায় গত ১৪ এপ্রিল গাছ কাটার ওপর স্থগিতাদেশ দিয়ে ১৬ মে সেই ছাড়পত্র পেশ করার নির্দেশ দেয় ট্রাইব্যুনাল। কিন্তু এ দিনও বন দফতর কেন্দ্রীয় পরিবেশ মন্ত্রকের ছাড়পত্র পেশ করতে পারেনি। ফলে গাছ কাটার ওপর স্থগিতাদেশ বহাল রেখে আগামী ৪ জুলাই সেই ছাড়পত্র পেশ করার নির্দেশ দিয়েছে ট্রাইব্যুনাল।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন