winter

কলকাতা: বন্ধ হল গত কয়েক দিন ধরে চলা পারদের ক্রমাগত নিম্নগামী যাত্রা। রবিবার থেকে কিছুটা বাড়ল কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা। সেই সঙ্গে পূর্বাভাস এসে গেল আগামী অন্তত দিন দশেক কিছুটা ঊর্ধ্বমুখী হবে পারদ।

রবিবার সকালে কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৫.২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। মরশুমের শীতলতম দিনের তকমা উঠেছিল কলকাতার গায়ে। কিন্তু ২৪ ঘণ্টা পেরোতেই পারদ বাড়ল ০.৫ ডিগ্রি। সোমবার কলকাতার তাপমাত্রা ছিল ১৫.৭ ডিগ্রিতে। শুধু কলকাতাই নয়, তাপমাত্রা বেড়েছে রাজ্যের পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলিতেও।

বাঁকুড়ায় এ দিন সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ১৪.১ ডিগ্রি, স্বাভাবিকের থেকে যা মাত্র এক ডিগ্রি সেলসিয়াস কম। গত কয়েক দিন ধরেই তাপমাত্রা স্বাভাবিকের থেকে চার থেকে পাঁচ ডিগ্রি করে কম রেকর্ড করা হচ্ছিল। সে দিক থেকে দেখতে গেলে সোমবার বেশ গরমই। গত কয়েক দিন ধরে দশ ডিগ্রির আশেপাশে ঘোরা শান্তিনিকেতনে এ দিন ১৩ ডিগ্রি রেকর্ড করা হয়। তাপমাত্রা বেড়েছে নদীয়া, মুর্শিদাবাদেও।

কেন থমকে গেল পারদ পতন? কেন হঠাৎ করে ঊর্ধ্বগামী যাত্রা শুরু করল পারদ?

এর পেছনে রয়েছে উত্তর ভারতে বয়ে আসা নয়া পশ্চিমী ঝঞ্ঝা। বেসরকারি আবহাওয়া সংস্থা ওয়েদার আল্টিমার কর্ণধার রবীন্দ্র গোয়েঙ্কার মতে, এই পশ্চিমী ঝঞ্ঝাটির ফলে উত্তুরে হাওয়া বাধাপ্রাপ্ত হতে শুরু করেছে। আপাতত কাশ্মীর, হিমাচল এবং উত্তরাখণ্ডে তুষারপাত ঘটাবে এই পশ্চিমী ঝঞ্ঝাটি।

তবে ঝঞ্ঝা কেটে গেলেই যে তার ঠান্ডা হাওয়া রাজ্যে চলে আসবে, সেটা ভাবলে ভীষণ ভুল হবে। কারণ তখন সমুদ্রে হাজির হয়ে যাবে একটি নিম্নচাপ। সম্ভাব্য এই নিম্নচাপটি তামিলনাড়ু উপকূলে জন্মালেও, এর প্রভাব সমগ্র পূর্ব উপকূলেই পড়তে পারে। ডিসেম্বরের প্রথম সপ্তাহের কয়েক দিন কলকাতার আকাশ থাকবে প্রধানত মেঘলা, সেই সঙ্গে ছিটেফোঁটা বৃষ্টিও হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে বলে জানান রবীন্দ্রবাবু।

তাঁর কথায়, “এই নিম্নচাপটির প্রভাবে কলকাতার সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ১৭ থেকে ১৯ ডিগ্রির কাছাকাছি পৌঁছে যাবে। ৪ এবং ৫ ডিসেম্বর নাগাদ তাপমাত্রা পৌঁছে যেতে পারে কুড়ি ডিগ্রিতেও।” তবে শীতপ্রত্যাশীদের এখনই হতাশ হওয়ার কোনো কারণ নেই। আবহাওয়া বিশেষজ্ঞদের মতে, শীতের আগমনী সময়ে তাপমাত্রার এই ওঠানামা খুবই স্বাভাবিক একটা ঘটনা।

তবে নিম্নচাপের প্রভাব কেটে গেলেই ফের তুষারশীতল হাওয়া ঢুকে পড়বে রাজ্যে। কমতে শুরু করবে পারদ। ডিসেম্বরের দ্বিতীয় সপ্তাহেই বারো ডিগ্রিতে চলে যেতে পারে কলকাতার তাপমাত্রা।

তবে এ বারের শীতের প্রাথমিক পর্যবেক্ষণ খুবই আশাব্যঞ্জক বলে মনে করেন আবহাওয়া বিশেষজ্ঞরা। কারণ তাঁদের ধারণা, এ বার কাশ্মীর, হিমাচল, উত্তরাখণ্ড, নেপাল, সিকিম, ভুটান এবং অরুণাচলে, গত কয়েক বছরের তুলনায় বেশিই তুষারপাত হতে পারে। তেমন হলে তো পশ্চিমবঙ্গের পোয়াবারো। তবে আপাতত দিন দশেক ঊর্ধ্বমুখী পারদের জন্য প্রস্তুত হোন রাজ্যবাসী।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here