নিজস্ব সংবাদদাতা, জলপাইগুড়ি : বৃহস্পতিবার দুপুরে কাজ করার সময় একটি নালার মধ্যে চিতার মৃতদেহ দেখতে পেয়ে বাগান কর্তৃপক্ষকে খবর দেন জলপাইগুড়ির মালবাজার মহকুমার ওয়াশাবাড়ি চা-বাগানের কর্মীরা। মালবাজার ওয়াইল্ড লাইফ স্কোয়াডের প্রাথমিক অনুমান বিষক্রিয়ায় মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে পূর্ণবয়স্ক স্ত্রী চিতাটির। চা-পাতাকে পোকামাকড়ের হাত থেকে রক্ষা করতে নানা ধরনের কীটনাশক স্প্রে করা হয়। সেই কীটনাশক নালার জলে মিশে গিয়ে থাকতে পারে। আর তা খেয়েই চিতার মৃত্যু হয়েছে বলে অনুমান করছে স্কোয়াড। তবে চিতার দেহের বাঁদিকে একটি আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। জলপাইগুড়ি বনবিভাগের বনাধিকারক বিদ্যুৎ সরকার জানিয়েছেন দেহটি ময়নাতদন্তের জন্য গরুমারা জাতীয় উদ্যানে পাঠানো হয়েছে। স্থানীয়রা জানান, বেশ কিছুদিন ধরে এই চা-বাগানে আতঙ্ক সৃষ্টি করেছিল একটি চিতা। তাকে ধরতে বন দফতর একটি ফাঁদও পেতে ছিল। তবে মৃত চিতাটিই সেটি কি না তা নিয়ে সংশয় রয়েছে স্থানীয়দের মধ্যে।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন