খবর অনলাইন : গর্ভগৃহে ঢুকে পুজো দেওয়া মহিলাদের মৌলিক অধিকার। এই অধিকার খর্ব করা যায় না –- বোম্বে হাইকোর্টের এই রায়ের ফল বোধহয় ফলতে শুরু করেছে মহারাষ্ট্রে। শনি শিংনাপুরের পর কোলহাপুরের মহালক্ষ্মী মন্দির। মন্দিরের গর্ভগৃহ খুলে গেল মহিলাদের জন্য। সোমবার পুলিশ ও জেলা প্রশাসনের নজরদারির মধ্যে ৫ জন মহিলা পুণ্যার্থী গর্ভগৃহে ঢুকে পুজো দিলেন।

মহালক্ষ্মী মন্দিরে প্রবেশাধিকার পাওয়ার জন্য ভূমাতা ব্রিগেডকে আর আন্দোলন করতে হল না। আগামী কাল বুধবার ভূমাতা ব্রিগেডের মহালক্ষ্মী মন্দির অভিযানের কথা ছিল। কিন্তু দমে যাননি ব্রিগেডের নেত্রী তৃপ্তি দেশাই। যাঁরা গর্ভগৃহে ঢুকে পুজো দিলেন তাঁদের সাহসকে কুর্নিশ জানিয়ে দেশাই ঘোষণা করেছেন, তাঁদের আগামিকালের সমাবেশ বিজয় উৎসব হিসাবে পালিত হবে। ওই দিন ২০০ মহিলা মহালক্ষ্মী মন্দিরের গর্ভগৃহে ঢুকে পুজো দেবেন। উল্লেখ্য, সপ্তাহখানেক আগেই অনুরাধা ভোসালে নামে স্থানীয় এক মহিলা সমাজকর্মী ৪০ জন সঙ্গী নিয়ে মহালক্ষ্মী মন্দিরের গর্ভগৃহে ঢোকার চেষ্টা করেন। কিন্তু মন্দির কর্তৃপক্ষ এবং স্থানীয় কিছু মহিলা তাঁদের সেই চেষ্টা বানচাল করে দেন।

তৃপ্তি দেশাইয়ের ভূমাতা ব্রিগেড আন্দোলন শুরু করার অনেক আগেই বামপন্থী চিন্তাবিদ ডঃ নরেন্দ্র দাভোলকরের নেতৃত্বে মহারাষ্ট্র অন্ধশ্রদ্ধা নির্মূলন সমিতি (এমএএনএস) কোলহাপুরের মহালক্ষ্মী মন্দিরে মহিলাদের প্রবেশাধিকারের দাবিতে আন্দোলন শুরু করে। শেষ পর্যন্ত ডঃ দাভোলকরকে আততায়ীর গুলিতে প্রাণ দিতে হয়।


মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here