তৈরি থাকুন, তিন বছরের মধ্যে মারুতি নিয়ে আসছে বিদ্যুৎচালিত গাড়ি, দামেও অনেক সস্তা

ওয়েবডেস্ক: তিন বছরের মধ্যেই বাজারে বিদ্যুৎচালিত গাড়ি নিয়ে আসতে চলেছে মারুতি-সুজুকি। সংস্থার চেয়ারম্যান আর সি ভার্গব খবরের সত্যতা স্বীকার করে নিয়ে আজ জানিয়েছেন, ভারতের এই বৃহত্তম ছোটো যাত্রী বাহী সংস্থা দূষণের দিকটি মাথায় রেখেই এই বিদ্যুৎচালিত গাড়ি বাজারে নিয়ে আসছে। তিনি বলেন, সুজুকি-টয়োটার যৌথ প্রযুক্তিতে নির্মিত ওই গাড়ি তৈরি করবে মারুতি। বাজারে বিক্রি করার দায়িত্বও থাকছে তাদেরই হাতে।

সম্প্রতি কেন্দ্রীয় পরিবহণমন্ত্রী নীতিন গডকরি জানিয়েছেন, আগামী ২০৩০-এর মধ্যে দেশকে বিদ্যুৎচালিত গাড়ির জন্য উপযুক্ত করে তুলতে হবে। দূষণের মাত্রায় লাগাম পরাতে পেট্রোল-ডিজেলের গাড়ি বাতিল করতে হবে। এ ব্যাপারে তিনি বিভিন্ন গাড়ি নির্মাতা সংস্থাগুলিকে নিজেদের অবস্থানের কথা জানাতে বলেন। এবং পাশাপাশি বিদ্যুৎচালিত গাড়ি নির্মাণের দিকে দৃষ্টি দিতেও বলেন। কিন্তু এমন জটিল বিষয় নিয়ে কেউ-ই ততটা আগ্রহ প্রকাশ করেনি।

ভার্গব বলেছেন, ভারতীয় গাড়ি ক্রেতারা নতুন বিদ্যুৎচালিত গাড়িতে ঠিক কী কী সুবিধা পেতে চান, সে বিষয়ে একটি সমীক্ষা প্রথম পর্যায়ে তাঁরা চালাবেন। সেই সমীক্ষা রিপোর্ট তৈরি সম্পূর্ণ হবে আগামী বছরের ফেব্রুয়ারি মাসের মধ্যেই। যা থেকে ক্রেতার সামগ্রিক চাহিদা বজায় রেখে ওই নতুন গাড়ি তৈরি করা হবে। সব মিলিয়ে বছর তিনেক সময় লাগবে এই পুরো পরিকল্পনাকে বাস্তবায়িত করতে। উল্লেখ্য, মারুতির দৃষ্টান্ত স্থাপনকারী ‘ওমনি’ ভ্যান নির্মাণের আগেও এ ধরনের সমীক্ষা করা হয়েছিল সংস্থার তরফে। আর ওই গাড়ির চাহিদা যে ভারতের বাজারে কোন পর্যায়ে চল গিয়েছিল, তা আজ আর কারও অজানা নয়।

তবে ক্রেতা স্বার্থের দিকে তাকিয়ে ভার্গব জানান, এই নতুন বিদ্যুৎচালিত গাড়ি জ্বালানি তেলে চলা গাড়ির থেকে অনেক কম দামে তাঁরা বাজারে নিয়ে আসতে সক্ষম হবে। অন্তত আধুনিক প্রযুক্তি তাই বলছে।

Be the first to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published.


*


This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.