ওয়েবডেস্ক: বহু বছর আগে থেকেই পৌত্তলিকতাবাদী আর খ্রিষ্টান সম্প্রদায় খ্রিস্টমাস ট্রি-কে উৎসবের একটা অঙ্গ করে তুলেছিল। চিরসবুজ এই গাছ তাঁদের কাছে বসন্তের বার্তা বয়ে আনত। রোমানরা গির্জা সাজাতে এর ব্যবহার করে এসেছে বহু কাল থেকেই। আর খ্রিস্টান সম্প্রদায়ের কাছে এই গাছ ভগবানের কাছে অনন্ত জীবনের উপস্থিতির প্রতীক।

christmas tree

এই শীতেও দেখতে দেখতে চলে এল খ্রিস্টমাস। মানে, বিশেষভাবে ঘর সাজানোর জন্য মন উচাটন। আর সাজানোর জন্য মূল জিনিস হল খ্রিস্টমাস ট্রি। এই অন্দরসাজের বিশেষত্ব হল, চাইলে আসল গাছ দিয়েই ঘর সাজানো যায়। আবার পাওয়া যায় আর্টিফিশিয়াল ট্রি-ও। ঘর সাজাতে যা ভীষণ জনপ্রিয়।

christmas tree

এই নকলেরও আবার নানান রকমফের রয়েছে। বরফে ঢাকা গাছ, ঝকঝকে সবুজ গাছ, আবার ডালের আগায় লাল রঙের ফল ধরা সবুজ গাছ- আরও কত কী।

christmas tree

আজকাল ঘর সাজানোর জন্য ছোটো ছোটো ইঞ্চি দু’য়েকের গাছ থেকে বিশাল আকৃতির গাছ, সবই পাওয়া যায়। জায়গার পরিসর আর প্রয়োজন অনুযায়ী তা বাছাই করাই শ্রেয়।

christmas tree

তবে খ্রিস্টমাসের সাজগোজ এখন আর শুধু ঘর বা গির্জাতেই সীমাবদ্ধ নেই। রাস্তাঘাট, দোকানপাট, শপিং মল, সব জায়গাতেই তা সমাদৃত।

christmas tree

এই খ্রিস্টমাস ট্রি নানান জিনিসের হয়ে থাকে। কাগজের ফোল্ডিং ট্রি, পেপার পাল্পের ট্রি থেকে, মোটা প্লাস্টিক পেপারের তৈরি ট্রি- সবই পাওয়া যায়। আবার নরম তারের বিভিন্ন মাপেরও এই ট্রি বাজারে মেলে। তবে বাছাই পছন্দের ওপর নির্ভরশীল। আর জিনিসের মানের সঙ্গে তাল মিলিয়ে দামের হেরফের হয়, সে কথা তো ক্রেতাদের বলাই বাহুল্য।

মোটামুটি ভাবে ৪ ফুটের একটা গাছের দাম শুরু হতে পারে চারশো টাকা থেকে। তবে হ্যাঁ, বারবারই বলছি, কোয়ালিটি বা কী দিয়ে তৈরি, তার ওপর নির্ভর করবে দাম।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here