Connect with us

ঐতিহ্য ও প্রথা

কালীর অন্ধকার, দীপাবলির আলো: সাংস্কৃতিক ঐতিহ্য

Published

on

আরও পড়ুন : প্রসঙ্গ মা কালী কথা  কালীপূজার এই বির্বতনের পথেই যুক্ত হয়েছে দীপাবলি উৎসব। কালী, দুর্গার মতো উর্বরতা কাল্টের ঐতিহ্যকে বহন করেনি, সে উপস্থিত হয়েছে অন্য ব্যঞ্জনায়। শুরুতে কুশিক (অনার্য মানবগোষ্ঠী) বা শবরদের টোটেম হিসেবে থাকলেও আর্যকরণের মধ্য দিয়ে অন্য অর্থ লাভ করে। কালীকে মৃত্যুর দেবীরূপে কল্পনা করার সঙ্গে জড়িয়ে পড়ে দীপাবলি উৎসব। ‘পরলোকগত’ স্বজন ও বন্ধুরা ‘ভয়ংকর’ এবং ‘অন্ধকার’ পরলোকের পথে নির্বিঘ্নে যেতে পারেন, তাই অমাবস্যা ও তার আগের দিন নদীর জলে বা পুকুরের জলে জ্বলন্ত প্রদীপ ভাসানো হয় বা আকাশ-প্রদীপ জ্বালানো হয়। আসলে অমাবস্যার ভয়ংকর অন্ধকারকে মানুষ ভয় পেত, তাই ঘন ঘোর অন্ধকারে আলো জ্বালিয়ে মানুষ তার ভয় দূর করত। এর সঙ্গে থাকত নানা ধরনের আওয়াজ করা – যার মধ্যে দিয়ে ‘ভূত-প্রেত’ তাড়ানোর মানসিকতা প্রকাশিত হত। আদিমকাল থেকেই কাঠকুটো জ্বালিয়ে আলো আর আগুন তৈরি করা হয়। পাথর-টাথর ফেলে দল বেঁধে চেঁচামেচি করে বিকট শব্দ করা – এই ছিল আত্মরক্ষার আদিম পদ্ধতি। কয়েক হাজার বছর অতিক্রম করে তা পরিণত হয়েছে কালীপূজার আতসবাজি পোড়ানোতে। ঘটনা হল ভূত-প্রেতে বিশ্বাস কেবল আদিম মানুষের নয়, বাঙলার প্রায় ঘরে ঘরে এই বিশ্বাস এখনও যথেষ্ট শক্তিশালী। ফলে আদিম মানুষের ভয়ের গল্পের সঙ্গে বর্তমানের মানুষের অন্ধত্ব ও কুসংস্কারের কথা ভুললে চলবে না। তাই আগুন জ্বালানো ও শব্দবাজির সঙ্গে ভূত তাড়ানোর গল্পটি কম প্রাসঙ্গিক নয়।

গ্রন্থপঞ্জি

চক্রবর্তী, চিন্তাহরণ, ১৩৭৭ বাংলা। হিন্দুর আচার অনুষ্ঠান, কলিকাতা: লেখক সমবায় সমিতি চক্রবর্তী, চিন্তাহরণ, ২০১০। তন্ত্র। কলকাতা : গাঙচিল দাশগুপ্ত, কল্যাণকুমার। ২০০০। প্রতিমা শিল্প হিন্দু দেবদেবী, কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গ বাংলা আকাদেমি বন্দ্যোপাধ্যায়, অমলকুমার। ১৯৮৫। পৌরাণিকা। কলিকাতা : ফার্মা কেএলএম প্রাইভেট লিমিটেড বাস্কে, ধীরেন্দ্রনাথ, ২০০৬। বঙ্গ সংস্কৃতিতে প্রাক-বৈদিক প্রভাব, কলকাতা: সুশীল বাস্কে (পরিবেশক-সুবর্ণরেখা) ভট্টাচার্য, হংসনারায়ণ, ১৯৯৭। হিন্দুদের দেবদেবী-উদ্ভব ও ক্রমবিকাশ। তৃতীয় পর্ব। কলিকাতা: ফার্মা কেএলএম প্রাইভেট লিমিটেড সেনগুপ্ত, পল্লব, ২০০১, পূজা-পার্বনের উৎসকথা, কলকাতা : পুস্তক বিপণি Doniger, Wendy, 2011 The Hindus- An Alternative History, New Delhi, Penguin Books]]>

উৎসব

রাখিবন্ধন নিয়ে এই ঐতিহাসিক কাহিনি দু’টি কি জানেন?

Published

on

history

খবরঅনলাইন ডেস্ক: পুরাণের পাতা ওলটালে যেমন রাখিবন্ধনের বেশ কিছু উল্লেখ পাওয়া যায়, ঠিক তেমনই ইতিহাসের পাতা ওলটালেও রাখিবন্ধনের কিছু ঘটনার কথা জানা যায়। যেমন –

আলেকজান্ডার ও পুরুর ঘটনা –

৩২৬ খ্রিস্টপূর্বাব্দে আলেকজান্ডার ভারত আক্রমণ করেছিলেন, এই কথা সবাই জানি। এরই সঙ্গে রয়েছে আর একটি ঘটনাও। আলেকজান্ডারের স্ত্রী রোজানার কাহিনি। রোজানা রাজা পুরুকে একটি পবিত্র সুতো পাঠিয়েছিলেন। এর পর তিনি পুরু রাজাকে আলেকজান্ডারের ক্ষতি করতে মানা করেছিলেন। হিন্দু রাজা পুরু। তিনি রাখির মাহাত্ম্য বোঝেন ও তাকে সম্মান করেন। তাই রোজানার কথা রাখতে আর সেই পবিত্র সুতোর বন্ধনকে সম্মান দিতে যুদ্ধক্ষেত্রে তিনি নিজে আলেকজান্ডারকে আঘাত করেননি।

Loading videos...

রানি কর্ণবতী ও মুঘল সম্রাট হুমায়ুনের কাহিনি –

ইতিহাসে আরও একটি কাহিনি পাওয়া যায় রাখিবন্ধনকে কেন্দ্র করে। ঘটনা ১৫৩৫ সালের। মুঘলসম্রাট হুমায়ুনকে একটি রাখি পাঠান চিতোরের রানি কর্ণবতী। গুজরাতের সুলতান বাহাদুর শাহ এই সময় চিতোর আক্রমণ করেছিলেন। তাতে বিধবা রানি অসহায় বোধ করেছিলেন। সেই পরিস্থিতিতেই তিনি রাখি পাঠিয়েছিলেন সম্রাটকে ও সাহায্য প্রার্থনা করেছিলেন।

হুমায়ুন এই বিষয়টির গুরুত্ব বুঝতেন। তাকে সম্মান জানিয়েই রানির সুরক্ষার জন্য সৈন্য প্রেরণ করেছিলেন। কিন্তু তাতে কিছুটা দেরি হয়ে গিয়েছিল। ততক্ষণে বাহাদুর শাহ চিতোর দখল করে নিয়েছিলেন। এই অবস্থায় নিজের সম্মান বাঁচাতে ১৩ হাজার পুর-নারীকে নিয়ে জহরব্রত পালন করেন রানি। তাঁরা ১৫৩৫ সালের ৮ মার্চ আগুনে আত্মহুতি দেন।

এর পর হুমায়ুন চিতোরে পৌঁছোন। তখন আর রানি নেই। শেষে বাহাদুর শাহকে চিতোর থেকে উৎখাত করে কর্ণবতীর পুত্র বিক্রমজিৎ সিংহকে সিংহাসনে অভিষিক্ত করেন। কিন্তু এই ঘটনাটি নিয়ে মতপার্থক্য আছে। অনেক ঐতিহাসিকের লেখায় এর উল্লেখ পাওয়া যায় না। অথচ মধ্য সপ্তদশ শতকের রাজস্থানি লোকগাথায় এর উল্লেখ পাওয়া যায়।

Continue Reading

উৎসব

রাখিবন্ধনের সঙ্গে জড়িয়ে রয়েছে মহাভারতের কৃষ্ণ ও যমুনার কাহিনি

Published

on

খবরঅনলাইন ডেস্ক: কলকাতায় রাখিবন্ধন উৎসব শুরু করেছিলেন রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর। ২০ জুলাই বঙ্গভঙ্গের সিদ্ধান্ত ঘোষণা করার পর জাতি বর্ণ নির্বিশেষে সকলেই আন্দোলন প্রতিবাদে মুখর হয়ে ওঠে। ১৬ অক্টোবর বঙ্গভঙ্গের দিন ঠিক হয়। সেই দিন হিন্দু মুসলমান একে অপরের হাতে সৌভ্রাতৃত্বের প্রতীক হিসাবে বেঁধে দেন রাখি। সেই থেকে চল হয় রাখি উৎসবের। তবে বাঙালি ছাড়া মূলত অবাঙালি সম্প্রদায় পঞ্জাবি ও মারোয়াড়িদের মধ্যে এই রাখিপূর্ণিমার উৎসব খুব ধুমধাম করে পালিত হয়। তবে রাখি পরানোর বিষয়টির সঙ্গে যোগ রয়েছে বেশ কিছু পৌরাণিক কাহিনিরও।  

কৃষ্ণ ও দ্রৌপদী

মহাভারতের কাহিনি থেকে জানা যায়, একটি যুদ্ধের সময় শ্রীকৃষ্ণের হাতের কবজিতে আঘাত লাগে। সেই ক্ষত থেকে রক্তপাত হতে শুরু হয়। তা দেখতে পেয়ে দ্রৌপদী নিজের শাড়ির আঁচল ছিঁড়ে কৃষ্ণের হাতে বেঁধে দেন। তার পর থেকেই শ্রীকৃষ্ণ দ্রৌপদীকে নিজের বোন সখী হিসাবে মানতে শুরু করেন। এই উপকারের প্রতিদান দেওয়ারও অঙ্গীকার করেন কৃষ্ণ। এর পর পাশা খেলায় পাণ্ডবরা সর্বস্ব খুইয়ে যখন দ্রৌপদীকে কৌরবদের হাতে তুলে দিতে বাধ্য হয়, দ্রৌপদীর চরম বিপদ এসে পড়ে। দুঃশাসন তাঁর বস্ত্রহরণ করতে গেলে দ্রৌপদী শ্রীকৃষ্ণকে প্রাণ ভরে স্মরণ করেন। দ্রৌপদীর সম্মানরক্ষা করে সেই শ্রীকৃষ্ণ সেই প্রতিদান দেন। সেই সময় থেকে এই ভাবেই রাখিবন্ধন উৎসবের প্রচলন হয়।

যম ও যমুনা

Loading videos...

পুরাণ কথা অনুযায়ী, এক বার যমুনা নদী যমরাজকে রাখি পরিয়েছিলেন। তাতে খুশি হয়েছিলেন যমরাজ। তিনি যমুনা নদীকে অমরত্বের আশীর্বাদ দেন। তার পর থেকেই এটাই প্রচলিত বিশ্বাস যে, যদি কোনো বোন বা দিদি ভাই বা দাদার হাতে রাখি বাঁধে তা হলে সে অমরত্ব প্রাপ্ত হবে।

Continue Reading

উৎসব

শিখে নিন এই দু’ রকমের রাখি বানানোর পদ্ধতি

Published

on

rakhi

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দু’ দিন পরেই রাখিপূর্ণিমা। কিন্তু পরিস্থিতি অনুকূল নয় যে পাঁচটা দোকান ঘুরে পছন্দের রাখিটি সংগ্রহ করবেন। তা হলে উপায়? উপায় একটা আছে। রাখি যদি নিজের হাতে বানিয়ে পরানো যায়, তা হলে? একটা অন্য রকম ভালো লাগার অনুভূতি ভরে যায় যিনি পরাচ্ছেন আর যিনি পরছেন দু’ জনের মনেই। কি তা-ই না? তা ছাড়া এখন ডু ইট ইয়োরসেলফের যুগ। তাই বাড়িতেই নিজে হাতে বানিয়ে ফেলুন রাখি। দু’ রকম রাখি বানানোর পদ্ধতি নিচে বলা হল।

উলের রাখি

তার জন্য লাগবে পছন্দের রঙের উলগোলা। নানা রঙের বানাতে হলে একাধিক রঙের উল ব্যবহার করতে হবে।

(১) প্রথমে বাঁ হাতের চারটি আঙুল এক সঙ্গে করে উলের মুখটি নিয়ে আঙুলের মধ্যে বেশ খানিকটা পেঁচিয়ে নিতে হবে।

Loading videos...

(২) তার পর উলটি কাঁচি দিয়ে কেটে গোলা থেকে আলাদা করতে হবে।

(৩) এ বার হাত থেকে উল ওই অবস্থায় রেখেই খুলে ফেল আনতে হবে।

(৪) সেই উল এক টুকরো ছোটো উল দিয়ে ঠিক মাঝ বরাবর বেঁধে নিতে হবে।

(৫) এ বার উলের চার দিকটা কাঁচি দিয়ে কেটে গোল আকার দিতে হবে।

(৬) এই ভাবে দুই থেকে তিনটি রঙের উল নিয়ে ছোটো গোল ফুলের মতো করে নিতে হবে। তবে নজর রাখতে হবে সব ক’টি যেন এক মাপের না হয়। কোনোটা ছোটো কোনোটা বড়ো বানাতে হবে।

(৭) এর পর বড়ো মাপের উলের গোল ফুলগুলি আঠা দিয়ে পর পর বসিয়ে নিতে হবে।

(৮) এর পর হাতে বাঁধার মতো মাপ করে একটি উলের টুকরো নিয়ে এই উলের ফুলটির নীচে আঠা দিয়ে বসিয়ে দিতে হবে। তার জন্য ব্যবহার করতে হবে একটি ছোটো কাগজের টুকরো। ফুলটির পেছনে উলের টুকরোটি মাঝ বরাবর বসিয়ে আঠা দিয়ে তার ওপর কাগজের টুকরোটি সাঁটিয়ে দিতে হবে।

(৯) এ বার ফুলটি উলটে নিয়ে সোজা পিঠে কিছু নকশা করা যেতে পারে। তার জন্য বাজারচলতি পুঁতি বা রংবেরঙের স্টোন ব্যবহার করা যেতে পারে। এই সবই পছন্দমতো ব্যবহার করা যাবে। সবটাই আঠা দিয়ে ফুলটির ওপর আটকাতে হবে। ব্যাস তৈরি উলের রাখি।

সুতোর রাখি

শিফন সুতোর রাখি

পদ্ধতি একই। খালি উলের বদলে ব্যবহার করতে হবে নানান রঙের শিফন সুতো।

(১) বেঁধে নেওয়ার পর ছোটো ব্রাশ দিয়ে ফুলটিকে ভালো করে আছড়ে নিতে হবে।

(২) এর পর চার দিকটা সমান ভাবে গোল করে কেটে নিতে হবে। পেছনে একটি রঙিন রিবন ব্যবহার করা যায়। তা কাগজের মাধ্যমে আঠা দিয়েই আটকাতে হবে।

(৩) এর পর সাজানোর পালা। সাজানোর জন্য বাজারে নানান রকমের পুঁতি ও স্টোন বা জরি পাওয়া যায়। সেগুলিকে আঠার মাধ্যমে রাখির ওপর বসিয়ে সুন্দর করে সাজিয়ে নেওয়া যায়। তা হলেই তৈরি শিখন সুতোর রাখি।

Continue Reading
Advertisement
Advertisement
বিদেশ3 hours ago

আশা, ঐক্য আর আলোর নতুন কাহিনি লিখবে আমেরিকা, শপথ নিয়ে বললেন জো বাইডেন

ফুটবল5 hours ago

এগিয়ে থেকেও কেরলের কাছে ২-১ গোলে হারল বেঙ্গালুরু

রাজ্য8 hours ago

দৈনিক সংক্রমণের হার সামান্য বাড়লেও রাজ্যে দৈনিক মৃত্যু মে’র পর সর্বনিম্ন

দেশ9 hours ago

২০১৮ সালের আধার রায় পুনর্বিবেচনার আরজি খারিজ সুপ্রিম কোর্টে

রাজ্য9 hours ago

তিন দিনের সফরে রাজ্য এল নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ

রাজ্য10 hours ago

তৃণমূলেও ‘কাজ করতে’ পারলেন না শান্তিপুরের ‘কংগ্রেস’ বিধায়ক অরিন্দম ভট্টাচার্য, এ বার গেলেন বিজেপিতে

ক্রিকেট11 hours ago

নির্বাসন কাটিয়ে ১৬ মাস পর আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে ফিরেই ‘ম্যান অব দ্য ম্যাচ’ শাকিব আল হাসান

বিনোদন11 hours ago

‘তাণ্ডব’ তদন্তে মুম্বই পৌঁছালো উত্তরপ্রদেশ পুলিশ

election commission of india
রাজ্য2 days ago

বুধবার রাজ্যে আসছে নির্বাচন কমিশনের ফুল বেঞ্চ

রাজ্য3 days ago

দক্ষিণবঙ্গে দু’ দিনের জন্য তাপমাত্রা বাড়লেও ফের ফিরবে শীত, উত্তরের পাহাড়ে তুষারপাতের সম্ভাবনা

দেশ3 days ago

মহারাষ্ট্র-কেরলে সংক্রমিত ৮০৮৬ বাকি দেশে মাত্র ৫০৭২, ২৩ মে’র পর সব থেকে কম দৈনিক মৃত্যু ভারতে

দেশ3 days ago

মাত্র ১৮ শতাংশ ভারতীয় হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহার চালিয়ে যেতে পারেন, ৩৬ শতাংশ কমিয়ে দেবেন ব্যবহার: সমীক্ষা

শরীরস্বাস্থ্য3 days ago

হার্ট অ্যাটাকের পূর্ব লক্ষণগুলি জেনে নিন

দেশ3 days ago

শনিবার নিয়েছিলেন টিকা, রবিবার উত্তরপ্রদেশে মৃত্যু স্বাস্থ্যকর্মীর

antonio lopez habas
ফুটবল3 days ago

জিততে না পারলেও হতাশ নন আন্তোনিও লোপেজ আবাস

কলকাতা3 days ago

আজ থেকে আর প্রয়োজন নেই ই–পাসের, খুলছে বিভিন্ন মেট্রো স্টেশনের একাধিক গেটও

কেনাকাটা

কেনাকাটা19 hours ago

৫০% পর্যন্ত ছাড় রয়েছে এই প্যান্ট্রি আইটেমগুলিতে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: দৈনন্দিন জীবনের নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসগুলির মধ্যে বেশ কিছু এখন পাওয়া যাচ্ছে প্রায় ৫০% বা তার বেশি ছাড়ে। তার মধ্যে...

কেনাকাটা3 days ago

ঘরের জন্য কয়েকটি খুবই প্রয়োজনীয় সামগ্রী

খবরঅনলাইন ডেস্ক: নিত্যদিনের প্রয়োজনীয় ও সুবিধাজনক বেশ কয়েকটি সামগ্রীর খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদনটি লেখার সময় যে দাম ছিল তা-ই...

কেনাকাটা1 week ago

৯৯ টাকার মধ্যে ব্র্যান্ডেড মেকআপের সামগ্রী

খবর অনলাইন ডেস্ক : ব্র্যান্ডেড সামগ্রী যদি নাগালের মধ্যে এসে যায় তা হলে তো কোনো কথাই নেই। তেমনই বেশ কিছু...

কেনাকাটা2 weeks ago

কয়েকটি ফোল্ডিং আইটেম খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি সঙ্গে থাকলে অনেক সুবিধে হত বলে মনে হয়, কিন্তু সব সময় তা পাওয়া...

কেনাকাটা2 weeks ago

রান্নাঘরের কাজ এগুলি সহজ করে দেবেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের কাজ অনেক বেশি সহজ করে দিতে পারে যে সমস্ত জিনিস, তারই কয়েকটির খোঁজ রইল অ্যামাজন থেকে। প্রতিবেদন...

কেনাকাটা2 weeks ago

ম্যাক্সিড্রেসের নতুন কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: সুন্দর ম্যাক্সিড্রেসের চাহিদা এখন তুঙ্গে। সামনেই কোনো আনন্দ অনুষ্ঠানের নিমন্ত্রণ থাকলে ম্যাক্সি পরতে পারেন। বাছাই করা কয়েকটি ড্রেসের...

কেনাকাটা2 weeks ago

রকমারি ডিজাইনের ৯টি পুঁটলি ব্যাগের কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুমে নিমন্ত্রণে যেতে সাজের সঙ্গে মিলিয়ে ব্যাগ নেওয়ার চল রয়েছে। অনেকেই ডিজাইনার ব্যাগ পছন্দ করেন। তেমনই কয়েকটি...

কেনাকাটা2 weeks ago

কস্টিউম জুয়েলারির দারুণ কালেকশন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: বিয়ের মরশুম আসছে। নিমন্ত্রণবাড়ি তো লেগেই থাকে। সেখানে আজকাল সোনার গয়নার থেকে কস্টিউম বা জাঙ্ক জুয়েলারি পরে যাওয়ার...

কেনাকাটা3 weeks ago

রুম হিটারের কালেকশন, ৬৫০ থেকে শুরু

খবরঅনলাইন ডেস্ক: ভালোই শীত চলছে। এই সময় রুম হিটারের প্রয়োজনীয়তা খুবই। তা সে ঘরের জন্যই হোক বা অফিস, বা কোথাও...

কেনাকাটা3 weeks ago

চোখের যত্ন নিতে কিনুন এগুলি, খুবই কাজের

খবরঅনলাইন ডেস্ক: অনেকেই আছেন সারা দিনের ব্যস্ততার মাঝে যদিও বা পা, হাত বা মুখের টুকটাক যত্ন নেন, কিন্তু চোখের বিশেষ...

নজরে