মোহিনী চৌধুরীকে খুঁজে পাওয়ার এক সহজ পথ ‘মোহিনী চৌধুরী ১০১ গানে গানে’

0
মোহিনী চৌধুরী।

পাপিয়া মিত্র

বছর ঘুরে যাওয়া অতিমারির আবহে এক অনাড়ম্বর পরিবেশের মধ‍্যেই প্রকাশ পেল ‘মোহিনী চৌধুরী ১০১ গানে গানে’ বইটি। ড. ঋতুপর্ণা সেন ও মোহিনী চৌধুরীর পৌত্র ড. উৎসব চৌধুরীর সংকলন ও সম্পাদনায় প্রকাশিত বইটির ভূমিকা লিখেছেন সুরকার শিল্পী অভিজিৎ বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়। পাশাপাশি কবি সম্পর্কে লিখেছেন সবিতাব্রত দত্ত, শক্তিপদ রাজগুরু, সুমন চট্টোপাধ‍্যায়, শুভেন্দু মাইতি ও কল‍্যাণ সেনবরাট।

কবি মোহিনী চৌধুরী সম্পর্কে অনেক অজানা তথ্য সন্নিবেশিত করা হয়েছে এই বইয়ে। কবির অসংখ্য কবিতায় সুর দিয়েছেন বহু বিখ্যাত সুরকার আর কণ্ঠ দিয়েছেন আটত্রিশ জন শিল্পী। এমনটি জানা যায় বইটি থেকে।

চল্লিশের দশকে তাঁর কবিতা থেকে গান হয়ে সংগীতের আকাশে জায়গা করে নিল ‘পৃথিবী আমারে চায়, রেখো না বেঁধে আমায়/খুলে দাও প্রিয়া, খুলে দাও বাহুডোর’। কণ্ঠ দিলেন পড়শিবন্ধু শিল্পী সত‍্য চৌধুরী। সুর দিলেন কমল দাশগুপ্ত। আধুনিক গানের মধ্যে দিয়ে দেশমাতৃকাবোধের এই ভাষা মানুষের মনকে দুলিয়ে দিয়েছিল। স্বদেশিসংগীতে এই প্রথম প্রবেশ করল নারী। জন্ম নিল ‘আজ কাশ্মীর হতে কন‍্যাকুমারী, ইম্ফল হতে সিন্ধু’, ‘মুক্তির মন্দির সোপানতলে’, ‘জেগে আছি একা, জেগে আছি কারাগারে’, ‘আমি দুরন্ত বৈশাখী ঝড়, তুমি যে বহ্নিশিখা’ – এই সমাজচেতনা, এই স্বদেশচেতনা যে আধুনিক গানের বিষয় হতে পারে তা প্রথম দেখিয়ে দিলেন কবি মোহিনী চৌধুরী‌

রবীন্দ্রনাথ, দ্বিজেন্দ্রলাল, অতুলপ্রসাদ, রজনীকান্ত, নজরুল দেশজ গান লিখেছেন ঠিকই, কিন্তু ব‍্যক্তিপ্রেম আর দেশজপ্রেমের যে মিশ্রণ মোহিনী চৌধুরী করে দেখিয়েছেন তার জন্য কবিকে কুর্নিশ জানিয়েছেন শিল্পী অভিজিৎ বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়। পরাধীন ভারতে কবি লিখেছেন ‘তুমি কি প্রিয়া, রয়েছ জাগিয়া শূন‍্য শয়নতলে?/ সারা পৃথিবীর বেদনা ঝরিছে তোমার নয়ন জলে/পরাধীন দেশে প্রেম চির অভিশপ্ত/মুক্তির পথে কত বাধা কত রক্ত’! গল্পের মতো এই লাইনগুলো পরাধীন ভারতে লেখা। বর্তমান সময়ের আর্থসামাজিক বৈষম্য তিনি সেই সময়েই অনুধাবন করেছিলেন।

মোহিনী চৌধুরীর অসংখ্য গান থেকে বইয়ের জন্য বেছে নেওয়া হয়েছে ১০১টি গান। আর সেই গানগুলিকে পৃথিবী, প্রিয়া, ভক্তি ও ছড়া পর্যায়ে ভাগ করা হয়েছে। তাঁর কবিতায় সুর দিয়েছেন শৈলেশ দত্তগুপ্ত, কৃষ্ণচন্দ্র দে, শচীন দেববর্মণ, গোপেন মল্লিক, রতু মুখোপাধ‍্যায়, গিরিন চক্রবর্তী, সুবল দাশগুপ্ত, সুধীরলাল চক্রবর্তী, চিত্ত রায়, দুর্গা সেন, হেমন্ত মুখোপাধ‍্যায়, কালিপদ সেন, সুকৃতি সেন, সন্তোষ মুখোপাধ‍্যায়-সহ আরও অনেকে। কণ্ঠ দিয়েছেন কৃষ্ণচন্দ্র দে, যূথিকা রায়, গীতা দত্ত, মান্না দে, পূর্ণিমা রায়, প্রতিমা বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়, গৌরীকেদার ভট্টাচার্য, ইলা বসু, জগন্ময় মিত্র, ফিরোজা বেগম, সন্ধ্যা মুখোপাধ‍্যায়, প্রহ্লাদ ব্রহ্মচারী, সন্তোষ সেনগুপ্ত, বীণা চৌধুরী, পিন্টু ভট্টাচার্য-সহ বহু শিল্পী।

ছোটোদের গানও বাদ যায়নি। সংকলনে রয়েছে অভিজিৎ বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়ের সুরে মোহিনী চৌধুরীর দু’টি গান। তাতে কণ্ঠ দিয়েছেন জপমালা ঘোষ – ‘কী বলেছো কী বলেছো কী করেছো তোমরা?/ আমার গৌরী মায়ের মুখটি কেন গোমড়া?’, ‘ঝাঁই কুড় কুড় ঝাঁই নানা/কাঁসি বাজে কাঁই নানা’।

কবি মোহিনী চৌধুরীর জন্ম ১৯২০-এর ৫ সেপ্টেম্বর, বাংলাদেশের গোপালগঞ্জ জেলার কোটালীপাড়ায়। প্রাথমিক শিক্ষা গ্রামের পাঠশালায়। স্বাধীনতার প্রায় দু’ দশক আগে কলকাতায় আসা ও শিক্ষালাভ। কলকাতা বিশ্ববিদ‍্যালয়ে প্রবেশিকা পরীক্ষায় ১৯তম আসন দখল করে মাসিক বৃত্তি লাভ করেন। অর্থনৈতিক টানাপোড়েনে কর্মসূত্রে কলকাতা জিপিওতে যুক্ত হন। ১৭ বছর পরে কলকাতা বিশ্ববিদ‍্যালয় থেকে স্নাতক হন।

কর্মজীবনে কখনও বিজ্ঞানী ডঃ মেঘনাদ সাহার (তদানীন্তন লোকসভার সদস্য) সংসদীয় সচিব, আবার কখনও শিল্পপতি ডিএন ভট্টাচার্যের একান্ত সচিবের দায়িত্ব পালন করেছেন।

তাঁর রচিত গানে প্রথম রেকর্ড প্রকাশিত হয় গীতা দত্ত, রামকুমার চট্টোপাধ‍্যায়, শ‍্যামল মিত্র, তরুণ বন্দ‍্যোপাধ‍্যায়-সহ আরও অনেকের।

মোহিনী চৌধুরীর অনেক গানই আজ হারিয়ে যেতে বসেছে, যদিও ইউটিউব লিঙ্ক-এ mohini choudhury সার্চ করলে তাঁর বেশ কিছু গান শুনতে পাওয়া যায়। তবে ‘মোহিনী চৌধুরী ১০১ গানে গানে’ শীর্ষক যে বই প্রকাশিত হল তা অভিনবত্বের দাবি রাখে।

এই বইয়ে মোহিনী চৌধুরীর যে সব গান সংকলিত হয়েছে, তার বেশির ভাগই আজ আমরা ভুলে যেতে বসেছি। সেই সব প্রায়-বিস্মৃত গান আবার জনসমক্ষে হাজির করা হয়েছে। আর গানের ক্ষেত্রে সুরকার ও শিল্পীর নাম উল্লিখিত হয়েছে। বইটির অভিনবত্ব এখানেই। প্রায়-বিলুপ্ত গানগুলি সংকলিত করে পাঠক তথা সংগীতবোদ্ধাদের প্রতি তাঁদের দায়িত্ব পালন করেছেন সংকলক ও সম্পাদক। মোহিনী চৌধুরীকে খুঁজে পাওয়ার এক সহজ পথ এই বইটি। এ কারণে তাঁদের অসংখ্য ধন্যবাদ। এ ব্যাপারে সমগ্র উদ্যোগ মোহিনী চৌধুরীর মধ‍্যম পুত্র দিগ্‌বিজয় চৌধুরী ও তাঁর পরিবারের।

বই: মোহিনী চৌধুরী ১০১ গানে গানে

সংকলন ও সম্পাদনা: ড. ঋতুপর্ণা সেন ও উৎসব চৌধুরী

প্রচ্ছদ: সমীরণ মান্না

প্রকাশক: আশীর্বাদ চৌধুরী, কবি মোহিনী চৌধুরীর বাসভবন, চৌধুরী লজ. পি- ১৯২ ইউনিক পার্ক, বেহালা, কলকাতা ৭০০০৩৪।

মূল্য: ২৫০ টাকা

আরও পড়ুন: পুস্তক পর্যালোচনা: ভারতের বর্ণময় মেলা-পার্বণের পরিচয় করাবে ‘ইন্ডিয়া ইন সেলিব্রেশন’

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন