Connect with us

নাটক

বাঁকুড়ার আকুই গ্রামে অনুষ্ঠিত হল তিনদিনব্যাপী নাট্যোৎসব

Published

on

ইন্দ্রাণী সেন,বাঁকুড়া: তিনদিনব্যাপী আঠারোতম নাট্যোৎসবের সমাপ্তি হল বাঁকুড়ার ইন্দাসের আকুই গ্রামে। শুরু হয়েছিল শুক্রবার, শেষ হল রবিবার।

শুক্রবার স্থানীয় হাইস্কুল মাঠ-সংলগ্ন প্রয়াত হরিসাধন ঘোষাল ও সুনীতিদেবী স্মৃতিমঞ্চে নাট্যোৎসবের উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট নাট্যব্যক্তিত্ব কৌশিক চট্টোপাধ্যায়। নাট্যমঞ্চটি উৎসর্গ করা হয়েছিল আকুই সংস্কৃতি সমিতির সদ্যপ্রয়াত সদস্য সুনীল ভট্টাচার্যের নামে। নাট্যোৎসবের প্রথম দিনে তাঁকে স্মরণ করা হয়।

প্রদীপ প্রজ্জ্বলন করছেন সমিতির সভাপতি রমাপ্রসাদ সেন।

২৮ ফ্রেব্রুয়ারি থেকে ১ মার্চ পর্যন্ত তিন দিনে মোট পাঁচটি নাটক মঞ্চস্থ হওয়ার পাশাপাশি ব্লক, জেলা ও রাজ্যে সংশ্লিষ্ট সমিতির কৃতী শিল্পীদের সন্মাননা প্রদান করা হয়। উপস্থিত বিশিষ্ট জনদের সমিতির পক্ষ থেকে স্মারক সন্মাননা প্রদান করা হয়।

সংস্থার সম্পাদক তুহিন দলুই জানান, নাট্যোৎসবের প্রথম দিনে নদিয়ার শান্তিপুর সংস্কৃতির ‘রক্ত উপাখ্যান’, দ্বিতীয় দিনে আকুই সংস্কৃতি সমিতির ‘বারাব্বাস’, উত্তর চব্বিশ পরগনা ইচ্ছাপুর আলেয়ার ‘৬:১’ এবং তৃতীয় তথা শেষ দিনে আকুই সংস্কৃতি সমিতির ‘অমল তিয়াস’ ও বীরভূম আননের ‘মহাজ্ঞানী’ নাটক মঞ্চস্থ হয়। নাটকের পাশাপাশি তিন দিনই বিভিন্ন সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয় এবং নাটকবিষয়ক আলোচনাসভাও বসে।

উল্লেখ্য, ইন্দাস এলাকার সুস্থ সাংস্কৃতিক বিকাশে দীর্ঘদিন ধরে মুখ্য ভূমিকা পালন করে চলেছে আকুই সংস্কৃতি সমিতি। রাজ্যে ছাত্র-যুব উৎসবে জেলা স্তরে নাটক প্রতিযোগিতায় সেরার সেরা সন্মান এদের ঝুলিতে। শ্রেষ্ঠ নির্দেশনা, অভিনেতা ও অভিনেত্রী এবং সেরা শিশুশিল্পীর সম্মান অর্জন করেছেন এই সমিতির সদস্যরা। প্রত্যন্ত গ্রামাঞ্চলে থেকেও এক দশকেরও বেশি সময় ধরে নাট্যোৎসব চালিয়ে এসে এই সমিতি রাজ্যে স্তরে বিশেষ ভাবে প্রশংসিত ও সমাদৃত।

আরও পড়ুন: প্রভাস এবং দীপিকাকে জুটি বাঁধতে দেখা যাবে রুপালি পর্দায়

সংস্থার সভাপতি রমাপ্রসাদ সেন বলেন, “এই বছর আমরা আমাদের অত্যন্ত প্রিয় বিশিষ্ট নট ও নাট্যকার সুনীল ভট্টাচার্যকে হারিয়েছি। এক প্রতিকূল পরিবেশে সমিতির সদস্যদের ঐকান্তিক প্রচেষ্টায় নাট্যোৎসব সম্পন্ন হল।

নাটক

‘রথের রশি’ ও ‘ভারত এক খোঁজ’ দুটি অঙ্গন নাটক বিচ্ছেদের প্রচেষ্টায় জল ঢেলে দেয়

বিজ্ঞান আবিষ্কারের ধারা চলতে থাকে – প্রয়োজন ও সত্যের উৎস সন্ধানের মানসিক খিদে থেকে। সেখানে গবেষণার সময় মানুষ থাকার প্রয়োজন হয় না। কিন্তু মানুষ তার ফলভোগ করে।

Published

on

ছোটন দত্ত গুপ্ত

বিজ্ঞান আবিষ্কারের ধারা চলতে থাকে – প্রয়োজন ও সত্যের উৎস সন্ধানের মানসিক খিদে থেকে। সেখানে গবেষণার সময় মানুষ থাকার প্রয়োজন হয় না। কিন্তু মানুষ তার ফলভোগ করে। সেখানে মানুষ আবিষ্কারের মননের চর্চার সাথে একাত্ম হয় না। কিন্তু শিল্পচর্চার মূল ভিত্তি হল সমাজের মানোন্নয়ন, সুস্থ সমাজ ও মানুষের মধ্যে সম্পর্কের শিকড় একাত্ম করে আগামী সুন্দর পৃথিবীর দিকে এগিয়ে যাওয়া।

নাটক তারই শাখা হয়ে, মানুষের কাছে যাবার শক্তিশালী মাধ্যম হয়। মানুষের কাছে কী নিয়ে যাবো? কী ভাবে যাবো? তা ব্যক্তি মানুষ বা দলের ওপর নির্ভর করে।
প্লেটোর ছাত্র অ্যারিস্টটল পছন্দ করতেন অনুকারী(Mimetic)নাটক। নীতিমূলক(Didactic) নাটক আবার প্লেটোর পছন্দ। নীতিমূলক নাটক এসকাইলাসের ‘Euomenides’ পেটের ভাইস – এর ‘Vietnam –Diskurs’ গোটা পৃথিবীর থিয়েটারের ইতিহাসে এক গুরুত্বপূর্ণ স্থান দখল করে রয়েছে।
দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধ পূর্ববর্তী সময় জার্মানির হিটলার শাসনের ভয়াবহ পরিস্থিতিতে ব্রেখট আরো বেশি করে দর্শকের সঙ্গে সংযোগের প্রয়োজন অনুভব করলেন। প্রসেনিয়াম মঞ্চ থেকেই নাটক থামিয়ে- দর্শকদের নাট্যভাবনার সঙ্গে যুক্ত হতে বলেছেন। বাস্তববাদী এই নাট্য প্রযোজকদের তাগিদেই তৈরী হল ‘ফোর্থ ওয়াল থিয়েটার’। জনগণকে বাদ দিয়ে থিয়েটার হয় না।

তাই, আজকের ভারতবর্ষে এই সময় খুব জরুরি হয়ে পড়েছে অঙ্গন নাটক, পথ নাটক, অন্তরঙ্গ থিয়েটার, সাইকো নাটক (অভিনেতা সাইকেলে করে কয়লার শ্রমিকের বাড়ি গিয়ে নাটক করে আসেন) । যা মানুষে মানুষে সম্পর্ক তৈরি করবে। যেখানে অভিনেতা ও দর্শকদের মধ্যে দেওয়াল থাকবে না। একাত্ম হয়ে মিলেমিশে একাকার হবে। ‘সাহিত্যিকা’(শান্তিনিকেতন) সংস্থার ‘রথের রশি’ ও ‘ভারত এক খোঁজ’ দুটি অঙ্গন নাটকের বিষয়, আঙ্গিক ও আভিনয়; এই অস্থির সময়ে ভরসা ও সাহস দেয়। বিচ্ছেদের প্রচেষ্টায় জল ঢেলে দেয়। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের ‘রথের রশি’ ঘরোয়া পরিবেশে অঙ্গন আঙ্গিকে একক অভিনয় ও পরিচালনা করেন দীপ্র মজুমদার। যা দেখার মতো। রথের রশি নাটকের বিভিন্ন চরিত্র দীপ্র যেভাবে রপ্ত ও প্রয়োগ করেছেন তা শেখার মতো। প্লেটো বলেছেন, অভিনেতা নিজের দেহ ত্যাগ করে অন্যের দেহে প্রবেশ করে। অন্যব্যক্তির ব্যক্তিত্ব লাভ করে। দীপ্র একই নাটকে প্লেটো’র মন্তব্য বাস্তবায়িত করেছে। সত্যি তো মহাকালের রশি কেউ টানছে না। যে বন্ধনে টানবে তা আজ বিভ্রান্ত করে দিচ্ছে আমাদের ব্যবস্থা, এই সময়। মহাকাল তো থমকে।

‘রথের রশি’ নাটকে বিভিন্ন দীপ্র মজুমদার

‘ভারত এক খোঁজ’ নাটক আরো সহজ সরল উপস্থাপনা। বিষয় তো ভীষণ প্রাসঙ্গিক ও জ্বলন্ত । কবি জয়দেব বসুর কবিতা অবলম্বনে এই নাটক। যা বর্তমান ভারতবর্ষের আয়না। যে রাষ্ট্র খেতে দেয় না সে ছলে-বলে-কৌশলে ধর্মের নামে বিভেদ ঘটায়, হত্যা করে নিজের সিংহাসন মজবুত করার জন্য। যৌনপল্লীর বেড়ে ওঠা একজন মানুষ সে জন্মভূমির খোঁজে যায়। যার মধ্যে দিয়ে আমরা বাস্তবকে সামনে দেখতে পাই। কী ভাবে বিভেদের মদতদাতা রাষ্ট্র মানুষে মানুষে হিংসা বাঁধায়। ‘ভারত এক খোঁজ’ নাটকে মূল চরিত্রে সৌমেন সেনগুপ্তকেও আমি প্লেটোর বক্তব্যের বাস্তব রূপ বলব। সৌমেনের গানও বেশ। পাঠকের অতিরঞ্জিত মনে হতে পারে কিন্তু জানেন তো একটা দল মানসিকভাবে চর্চা করলে প্রত্যেক সদস্যই এই কাজটি করতে পারেন। কমিউন হলেই তা সম্ভব। এরকম বহু অজানা নাটকের দল আছে যাদের মধ্যে এরকম পারফর্মার পাবেন। তাঁদের খুঁজতে হবে। ‘ভারত এক খোঁজ’ নাটকে সৌমেন ছাড়াও আরো চারজন অভিনেতা-অভিনেত্রীরা যে অভিনয় করেছেন তারাও কিন্তু সমান দক্ষ।

দুটো প্রযোজনার- বিষয়ক নির্বাচন, মিউজিক, পোশাক, গানের ব্যবহার ও অভিনয়ে পরিমিতি বোধ আছে পরিচালকের। ‘রথের রশি’র মিউজিকে কোথাও খামতি মনে হলেও ‘ভারত এক খোঁজ’ এ ঠিকই আছে। তবে ‘রথের রশি’ নাটকে রাবীন্দ্রিক ফর্মে নৃত্য ব্যবহার, কিছুটা হলেও নাট্য-টোনের বলিষ্ঠতা হারিয়েছে। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের লেখা বলেই এই নৃত্যফর্ম ব্যবহার করতেই হবে, শিল্পে এরকম বাধ্য-বাধকতা ভাবনায় থাকলে তা মহাকালের রথের চাকার গতি শ্লথ করে।

Continue Reading

নাটক

নাবালিকা বিবাহ-বিরোধী নাটক ‘রাধারানি’, ‘বিদূষক’-এর সার্থক প্রযোজনা

Published

on

A scene from Radharani,

নিজস্ব প্রতিনিধি: নাবালিকাদের বিয়ের ব্যাপারটা কি শুধুই গ্রামের সমস্যা? নাকি, শহর কলকাতারও? মনে হতেই পারে, মহানগরীতে এ সমস্যাটা বোধ হয় তেমন নেই। কিন্তু খাস কলকাতারই একটা স্কুলে কাজ করতে গিয়ে ভিন্ন অভিজ্ঞতা এক নাট্যদলের।

পূর্ব কলকাতা বিদূষক নাট্যমণ্ডলী যখন ঠিক করে যে তারা তাদের এলাকার স্কুলগুলোর ছাত্রছাত্রীদের নিয়ে কাজ করবে, তখন কিন্তু নাবালিকা বিবাহের ব্যাপারটা তাঁদের ভাবনার ধারেকাছেও ছিল না, বলছেন দলের সেক্রেটারি অরূপ খাঁড়া। কিন্তু পূর্ব কলকাতার বেলেঘাটা শান্তি সংঘ বিদ্যায়তনের বালিকা বিভাগে যখন তাঁরা তাঁদের প্রস্তাব নিয়ে গেলেন, সেখান থেকেই উঠে এল নাবালিকা বিবাহের সমস্যাটার কথা। স্কুলের একটু উঁচু ক্লাসের মেয়েদের মধ্যে নাকি পালিয়ে গিয়ে বিয়ে করার প্রবণতা প্রবল। প্রধান কারণ, বাপের বাড়ি দুর্বিষহ। বিয়ের পর বেশির ভাগ মেয়েই পড়াশুনো ছেড়ে দেয়।

নাটক মঞ্চস্থ করার পরে।

তাই নাট্যদলের তরফে প্রস্তাবটা পেয়ে বিষয় বাছতে এক মুহূর্তও সময় নেননি স্কুলের প্রধানশিক্ষিকা সুস্মিতা মণ্ডল। মেয়েদের জীবনের সঙ্গে সম্পৃক্ত বিষয় পেয়ে নাটক লিখতে দেরি করেননি ‘বিদূষক’-এর রাজা বিশ্বাসও। স্কুলের গরমের ছুটির সময়েই লেখা হয়ে যায় নাটক ‘রাধারানি’, যেখানে গানে গানে বলা হচ্ছে ক্লাস টেনের এক মেয়ের গল্প।

শহরের এক খালের ধারে থাকে সেই মেয়ে — রাধারানি, যার প্রেমে পড়ে পাশের পাড়ার শ্যাম। মদ্যপ বাপের অত্যাচারে অতীষ্ঠ হয়ে ঘর ছাড়ে রাধা, পালিয়ে বিয়ে করে শ্যামকে। তার পর? তার পর সেই একই কাহিনি — ‘নতুন করে বলি শোনো, পুরান ঘটনা’; প্রচলিত লোকগানের এই চিরপরিচিত সুরেই চলতে থাকে রাধার গল্প, তার মায়েরই মতো, পরিত্রাণহীন।

মেক আপে ব্যস্ত শিল্পী।

প্রধানশিক্ষিকা সুস্মিতাদেবী বলছেন, নাটক দেখে একটু হলেও যদি সচেতন হয় তাঁর ছাত্রীরা, তা হলেই তাঁদের উদ্যোগ সফল হবে। একই মত অপর দুই শিক্ষিকা সুদক্ষিণা চক্রবর্তী ও তপতী সর্দারের, যাঁরা এই নাটকটি নির্মাণের সহায়তাকারী।

সচেতন তারা অবশ্যই, বলছে শান্তি সংঘ স্কুলের রূপা সর্দার, বর্ণালী দলুই, সায়নী মণ্ডল, প্রিয়াঙ্কা পাণ্ডে, পায়েল সর্দার, অঞ্জলি মণ্ডল, টিনা বেরা, রিনি ঘোষ, যুথিকা গায়েনের মতো মেয়েরা, যারা এই নাটকের কুশীলব। মাস তিনেকের রিহার্সালে তাদের সঙ্গে ছিল দিয়া দাস, প্রিয়া দাস, তনয়া পাণ্ডে, পায়েল বিশ্বাস। এদের অনেকেরই পারফরমেন্স বেশ সম্ভামনাময়, বললেন নাটকের নির্দেশক অরূপ খাঁড়া। নাটকের প্রযোজনায় সহকারী সায়ন্তন মিত্র ও স্বাধীনা চক্রবর্তী এবং প্রচারসজ্জায় নীতীশ সরকার।

ছাত্রীদের অবশ্য বক্তব্য — সবই তো বুঝলাম, কিন্তু বিয়ের বিকল্পটা কী? গরিব ঘরের মেয়েদের জন্য স্বনির্ভরতার উপায়গুলো কী?

আরও পড়ুন: একগুচ্ছ শারদ পত্রিকা প্রকাশের মাধ্যমে শুরু হল বসিরহাট লিটল ম্যাগাজিন ফোরামের পথচলা

প্রশ্নের উত্তরে, স্কুলেরই শরণ নেওয়ার পরামর্শ দিয়ে শেষ হচ্ছে নাবালিকা বিবাহ-বিরোধী নাটক ‘রাধারানি’। মেয়েদের অন্যান্য স্কুলেও বিনামূল্যে নাটকটির শো করার পরিকল্পনা রয়েছে তাদের, জানাচ্ছে বিদূষক নাট্যমণ্ডলী।

Continue Reading

অনুষ্ঠান

ইউটিউবে মুক্তি পেল কাশ্মীরের অস্থিরতা নিয়ে শ্রুতি আলেখ্য ‘নো সলিউশন’

Published

on

nosolution

স্মিতা দাস

যুদ্ধ শূন্য করে দিচ্ছে কত মায়ের কোল। অথচ এই ‘যুদ্ধ’, সে কিন্তু থেমে নেই। বিভিন্ন অজুহাতে চলছেই তার বিজয় উৎসব। কিন্তু যারা যুদ্ধে যাচ্ছে তারা কীসের টানে যুদ্ধে যায়। তারা কি আদৌ যুদ্ধ চায়। কী পায় সে যুদ্ধে গিয়ে? এমনই সব প্রশ্ন অনুরণিত হয়ে চলেছে মুহূর্মুহু যুদ্ধের আবহে। কাশ্মীরের অস্থিরতা সেই প্রশ্ন সেই আকুতিকে আরও বাড়িয়ে দিয়েছে। তেমনই কিছু প্রশ্ন, হারিয়ে যাওয়া ফিরে পাওয়া স্মৃতি, সমাধান খোঁজার আকুলতা এই সব নিয়ে তৈরি একটি শ্রুতি আলেখ্য। নাম ‘নো সলিউশন’।

এমপি বিড়লা তারামণ্ডলে মুক্তি পেল এই শ্রুতি আলেখ্যটি। শ্রুতি আলেখ্যটি পাঠ করেছেন টলিউডের দুই উজ্জ্বল তারকা কমলেশ্বর মুখোপাধ্যায় ও অনন্যা চট্টোপাধ্যায়। ‘নো সলিউশনে’র রচনা ও পরিচালনায় রয়েছেন অময় দেব রায়। শ্রুতি আলেখ্যটিতে রয়েছে বিষয় উপযোগী চারটি গান। গানগুলি গেয়েছেন স্বরলিপি দাশগুপ্ত ও সৈকত মুখোপাধ্যায়।

কী থেকে এমন একটি ভাবনা নিয়ে কাজ করার সিদ্ধান্তে পৌঁছলেন অময়? অময়ের সঙ্গে কথা বলে জানা গিয়েছে, ‘নো সলিউশন’ একটি সীমান্ত পারের গল্প। এর আগে তিনি আরও একটি সীমান্তের গল্প নিয়ে শ্রুতি আলেখ্য করেছিলেন। তার নাম ছিল ‘সি ইউ’। এটি ছিল পূর্বসীমান্তের গল্প। সেই কাজ করার সময়, তা ছাড়া পরের কাজের স্ক্রিপ্ট কী হবে এমন চিন্তাভাবনা যখন চলছে সেই সময়ই দেশজুড়ে ভুয়ো যুদ্ধের আবহ তৈরি হয়। কাশ্মীর সমস্যাটি জিইয়ে ওঠে। এই সমস্যাটি স্বাধীনতার পর বার বার উঠে আসছে। কিন্তু কোনো সমাধান মেলেনি আজও। তাই তখনই এই বিষয়টিকে কেন্দ্র করে কাজ করার কথা মনস্থ করেন।

তিনি বলেন, গল্পে দুইটি চরিত্র রয়েছে, সুভাষদা ও মঞ্জু। এদের মধ্যে পাড়া তুতো বন্ধুত্বের সম্পর্ক ছিল। বিভিন্ন সময় মঞ্জু তার সুভাষদাকে কবিতা শোনাত। এর পর সুভাষ আর্মি জয়েন করে। সিয়াচেন যায়। সেখান থেকে নওসেরায় যায়। যোগাযোগ ছিন্ন হয়ে যায় তাদের মধ্যে। বহুদিন পর মঞ্জুকে ফেসবুকে খুঁজে পায় সুভাষ। তার পর ফোন করে। ফোনে পুরনো স্মৃতি রোমন্থন তো হয়ই, উঠে আসে আরও কিছু বিষয়। সেই কথোপকথনেই প্রশ্ন ও প্রতিপ্রশ্নের মধ্যে দিয়ে কাশ্মীর সমস্যা, বুরহান ওয়ানির কথাও উঠে আসে। কথা হয় এর সমাধান কী? তাই নিয়েও। স্মৃতির গলি বেয়ে আসে উইলফ্রেড ওয়েনের কথাও। এক সময় মঞ্জু তাকে ওয়েনের কবিতাও শোনাত। সেই সূত্র ধরে একটি কবিতা পাঠও আছে। কবিতাটি পাঠ করেছেন অনন্যা চট্টোপাধ্যায়।

অময় বলেন, কমলেশ্বর ও অনন্যা কাজটি করতে শুধু রাজি হন তাই নয়, কাজটি খুব মন দিয়ে দায়িত্ব নিয়ে করেছেনও। ছোটো কাজ হওয়া সত্ত্বেও খুব গুরুত্ব দিয়েছেন সাংঘাতিক রিসার্চ ওয়ার্ক করেছেন দুই জনেই। নির্দেশনার কাজে তাঁদের অনেক অবদান আছে।

অময় বলেন, ছোটো চ্যানেল, কিন্তু কাজটি খুব মন দিয়ে করেছেন সকলে মিলে। তাই তাঁদের লক্ষ্য মিডিয়ার মাধ্যমে অনেক মানুষের কাছে পৌঁছে দেওয়া।

আরও – অমর পাল স্মরণে লোকগানের জমজমাট আসর নবম সহজিয়া উৎসবে

কাজটি প্রায় ২০ মিনিটের। উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে গোটা আলেখ্যটি স্ক্রিনে দেখানো হয়েছিল। অনুষ্ঠানে কমলেশ্বর, অনন্যা ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন প্রখ্যাত চিত্র সমালোচক অধ্যাপক ক্রিটিক সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়। এ দিনের অনুষ্ঠানে সঞ্জয় মুখোপাধ্যায় বলেন, এটি খুবই সাহসী একটি পদক্ষেপ। গোটা দেশজুড়ে যা চলছে তাতে এই ধরনের কাজ হওয়া উচিত ছিল। এটি অত্যন্ত প্রশংসাযোগ্য ও সময়োপযোগী। সকলে যেন এটি শোনেন এবং বিষয়টি নিয়ে সরব হন।

Continue Reading
Advertisement
Uncategorized11 hours ago

সরষের তেল থেকে এলপিজি হয়ে ড্রাইভিং লাইসেন্স, কাল থেকে যে ১০টি নিয়ম বদলে যাচ্ছে

Coronavirus durga puja
দেশ11 hours ago

ওনামেই বিপদ বাড়ল কেরলের, পুজোর আগে শিক্ষা নিতে হবে পশ্চিমবঙ্গকে

Uttar Pradesh Police
দেশ12 hours ago

আটকে রাখা হল পরিবারকে, ঘেঁষতে দেওয়া হল না সংবাদমাধ্যমকে, হাতরাসের তরুণীর শেষকৃত্য করল পুলিশ

corona
দেশ12 hours ago

নতুন আক্রান্তের সংখ্যা কিছুটা বাড়লেও সুস্থ হলেন আরও বেশি মানুষ, সক্রিয় রোগী আরও কমল ভারতে

দেশ12 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৮০৪৭২, সুস্থ ৮৬৪২৮

mamata banerjee and sonia gandhi
রাজ্য12 hours ago

নয়া কৃষি আইন রুখতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে চিঠি কংগ্রেসের

suresh raina
ক্রিকেট13 hours ago

সংঘাত চরমে, ওয়েবসাইট থেকে সুরেশ রায়নার নাম মুছে দিল চেন্নাই সুপারকিংস

Rapes in India
দেশ13 hours ago

দৈনিক ৮৭টি ধর্ষণের ঘটনা ভারতে, চাঞ্চল্যকর তথ্য এনসিআরবির

দেশ12 hours ago

কোভিড আপডেট: নতুন করে আক্রান্ত ৮০৪৭২, সুস্থ ৮৬৪২৮

north bengal rain
রাজ্য2 days ago

অতিবৃষ্টির হাত থেকে অবশেষে রেহাই পেল উত্তরবঙ্গ, আপাতত স্বস্তি

covid peak india
দেশ1 day ago

১৮ সেপ্টেম্বরের পর থেকে সক্রিয় রোগীর গ্রাফ নিম্নমুখী, কোভিডের চূড়া কি অবশেষে পেরোল ভারত?

ganges cruise
কলকাতা2 days ago

মাত্র ৩৯ টাকায় গঙ্গাবক্ষে উপভোগ করুন ‘হেরিটেজ ক্রুজ’

coronavirus
দেশ1 day ago

দেশে নতুন কোভিড-আক্রান্তের সংখ্যা গত ২৮ দিনের মধ্যে সর্বনিম্ন, ব্যাপক পতন মৃত্যুর সংখ্যাতেও

Ration Card and Aadhaar Number
প্রযুক্তি2 days ago

অনলাইনে সত্যিই কি রেশন কার্ডে আধার লিঙ্ক করা যায়?

low pressure west bengal rain
রাজ্য2 days ago

অক্টোবরের দ্বিতীয় সপ্তাহে আসতে পারে নিম্নচাপ, তত দিন বিক্ষিপ্ত বৃষ্টিই ভরসা দক্ষিণবঙ্গের

দেশ2 days ago

হাসিনার জন্মদিনে ভারতের শুভেচ্ছা, মুক্তিযুদ্ধে ভারতের অবদান স্মরণ হাসিনার

কেনাকাটা

কেনাকাটা20 hours ago

পুজো কালেকশনের ৮টি ব্যাগ, দাম ২১৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : এই বছরের পুজো মানে শুধুই পুজো নয়। এ হল নিউ নর্মাল পুজো। অর্থাৎ খালি আনন্দ করলে...

কেনাকাটা2 days ago

পছন্দসই নতুন ধরনের গয়নার কালেকশন, দাম ১৪৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজোর সময় পোশাকের সঙ্গে মানানসই গয়না পরতে কার না মন চায়। তার জন্য নতুন গয়না কেনার...

কেনাকাটা5 days ago

নতুন কালেকশনের ১০টি জুতো, ১৯৯ টাকা থেকে শুরু

খবর অনলাইন ডেস্ক : পুজো এসে গিয়েছে। কেনাকাটি করে ফেলার এটিই সঠিক সময়। সে জামা হোক বা জুতো। তাই দেরি...

কেনাকাটা6 days ago

পুজো কালেকশনে ৬০০ থেকে ১০০০ টাকার মধ্যে চোখ ধাঁধানো ১০টি শাড়ি

খবর অনলাইন ডেস্ক: পুজোর কালেকশনের নতুন ধরনের কিছু শাড়ি যদি নাগালের মধ্যে পাওয়া যায় তা হলে মন্দ হয় না। তাও...

কেনাকাটা1 week ago

মহিলাদের পোশাকের পুজোর ১০টি কালেকশন, দাম ৮০০ টাকার মধ্যে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পুজো তো এসে গেল। অন্যান্য বছরের মতো না হলেও পুজো তো পুজোই। তাই কিছু হলেও তো নতুন...

কেনাকাটা2 weeks ago

সংসারের খুঁটিনাটি সমস্যা থেকে মুক্তি দিতে এই জিনিসগুলির তুলনা নেই

খবরঅনলাইন ডেস্ক : নিজের ও ঘরের প্রয়োজনে এমন অনেক কিছুই থাকে যেগুলি না থাকলে প্রতি দিনের জীবনে বেশ কিছু সমস্যার...

কেনাকাটা2 weeks ago

ঘরের জায়গা বাঁচাতে চান? এই জিনিসগুলি খুবই কাজে লাগবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ঘরের মধ্যে অল্প জায়গায় সব জিনিস অগোছালো হয়ে থাকে। এই নিয়ে বারে বারেই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া লেগে...

কেনাকাটা3 weeks ago

রান্নাঘরের জনপ্রিয় কয়েকটি জরুরি সামগ্রী, আপনার কাছেও আছে তো?

খবরঅনলাইন ডেস্ক: রান্নাঘরের এমন কিছু সামগ্রী আছে যেগুলি থাকলে কাজ করাও যেমন সহজ হয়ে যায়, তেমন সময়ও অনেক কম খরচ...

কেনাকাটা3 weeks ago

ওজন কমাতে ও রোগ প্রতিরোধশক্তি বাড়াতে গ্রিন টি

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ওজন কমাতে, ত্বকের জেল্লা বাড়াতে ও করোনা আবহে যেটি সব থেকে বেশি দরকার সেই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা...

কেনাকাটা3 weeks ago

ইউটিউব চ্যানেল করবেন? এই ৮টি সামগ্রী খুবই কাজের

বহু মানুষকে স্বাবলম্বী করতে ইউটিউব খুব বড়ো একটি প্ল্যাটফর্ম।

নজরে