কালীঘাট সতীপীঠের ৪৫০ বছর আগের বস্ত্রখণ্ড প্রদর্শিত হচ্ছে সাবর্ণদের ইতিহাস উৎসবে

0
সাবর্ণ
ফ্রান্সের ফ্রাঁ ও স্ট্যাম্প

স্মিতা দাস

সাবর্ণ সংগ্রহশালায় পঞ্চদশ আন্তর্জাতিক ইতিহাস উৎসব শুরু হয়ে গেল রবিবার অর্থাৎ  ২ ফেব্রুয়ারি থেকে। সাবর্ণ রায় চৌধুরী পরিবার পরিষদ এই আন্তর্জাতিক ইতিহাস উৎসব আয়োজন করেছে। স্থান বেহালায় বড়িশা বড়ো বাড়ি। চলবে ৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। সময় সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা। এই বছরের প্রদর্শনীর থিম কান্ট্রি ফ্রান্স। ফ্রান্স সরকারের সহযোগিতায় এই গ্যালারি সাজানো হয়েছে – জানালেন পরিবার পরিষদের সম্পাদক দেবর্ষি রায় চৌধুরী।

ফ্রান্সের কলকাতাস্থিত রাষ্ট্রদূত কনসাল জেনারেল ভার্জিনিক অট্রিভাল এই প্রদর্শনীর উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন। এ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন অভিনেতা বিপ্লব চট্টোপাধ্যায়, সাহিত্যিক তপন বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিনেতা নীলাদ্রি লাহিড়ী, বিশ্বরূপ বন্দ্যোপাধ্যায়, অরুণ বন্দ্যোপাধ্যায়, সম্বরণ বন্দ্যোপাধ্যায়, বিশ্বরূপ দে প্রমুখ।

সারদা মায়ের ব্যবহৃত নানান সামগ্রী

বিভিন্ন স্কুলকলেজ থেকে পড়ুয়ারা আসবে বলে আশা করছেন দেবর্ষি। তিনি বলেন, এই বছরের শো কেস থিম হল কালীঘাটের সাড়ে চারশো বছরের ইতিহাস। তাতে প্রদর্শিত হচ্ছে সতীখণ্ড প্রতিষ্ঠার সময়কার সেই প্রাচীন বস্ত্রটি। সঙ্গে প্রদর্শিত হচ্ছে আত্মারাম ঠাকুরের ব্যবহৃত জপের মালা, চন্দন কাঠ। সঙ্গে রয়েছে সারদা মায়ের শাড়ি, হাতে বানানো আমসত্ত্ব-সহ আরও অনেক স্মৃতিচিহ্ন। পাশাপাশি প্রদর্শিত হচ্ছে চারশো বছরের ঘটির সংগ্রহ।

সতীখণ্ডের বস্ত্রটি সম্পর্কে বলতে গিয়ে দেবর্ষি বলেন, ১৫৭০ সালে পদ্মাবতী দেবী মা কালীর দর্শন পান। দেবী কালী বলেন, তাঁর গর্ভে সন্তান আসছে। সেই সন্তানই হলেন লক্ষ্মীকান্ত। এই লক্ষ্মীকান্তের নামেই হল লক্ষ্মীকান্তপুর। তিনি হলেন কলকাতার প্রথম জায়গিরদার। সঙ্গে মা কালী এ-ও বলেন, শক্তিপীঠের যেখানে পদ্মাবতী দেবী স্নান করছেন সেখানে রয়েছে সতীখণ্ড। তা শুনে আত্মারাম ঠাকুর জলে ঝাঁপ দেন ও একটি প্রস্তরখণ্ড উদ্ধার করেন। মনে করা হয় সেটিই হল সতীর ডান পায়ের তিনটি আঙুল। সেই খণ্ডটি প্রতিষ্ঠা করা হয় স্নানযাত্রার দিন। যে বস্ত্রে জড়িয়ে প্রথম এই দিন ওই প্রস্তরখণ্ডটি আনা হয় সেই বস্ত্রখণ্ডটিই এখানে প্রদর্শিত হচ্ছে বলে জানান দেবর্ষি।

সাড়ে চারশ বছর আগে সতীখণ্ডের ওপর দেওয়া প্রথম বস্ত্রখণ্ড

এ দিনের অনুষ্ঠানে বিপ্লব চট্টোপাধ্যায় বলেন, “আমাদের মেরুদণ্ড শক্ত করতে হবে। ইতিহাস ছাড়া সেই মেরুদণ্ড শক্ত হতে পারে না। আমরা কারা, কোথা থেকে এসেছি – এমন বহু প্রশ্ন উঠে আসছে। সেই উত্তর জানতে হলে আমাদের পূর্ব পুরুষদের ইতিহাস জানতে হবে। তাই ইতিহাসচর্চা আরও বেশি করে করা দরকার।”

বিশ্বরূপ দে-ও একই কথা বলেন। তিনি আরও বলেন, সাবর্ণ সংগ্রহশালা যে কাজটা করছে সে রকম ক্রিকেটের ময়দানেও যদি এমন একটি সংগ্রহশালা করা যেত তা হলে খুবই ভালো হত। ইতিহাস সংরক্ষণ করতে আমরা ভুলে যাচ্ছি। ইতিহাস না বাঁচলে কিছুই বাঁচবে না।

ফ্রান্সের রাষ্ট্রদূত বলেন,  কলকাতার সঙ্গে ফ্রান্সের সম্পর্ক বহু বছরের। তিনি খুবই খুশি। বলেন, এই প্রদর্শনীর মাধ্যমে ভারত-ফ্রান্সের সম্পর্কের অজানা বহু তথ্য তুলে ধরা সম্ভব হবে।      

প্রণব রায়ের গ্যালারি

উল্লেখ্য ৪ ফেব্রুয়ারি রয়েছে প্রণব রায় দিবস। এই দিন বৈশাখী রায় চৌধুরী স্কলারশিপ দেওয়া হবে ক্যালকাটা ব্লাইন্ড স্কুলের এক পড়ুয়াকে। প্রণব রায় দিবসের অনুষ্ঠানে থাকবে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানও। সঙ্গে থাকবে কলকাতার ইতিহাসকে কেন্দ্র করে রচিত একটি শ্রুতিনাটকও। সঙ্গে উপরি পাওনা হল তরুণ গোস্বামীর শিসধ্বনিতে হেমন্ত মুখোপাধ্যায় শ্যামল মিত্র মান্না দের গানের উপস্থাপনা।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য, এই বছর শুরু হল হেমন্ত মুখোপাধ্যায়ের শতবর্ষ, মান্না দের শতবর্ষ চলছে।

দেখুন –চোখের মেকআপ বার বার ঘেঁটে যায়? তা ধরে রাখতে ৫টি টিপস

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.