ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণের জন্মতিথি উৎসব পালিত

0
শ্রীরামকৃষ্ণের জন্মতিথিতে শ্রীরামকৃষ্ণ প্রেমবিহারের মন্দির। ছবি: শ্রয়ণ সেন।

নিজস্ব প্রতিনিধি: মঙ্গলবার ছিল ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণ পরমহংসদেবের ১৮৫তম জন্মতিথি। সকাল থেকেই তাঁর জন্মভিটে হুগলির কামারপুকুর, রামকৃষ্ণ মঠ ও মিশনের সদর দফতর বেলুড় মঠ-সহ রাজ্যের বিভিন্ন জায়গায় বিভিন্ন অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ঠাকুরের জন্মতিথি উৎসব পালন করা হয়।

ছবি: রাজীব বসু।

এ দিন নবান্নে শ্রীরামকৃষ্ণের প্রতিকৃতিতে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন রাজ্যের পঞ্চায়েত মন্ত্রী সুব্রত মুখোপাধ্যায়।  

কামারপুকুরে

এ দিন কামারপুকুরে ব্যাপক ভক্ত সমাগম হয়। আরামবাগ মহকুমার পাশাপাশি বাইরের জেলাগুলি থেকেও প্রচুর ভক্ত ঠাকুরের জন্মস্থান দেখতে আসেন। কাকভোরে মঙ্গলারতি দিয়ে উৎসবের শুরু। তার পর মঠচত্বর থেকে মহারাজদের নেতৃত্বে যথারীতি প্রভারফেরি বের হয়। প্রভাতফেরিতে মঠের মহারাজরা ছাড়াও বিভিন্ন স্কুলের ছাত্রছাত্রী ও ভক্তরা এবং বিশিষ্ট ব্যক্তিবর্গ যোগ দেন। বর্ণাঢ্য ওই শোভাযাত্রা দেখতে রাস্তার দু’পাশে ব্যাপক ভিড় হয়। তার পর রীতি মেনে মঠ চত্বরে ভক্তিগীতি, কীর্তন, বাউল গান প্রভৃতি অনুষ্ঠান হয়।

সারা দিন ধরেই নানা অনুষ্ঠান চলে। সন্ধ্যায় বসে ঠাকুরের প্রিয় যাত্রার আসর। এ দিন ঠাকুরের ভোগপ্রসাদ গ্রহণ করতে অগণিত মানুষ ভিড় করেন। মঠসংলগ্ন একটি জায়গায় সর্বসাধারণের জন্য প্রসাদ বিতরণের ব্যবস্থা করা হয়।

বেলুড় মঠে

পূজার্চনা থেকে শুরু করে সানাই বাদন, সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান, ধর্মসভার মাধ্যমে শ্রীরামকৃষ্ণের ১৮৫তম জন্মতিথি পালিত হল বেলুড় মঠে। মঙ্গলবার ভোর থেকেই মঠ চত্বরে ভিড় করেছিলেন ভক্ত ও দর্শনার্থীরা।

ঠাকুর শ্রীরামকৃষ্ণের জন্মতিথিতে শ্রীরামকৃষ্ণ প্রেমবিহারে যজ্ঞ। ছবি: শ্রয়ণ সেন।

শ্রীরামকৃষ্ণ প্রেমবিহারে

দমদম চিড়িয়া মোড়ের কাছে সমর সরণিতে শ্রীরামকৃষ্ণ প্রেমবিহারের মূল কেন্দ্রে সকাল থেকেই ভক্তকুলের ভিড়। ভোরে মঙ্গলারতির মাধ্যমে শুরু হয় দিন। তার পরে চলেছে পূজার্চনা, যজ্ঞাদি। আশ্রমের আচার্য স্বামী সম্বুদ্ধানন্দের নেতৃত্বে প্রতিষ্ঠানের মহারাজরা পূজার্চনায় যোগ দেন। সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত আশ্রমের ভক্তবৃন্দ প্রসাদ গ্রহণ করেন।

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.