শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে দেশ-বিদেশের লোকগীতির উৎসব ‘সুর জাহান’

0
সুরজাহান
সুরজাহানে আসা দেশ বিদেশের লোকগীতির শিল্পীরা

স্মিতা দাস

শুক্রবার থেকে শুরু হচ্ছে ওয়ার্ল্ড পিস মিউজিক ফেসটিভাল সুর জাহান। বাংলা নাটক ডট কম আয়োজন করছে এই সঙ্গীত উৎসবের । ১০তম বর্ষে পদার্পন করল সুর জাহান। বৃহস্পতিবার ৩০ জানুয়ারি কলকাতার মোহর কুঞ্জে হয়ে গেল তারই প্রাক সূচনা পরিচয় পর্ব। মিট দ্য আর্টিস্ট অনুষ্ঠান।

সুর জাহানের আগের নাম ছিল সুফি সূত্র। ২০২০-র সুর জাহানের এই মিউজিক্যাল সফর শুরু হতে চলেছে ৩১ জানুয়ারি থেকে। এটি একটি অবাণিজ্যিক অনুষ্ঠান। দেশ বিদেশের লোকগীতির একটি বিশ্ব খ্যাত প্ল্যাটফর্ম, বলা ভালো গানের মেলা এই সুর জাহান।

ডেনমার্কের রেডিয়েন্ট আর্কেডিয়া

প্রতি বছরই পাঁচ থেকে ছয়টি দেশের লোকগীতির দল আসে অনুষ্ঠানে। এই বছরও তার অন্যথা নেই। সঙ্গে অবশ্যই থাকে গোটা দেশের এবং এ রাজ্যের লোকগীতির দুই থেকে তিনটি দলও।

রিউইনিয়ন আইল্যান্ডের ডেনিয়েল ওরো

এই বছরে ‘ওয়ার্ল্ড পিস মিউজিক ফেসটিভাল’-এ নিজের নিজের দেশের গান পরিবেশন করতে এসেছে সুইডেনের আলে মোলার, দক্ষিণ কোরিয়ার কোরেয়হ, হাঙ্গেরির ডালিন্ডা, রিউইনিয়ন আইল্যান্ডের ডেনিয়েল ওরো, ডেনমার্কের রেডিয়েন্ট আর্কেডিয়া। এই নিয়ে প্রায় ২৬টিরও বেশি দেশ এই ফেস্টিভালে অংশগ্রহণ করেছে। ভারত থেকে রয়েছে তিনটি দল। রাজস্থানের লাঙ্গাস অব রাজস্থান, পশ্চিমবঙ্গের বাউলস অব বেঙ্গল ও ফোকস অব বেঙ্গল।

পশ্চিমবঙ্গের বাউল

অনুষ্ঠান চলবে ৩১ জানুয়ারি ২০২০ থেকে ২ ফেব্রুয়ারি ২০২০ পর্যন্ত। স্থান কলকাতায় মোহর কুঞ্জ। এই লোকগানের মেলা বা আসরের সময় সন্ধ্যা ছ’টা থেকে নটা।

হাঙ্গেরির ডালিন্ডা

শুধু ফোকসঙ অর্থাৎ লোকগানেই আটকে নেই সুর জাহান। লোক সংস্কৃতি তার মধ্যে হাতের কাজ হোক বা গান বা নাচের ঘরানা, সবই তুলে ধরে এই সুর জাহান। অর্থাৎ বিশ্বের যে কোনো অঞ্চলের আঞ্চলিক সাংস্কৃতিক বৈশিষ্ট্য বা লুপ্তপ্রায় সংস্কৃতিকে তুলে আনা, পুনরুজ্জীবিত করার প্রচেষ্টা। সেই উপলক্ষ্যে সংগীত মেলার সঙ্গে সঙ্গে রয়েছে প্রদর্শনী, ওয়ার্কশপ ইত্যাদির সুব্যবস্থাও। পশ্চিমবঙ্গের প্রায় ৬০ জন এবং রাজস্থানের প্রায় ১০ জন শিল্পীর হাত ধরে গ্রামীণ ঐতিহ্য উঠে আসবে। এই ওয়ার্কশপের ব্যবস্থা করা হয়েছে ১ ও ২ ফেব্রুয়ারি, চলবে সকাল ১১টা থেকে দুপুর ২টো পর্যন্ত। লোক সংস্কৃতির প্রদর্শনী থাকবে ৩১ জানুয়ারি থেকে ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত। সময় দুপুর ৩টে থেকে ৫টা পর্যন্ত। পাশাপাশি রয়েছে হস্তশিল্পের স্টলের আয়োজনও, এ-ও চলবে ৩১ জানুয়ারি থেকে ২ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত প্রতিদিন। সময় বেলা ১১টা থেকে রাত ৯টা।

সুইডেনের আলে মোলার

এখানেই শেষ নয়, পশ্চিমবঙ্গের গানের সফর শেষ করে এই ফেস্টিভ্যাল পৌঁছে যাবে গোয়া ও জয়পুরে। গোয়ায় অনুষ্ঠান হবে ৫ থেকে ৭ ফেব্রুয়ারি। জয়পুরে ৮ থেকে ১০ ফেব্রুয়ারি।  

দেখুন – সরস্বতী পুজোর আবেশ নব প্রজন্মকে পাইয়ে দিতে বাগুইআটি নৃত‍্যাঙ্গনের সাংস্কৃতিক সন্ধ্যা

------------------------------------------------
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।
সুস্থ, নিরপেক্ষ সাংবাদিকতার স্বার্থে খবর অনলাইনের পাশে থাকুন।সাবস্ক্রাইব করুন।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.