স্বাধীনতার সময়ে দেশের অবস্থা ঠিক কেমন ছিল?

0
india
ভারত

ওয়েবডেস্ক:  ১৯৪৭ সালের স্বাধীনতার সময় এমন অনেক কিছুই ছিল যা বর্তমানের কাছে কল্পনাতীত। আবার অনেক কিছুই আছে যা এখন হারিয়ে গিয়েছে, বা অপ্রচলিত হয়ে গিয়েছে। এমন অনেক কিছু আছে যাদের সম্পর্কে কথা হলেই প্রবীন ব্যক্তিরা তাঁদের সময়ের কথা তুলে ধরেন। কারণ তাঁরা স্বাধীনতার সময়টিকেও ভালো করে দেখেছেন আবার আজকালকার দিনেও সেই সমস্ত কিছু দেখছেন। ফলে সময়ের সঙ্গে সঙ্গে পারিপার্শ্বিক সমস্ত কিছুর পার্থক্য খুব ভালো করে উপলব্ধি করেন তাঁরা। কিন্তু বর্তমান প্রজন্মের মানুষজন সেই ব্যাপারে জানেনই না। তেমনই কয়েকটি ব্যাপারে আপনাদের জানাব। যা কিনা অনেকেই জানেন না।

সময়টা ছিল ১৯৪৭ সাল। সেই সময় –

১। প্রতি আউন্স রূপার দাম ছিল ৮ টাকা ২০ পয়সা।

২। ১০ গ্রাম সোনার দাম ছিল ৮৮ টাকা ৬২ পয়সা।

৩। টাকার দাম ছিল মার্কিন ডলারের সমান। অর্থাৎ ১ মার্কিন ডলার = ১ টাকা।

৪। স্বাধীনতার পর ভারতে মাত্র ১১টি রাজ্য ছিল। এ ছাড়া কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল হিসাবে ছিল আন্দামান নিকোবর দ্বীপপুঞ্জ, দিল্লি, লাক্ষাদ্বীপ, মিনিকয় ও আমিনদিভি দ্বীপপুঞ্জ।

৫। অবিভক্ত ভারতের জনসংখ্যা সেই সময়ে ছিল ৩৯ কোটি। পাকিস্তান আলাদা হয়ে যাওয়ার পর সেই সংখ্যা দাঁড়িয়েছিল ৩৩ কোটি।

১৯৪৭ সালের ২ আনা

৬। সেই সময় বিভিন্ন একক ব্যবহার করা হত পরিমাপ ও মূল্য হিসাবের জন্য। ছিল কাঁচ্চা, ছটাক, পোয়া, সের, কড়া, গণ্ডা, আনা, নয়া ইত্যাদি।

৭। বর্তমানে রাজনৈতিক দলের সংখ্যা সব মিলিয়ে এক হাজার ৯০০টি। তার মধ্যে মাত্র সাতটি দল স্বীকৃত। এই স্বীকৃত দলগুলি ছাড়াও বেশ কয়েকটি রাজ্যস্তরের দল আছে। যেগুলি নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা নেয়। কিন্তু বাকিগুলি নামেই রাজনৈতিক দল। কিন্তু স্বাধীনতার সময়ে কয়েকটি হাতে গোনা রাজনৈতিক দলই ছিল।

৮। ১৯৪৭ সালে স্বাধীনতার পর দেশের ৪০ শতাংশ রেলপথ পাকিস্তানের সীমানার মধ্যে চলে যায়। এর পর ৩২টি পূর্বতন দেশীয় রাজ্যের মালিকানাধীন লাইন সহ মোট ৪২টি আলাদা আলাদা রেলব্যবস্থা একত্রে করে শুরু হয় ভারতীয় রেল। এর পর ১৯৫২ সালে এই সব কিছু বাতিল করে নতুন করে অঞ্চল ভেদে ব্যবস্থা চালু হয়। তখন থেকে মোট ছয়টি রেলওয়ে অঞ্চল স্থাপিত হয়।

স্বাধীনতা দিবস সংক্রান্ত আরও খবর পড়তে ক্লিক করুন

------------------------------------------------
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।
কোভিড১৯ বিরুদ্ধে লড়াইকে শক্তিশালী করুনপশ্চিমবঙ্গ সরকারের জরুরি ত্রাণ তহবিলে দান করুন।।

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.