Connect with us

দিবস

আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের থিম নিয়ে এই তথ্যগুলি কি জানেন?

yoga

খবর অনলাইন ডেস্ক : ‘যোগ’ শব্দটি সংস্কৃত। এই শব্দটি এসেছে ‘যুজা’ থেকে। শব্দটির অর্থ ‘যোগদান ও একত্রিত হওয়া’। যোগাসন হল ভারতের প্রাচীন ঐশ্বর্য। বিশ্বের কাছে এখন এটি খুবই সমাদৃত। এই বিশেষ সম্পদটিকে জনপ্রিয় করে তোলার পেছনে আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের ভূমিকা অনেক। এই নিয়ে ষষ্ঠ বর্ষে আন্তর্জাতিক যোগ দিবস। প্রতি বছরই এর আলাদা আলাদা থিম থাকে। যে থিমটিকে কেন্দ্র করে বিশেষ কিছু কর্মসুচি গ্রহণ করা যায়।

দেখে নেওয়া যাক কোন বছর ঠিক কী থিম ছিল।

২০১৫ সাল ছিল প্রথম বর্ষ। সেই বছরে আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের থিম ছিল – ‘যোগ ফর হারমোনি অ্যান্ড পিস’।

২০১৬ সাল দ্বিতীয় বর্ষ। আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের থিম ছিল ‘কানেকট দ্য ইয়ুথ’।

২০১৭ সালে তৃতীয় বর্ষে আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের থিমে তুলে ধরা হয়েছিল ‘যোগ ফর হেলথ’ এই বার্তাটি।

২০১৮ সাল ছিল আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের চতুর্থ বর্ষ। এ বারের থিম ছিল – ‘যোগ ফর পিস’। অর্থ হল ‘শান্তির জন্য যোগ’। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই বছর দেহরাদুনে আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

২০১৯ সালের আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের থিম রাখা হয়েছিল, ‘যোগ ফর হার্ট’। এটি  ক্লাইমেট অ্যাকশন। মূল অনুষ্ঠান আয়োজিত হয়েছিল রাঁচির প্রভাত তারা ময়দানে। সেখানে উপস্থিত ছিলেন  স্বয়ং প্রধানমন্ত্রী। এই থিমের উদ্দেশ্য ছিল পরিবেশবান্ধব জিনিস ব্যবহার ও প্ল্যাস্টিক বর্জনের ডাক দেওয়া।

২০২০ সাল। অনুষ্ঠিত হতে চলেছে ষষ্ঠ বর্ষের আন্তর্জাতিক যোগ দিবসের অনুষ্ঠান। এ বছরের থিম – ‘যোগ অ্যাট হোম অ্যান্ড যোগ উইথ ফ্যামিলি’ ‘ঘরে যোগ এবং পরিবারের সঙ্গে যোগ’। এই বছরের বিশেষত্ব হল করোনা অতিমারির আবহ। শারীরিক দূরত্ব বজায় রাখতেই বিনা জমায়েতে নিজেদের ঘরেই পরিবারবর্গের সঙ্গে যোগ ব্যায়াম করে নিজেদের সুস্থ ও সবল বানানোর লক্ষ্যে এই থিম নেওয়া হয়েছে। এই ব্যাপারে উৎসাহিত করতে আয়োজন করা হয়েছে বিশেষ ভিডিও ব্লগিং ইভেন্টের। ঘোষণা করা হয়েছে পুরস্কার। ইভেন্টের নাম ‘মাই লাইফ মাই যোগ’। এই প্রতিযোগিতার জন্য নিজেদের ভিডিও আপলোড করতে হবে আয়ুষ মন্ত্রকের নিজস্ব টুইটার হ্যান্ডেলে।

অবশ্যই দেখুন –এই চারটি যোগাসনে ম্যাজিকের মতো কমবে ভুঁড়ি

দিবস

২০২০-র স্বাধীনতা দিবস কী ভাবে পালন হবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অতিমারি করোনাভাইরাসের প্রকোপের কারণে ভাটা পড়েছে এই বছরে এখনও পর্যন্ত হওয়া অনেক অনুষ্ঠানেই। ঠিক তেমনি ভাবেই স্বাধীনতা দিবস উদযাপনেও এসেছে অনেক বদল। অবশ্যই করে জমায়েতে বিধি নিষেধ তো আছেই।

এ বারের স্বাধীনতা দিবস –

১। প্রতি বারের মতো এ বারেও প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী লালকেল্লায় জাতীয় পতাকা উত্তোলন করবেন৷ জাতীয়সংগীত বাজানো হবে।

২। অন্যান্য বার প্রায় ১০ হাজার লোকের জমায়েত হয়। এই বার লালকেল্লায় মানুষের জমায়েত কমবে। জমায়েত হতে পারে মাত্র ১ হাজার জনের।

৩। প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী কিছু দিন আগেই দেশের সামনে ‘আত্মনির্ভর ভারত’ হওয়ার লক্ষ্য দেখিয়েছেন ৷ ‘আত্মনির্ভর ভারত’-এর লক্ষ্যে রীতিমতো কোমর বেঁধে লেগেছে দেশ ৷

৪। এই বারের স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানের জন্য ঠিক সেই মতোই তৈরি হচ্ছে বিভিন্ন রাজ্য ও কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল। স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক এই বিষয়ে কড়া নির্দেশ পাঠিয়েছিল সমস্ত অঞ্চলে।

৫। করোনা মোকাবিলার স্বার্থে স্বাধীনতা দিবসের অনুষ্ঠানে স্বাস্থ্যবিধি মানায় জোর দেওয়া হয়েছে। সে ক্ষেত্রে সামাজিক দূরত্ববিধি, মাস্ক ও স্যানেটাইজেশনের সুব্যবস্থা রাখতে বলা হয়েছে।

৬। এই বারের অনুষ্ঠান ওয়েবকাস্টের মাধ্যমে সরাসরি পৌঁছে দেওয়া হবে অতিথিদের কাছে।

৭। উন্নত তথ্যপ্রযুক্তির সাহায্যে বিভিন্ন রাজ্যে অনুষ্ঠান সম্প্রচারের ওপর জোর দিয়েছে স্বারাষ্ট্র মন্ত্রক।

৮। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের পক্ষ থেকে চিকিৎসক, স্বাস্থ্যকর্মী এবং করোনাজয়ীদের আমন্ত্রণ জানানোর ব্যাপারে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে রাজ্যগুলিকে ৷

৯। এ বছর মিলিটারি ব্যান্ডের রেকর্ড করা ভিডিও জায়েন্ট স্ক্রিনে দেখানো হবে ৷

১০। ডিজিট্যাল মাধ্যমে এ বারের স্বাধীনতা দিবসের উদযাপন করার ওপরেই গুরুত্ব দেওয়া হচ্ছে।

১১। এ বারের স্বাধীনতা দিবসেও কুইজ, বিতর্কের মতো বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা যাবে। তবে তা অনলাইনে করার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। চারা গাছ বসানো, নয়া প্রকল্পের ঘোষণার মতো প্রস্তাব দিয়েছে কেন্দ্র।

Continue Reading

দিবস

স্বাধীনতা দিবস উপলক্ষ্যে ভারত সম্পর্কে অবাক করা এই তথ্যগুলি জেনে নিন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : ভারত সম্পর্কে এমন অনেক কিছুই আছে যেগুলি অনেকেরই অজানা। তেমনই কয়েকটি তথ্য জেনে নেওয়া যাক –

১। বিশ্বের ভাসমান পোস্ট অফিস

বিশ্বের সর্বাধিক পোস্ট অফিস ভারতে রয়েছে। তার সংখ্যা প্রায় ১ লক্ষ ৫৫ হাজারেরও বেশি। তার মধ্যে একটি ভাসমান পোস্ট অফিস। সেটি অবস্থিত শ্রীনগরের ডাল হ্রদে।

২। শ্যাম্পুর ধারণা

শ্যাম্পু তৈরির ধারনা এসেছে ভারত থেকেই। আয়ুর্বেদিক বিদ্যার প্রসারের স্বার্থে শ্যাম্পু বানানো হয়েছিল। সংস্কৃত শব্দ ‘চ্যাম্পু’ থেকে এই শব্দের উৎপত্তি।

৩। চিনি উৎপাদন কৌশল

চিনি কী ভাবে নিষ্কাশন করা যাবে তা আবিষ্কার করেছে ভারত। তা পরে শিখে নিয়েছে গোটা বিশ্ব।

৪। ভারতের প্রথম রাষ্ট্রপতি কথা

ডাঃ রাজেন্দ্র প্রসাদ রাষ্ট্রপতি হওয়ার সময় তাঁর বেতনের ৫০ শতাংশ নিতেন। কারণ হিসাবে তিনি বলেন, এর থেকে বেশি প্রয়োজন নেই। পরবর্তীকালে তিনি বেতনের মাত্র ২৫ শতাংশ নিতেন। তখন রাষ্ট্রপতির বেতন ছিল ১০ হাজার টাকা।

৫। প্রথম হিরে খনন

প্রথমে হিরে পাওয়া যায় ভারতের গুন্টুর এবং কৃষ্ণা জেলার কৃষ্ণা নদীবাহিত এলাকায়। ১৮ শতকে ব্রাজিলে হিরে পাওয়া যাওয়ার আগে পর্যন্ত ভারতই হিরে উত্তোলনে প্রথম ছিল।

৬। চাঁদের জলের সন্ধান

ভারতই প্রথম চাঁদে জলের উপস্থিতির কথা জানায়। ২০০৯ সালে সেপ্টেম্বর মাসে ইসরোর প্রেরিত চন্দ্রযান-২ এই সন্ধান দেয়। পরে নাসা তার স্বীকৃতি দেয়।

৭। পৃথিবীর সব চেয়ে আর্দ্রতম স্থান ভারতে –

ভারতের মেঘালয় রাজ্যের চেরাপুঞ্জি সব চেয়ে বৃষ্টিবহুল স্থান। মেঘালয়ের মৌসিনরাম গ্রামটি হল পৃথিবীর আর্দ্রতম স্থান। সারা বছরই বৃষ্টি হতে থাকে মেঘালয়ের খাসি পাহাড় এলাকার এই গ্রামটিতে।

৮। বিশ্বের উচ্চতম ক্রিকেট মাঠ

হিমাচল প্রদেশের চায়েল নামক স্থানে ২৪৪৪ মিটার উচ্চতায় বিশ্বের উচ্চতম ক্রিকেট মাঠ অবস্থিত। এটি স্থাপিত হয় ১৮৯৩ সালে।  

৯। বিশ্বের সব থেকে দামি ব্যক্তিগত বাড়ি –

ভারতের বাণিজ্যনগরী মুম্বইতে আছে বিশ্বের বৃহত্তম ও দামি ব্যক্তিগত বাড়ি। শিল্পপতি মুকেশ অম্বানির বাড়ি ‘অন্তিলিয়া’। এই বাড়িটি ২০১০ সালে তৈরি হয়। ২৭ তলা বাড়িটির মোট আয়তন চার লক্ষ বর্গ ফুট, দৈর্ঘ্য ৫৬০ ফুট। দামের বিচারে ‘বাকিংহাম প্যালেসে’র পরেই এর স্থান। তবে ‘বাকিংহাম প্যালেস’ ব্রিটেনের সরকারি সম্পত্তি। অন্তিলিয়া ব্যক্তিগত সম্পত্তি।

Continue Reading

দিবস

স্বাধীনতা দিবসের প্রাককালে স্বাধীনতা সংগ্রামের ইতিহাস জানতে এই বইগুলি পড়তে পারেন

খবরঅনলাইন ডেস্ক: আসছে ভারতের ৭৪তম স্বাধীনতা দিবস। দেশবাসী হিসাবে গর্বের দিন ১৫ আগস্ট। বহু কাঙ্ক্ষিত এই দিনটি শুধুমাত্র একটি তারিখ উদযাপনের মধ্যেই কি ভারতবাসী হিসাবে দায়িত্ব শেষ হয়ে যায়? তা কিন্তু নয়। অসংখ্য জীবনের মূল্যে পাওয়া এই স্বাধীনতা সার্বিক ভাবে প্রকৃত অর্থে রক্ষা করা যেমন দায়িত্ব, তেমনই দায়িত্ব বর্তায় স্বাধীনতার পেছনে বহু বছরের সংগ্রাম ও বলিদানের ইতিহাস জানার ক্ষেত্রেও। তার সামান্য কিছু পরিমাণই থাকে স্কুলপাঠ্য ইতিহাস বইতে। তা আরও ভালো ভাবে বিস্তারিত জানতে হলে রয়েছে বিখ্যাত ঐতিহাসিক, প্রত্যক্ষদর্শীদের লেখা বেশ কিছু বই। স্বাধীনতা সংগ্রামের আগুন ঝরানো দিন, পরাধীন দেশের আর্থ-সামাজিক ও রাজনৈতিক অবস্থা, বীরেদের বলিদান ইত্যাদি বহু কিছুর খোঁজ পাওয়া যেতে পারে এই বইগুলিতে। তার মধ্যে এই ৫টি বইয়ের খোঁজ রইল এখানে –  

১। ‘ইন্ডিয়া আফটার গান্ধী’

রামচন্দ্র  গুহর ‘ইন্ডিয়া আফটার গান্ধী’। ব্রিটিশদের হাত থেকে স্বাধীনতা ছিনিয়ে নেওয়ার পরে স্বাধীন ভারতের রাজনৈতিক ও আর্থ-সামাজিক অবস্থাকে বর্ণনা করেছেন ঐতিহাসিক রামচন্দ্র  গুহ। ২০১১ সালে ‘ইন্ডিয়া আফটার গান্ধী’ সাহিত্য অকাদেমি পুরস্কার পায়।

২। ‘দ্য গ্রেট ইন্ডিয়ান নভেল’

শশী থারুরের লেখা ‘দ্য গ্রেট ইন্ডিয়ান নভেল’। শশী থারুরের এই উপন্যাসটি আসলে একটি রম্যরচনা। ব্রিটিশ আমলে ভারতীয় রাজনীতির প্রাঙ্গণে উপস্থিত ব্যক্তিত্বদের সঙ্গে প্রায় ‘মহাভারত’-এর চরিত্রদের তুলনা করা হয়েছে। রচনায় সেই সময়ের রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের প্রতি অতি নিপুণ ভাবে বিদ্রুপ করেছেন লেখক।

৩। ‘আ প্যাসেজ টু ইন্ডিয়া’

ই.এম.ফর্স্টারের ‘আ প্যাসেজ টু ইন্ডিয়া’। টাইম ম্যাগাজিনের ‘সর্বকালের ১০০ উপন্যাসের’ তালিকায় এই বইটির নথিভুক্ত করা হয়েছে। কারণ হল লেখকের নিজস্ব অভিজ্ঞতা। ভারতে এসে ব্রিটিশ শাসকের ভুল এবং ভারতীয় স্বাধীনতা আন্দোলনের প্রত্যক্ষদর্শীর হিসাবে নিজের অভিজ্ঞতা বিশ্লেষণ করেছেন বইটিতে।

৪। ‘দ্য ডিসকভারি অফ ইন্ডিয়া’

জওহরলাল নেহরুর ‘দ্য ডিসকভারি অফ ইন্ডিয়া’। সিন্ধু সভ্যতা থেকে আরম্ভ করে ভারতবর্ষের উত্থান ও ব্রিটিশ আমলে ভারতের পতনকে ফুটিয়ে তুলেছেন নেহরু। বইটি লেখা ১৯৪২ থেকে ৪৬ সাল পর্যন্ত পরাধীন ভারতবর্ষের মহারাষ্ট্রের আহমেদনগরের দুর্গে বন্দি থাকার সময়ে।

৫। ‘ফ্রিডম অ্যাট মিডনাইট’

ডমিনিক ল্যাপিয়ার ও ল্যারি কলিন্স-এর ‘ফ্রিডম অ্যাট মিডনাইট’। এই বইটিতে আছে  ১৯৪৭-৪৮ সাল নাগাদ ভারত-পাকিস্তান বিভাজনের রাজনীতির বর্ণনা। লর্ড মাউন্টব্যাটেনের সময় থেকে গান্ধীজির মৃত্যু পর্যন্ত সময়ে ভারতের কূটনৈতিক আলোচনাও।

Continue Reading
Advertisement

বিশেষ প্রতিবেদন

Advertisement
রাজ্য20 mins ago

কলেজে ভরতির ফর্ম বাবদ সর্বোচ্চ খরচ বেঁধে দিল রাজ্য

দেশ1 hour ago

করোনা চিকিৎসায় ভারতে সব থেকে সস্তার রেমডেভিসির ওষুধ নিয়ে এল জাউডাস ক্যাডিলা

care
কেনাকাটা2 hours ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

দেশ2 hours ago

রামজন্মভূমি ট্রাস্টের প্রধানের কোভিড, ভূমিপুজোর দিন প্রধানমন্ত্রীর পাশেই ছিলেন

দেশ2 hours ago

সৎ করদাতাদের সুবিধার্থে ‘স্বচ্ছ করব্যবস্থা’ চালু করলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী

representational pic.
দেশ3 hours ago

এ বার পঞ্জাবে কংগ্রেসের দ্বন্দ্ব চরমে, মুখ্যমন্ত্রীকে ‘মানসিক ভারসাম্যহীন’ বললেন দলীয় সাংসদ

রাজ্য4 hours ago

রাজ্য স্বাস্থ্য কমিশনের নির্দেশের পরেও কেন উদাসীন বেসরকারি হাসপাতাল?

দেশ4 hours ago

৮ লক্ষের বেশি টেস্টে আক্রান্ত ৬৭ হাজার, দৈনিক সংখ্যায় রেকর্ড হলেও সংক্রমণের হার কমল ভারতে

কেনাকাটা

care care
কেনাকাটা2 hours ago

চুল ও ত্বকের বিশেষ যত্নের জন্য ১০০০ টাকার মধ্যে এই জিনিসগুলি ঘরে রাখা খুবই ভালো

খবরঅনলাইন ডেস্ক : পার্লার গিয়ে ত্বকের যত্ন নেওয়ার সময় অনেকেরই নেই। সেই ক্ষেত্রে বাড়িতে ঘরোয়া পদ্ধতি অনেকেই অবলম্বন করেন। বাড়িতে...

কেনাকাটা7 days ago

ঘর ও রান্নাঘরের সরঞ্জাম কিনতে চান? অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ৫০% পর্যন্ত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্ক : অ্যামাজন প্রাইম ডিলে রয়েছে ঘর আর রান্না ঘরের একাধিক সামগ্রিতে প্রচুর ছাড়। এই সেলে পাওয়া যাচ্ছে ওয়াটার...

কেনাকাটা7 days ago

এই ১০টির মধ্যে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্টটি প্রাইম ডে সেলে কিনতে পারেন

খবরঅনলাইন ডেস্ক : চলছে অ্যামাজনের প্রাইমডে সেল। প্রচুর সামগ্রীর ওপর রয়েছে অনেক ছাড়। ৬ ও ৭  তারিখ চলবে এই সেল।...

কেনাকাটা1 week ago

শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল, জেনে নিন কোন জিনিসে কত ছাড়

খবরঅনলাইন ডেস্: শুরু হল অ্যামাজন প্রাইম ডে সেল। চলবে ২ দিন। চলতি মাসের ৬ ও ৭ তারিখ থাকছে এই অফার।...

things things
কেনাকাটা2 weeks ago

করোনা আতঙ্ক? ঘরে বাইরে এই ১০টি জিনিস আপনাকে সুবিধে দেবেই দেবে

খবরঅনলাইন ডেস্ক : করোনা পরিস্থিতিতে ঘরে এবং বাইরে নানাবিধ সাবধানতা অবলম্বন করতেই হচ্ছে। আগামী বেশ কয়েক মাস এই নিয়মই অব্যাহত...

কেনাকাটা2 weeks ago

মশার জ্বালায় জেরবার? এই ১৪টি যন্ত্র রুখে দিতে পারে মশাকে

খবরঅনলাইন ডেস্ক: একে করোনা তায় আবার ডেঙ্গুর প্রকোপ শুরু হয়েছে। এই সময় প্রতি বারই মশার উৎপাত খুবই বাড়ে। এই বারেও...

rakhi rakhi
কেনাকাটা3 weeks ago

লকডাউন! রাখির দারুণ এই উপহারগুলি কিন্তু বাড়ি বসেই কিনতে পারেন

সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে মনের মতো উপহার কেনা একটা বড়ো ঝক্কি। কিন্তু সেই সমস্যা সমাধান করতে পারে অ্যামাজন। অ্যামাজনের...

কেনাকাটা3 weeks ago

অনলাইনে পড়াশুনা চলছে? ল্যাপটপ কিনবেন? দেখে নিন ৪০ হাজার টাকার নীচে ৬টি ল্যাপটপ

ইনটেল প্রসেসর সহ কোন ল্যাপটপ আপনার অনলাইন পড়াশুনার কাজে লাগবে জেনে নিন।

কেনাকাটা3 weeks ago

করোনা-কালে ঘরে রাখতে পারেন ডিজিটাল অক্সিমিটার, এই ১০টির মধ্যে থেকে একটি বেছে নিতে পারেন

শরীরে অক্সিজেনের মাত্রা বুঝতে সাহায্য করে এই অক্সিমিটার।

কেনাকাটা4 weeks ago

লকডাউনে সামনেই রাখি, কোথা থেকে কিনবেন? অ্যামাজন দিচ্ছে দারুণ গিফট কম্বো অফার

খবরঅনলাইন ডেস্ক : সামনেই রাখি। কিন্তু লকডাউনের মধ্যে দোকানে গিয়ে রাখি, উপহার কেনা খুবই সমস্যার কথা। কিন্তু তা হলে উপায়...

নজরে

Click To Expand