dinbazar
দিনবাজার, জলপাইগুড়ি। নিজস্ব চিত্র।

রাজা বন্দ্যোপাধ্যায়, জলপাইগুড়ি: জলপাইগুড়ির দিনবাজারের দীপাবলি উৎসব ঐতিহ্যমণ্ডিত। এই উৎসবকে সাফল্যে ভরিয়ে দেওয়ার জন্য উদ্যোগ নিল জলপাইগুড়ি পুরসভা। উৎসবের দিনে দিনবাজার অঞ্চল যাতে সব সময় ঝাঁ চকচকে থাকে তার জন্য ১০০ শ্রমিক নিয়োগ করা হল।

জলপাইগুড়ি পুরসভার চেয়ারম্যান সন্দীপ মাহাত বলেন, “দীপাবলির সময় দিনবাজারকে ব্যবসায়ীরা সাজিয়ে তোলেন। সেই সময়ে বাজারের কোনো অংশে যাতে কোনো আবর্জনা পড়ে না থাকে সে জন্য পুরসভার পক্ষ থেকে ১০০ জন শ্রমিক নিয়োগ করা হচ্ছে।”

দিনবাজার এলাকায় দোকান যেমন আছে তেমনই কোনো কোনো অংশে বাড়িও আছে। বাজারের একটি অংশে কাপড়ের দোকান, একটি অংশে গালামালের পাইকারি দোকান আছে। এ ছাড়া ফল, আনাজ, মাছ বাজার, গালামালের খুচরো দোকান এবং অন্যান্য দোকান আছে।

বছরের অন্যান্য সময় সবাই ব্যবসা নিয়ে ব্যস্ত থাকলেও দীপাবলির সময় বছরের দু’টো দিন তাঁরা দিনবাজারকে সাজিয়ে তোলেন। প্রতিটি দোকানের সামনে কলাগাছ বসিয়ে তার মধ্যে বাঁশের বাতা লাগানো হয়। তার মধ্যে প্রদীপ বসিয়ে দেওয়া হয়। দীপাবলির দিন সমস্ত দোকানে সারা রাত প্রদীপ জ্বলে। তার পর দিনও প্রদীপ জ্বালানো হয়। এই ভাবে দু’টো দিন তাঁরা দীপাবলি পালন করেন।

আরও পড়ুন অপ্রতুল কলাগাছ, জলপাইগুড়িতে দীপাবলি উৎসব নিয়ে সংশয়

সেই সময় কলাগাছ লাগানো এবং অন্যান্য কাজের ফলে বাজার নোংরা হয়। এ বার বাজারে যাতে কোনো রকম নোংরা পড়ে না থাকে সে জন্য পুরসভার পক্ষ থেকে শ্রমিক নিয়োগ করা হচ্ছে।

দিনবাজার জলপাইগুড়ি জেলার অন্যতম প্রাচীন বাজার। ১৮৬৯ সালের ১ জানুয়ারি জলপাইগুড়ি শহর পত্তনের পরই এই বাজার গড়ে ওঠে। তার পর জলপাইগুড়িতে গড়ে ওঠে কাপড়ের পাইকারি এবং খুচরো বাজার। ১৯৬৮ সালে তিস্তা নদীর ভয়াবহ বন্যার আগে পর্যন্ত এই বাজার উত্তরবঙ্গে অন্যতম বৃহৎ বাজার ছিল। ১৮৯৫ সালে জলপাইগুড়ির রাজা ফণীন্দ্রদেব রায়কত দিনবাজারে টিনশেড নির্মাণ করেন। সেই টিনশেডের নীচে দোকানিরা পসরা সাজিয়ে বসত। জলপাইগুড়ি শহরের সেই সুবর্ণ যুগে ১০০ বছর আগে থেকে ব্যবসায়ীরা দীপাবলি উৎসব পালন করে আসছেন। সেই ঐতিহ্য এখনও চলছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here