গৌরীবেড়িয়া সর্বজনীনে মায়ের মুখে রূপোর মাস্ক

0

স্মিতা দাস

সাবেক পুজোয় মায়ের মুখে রূপোর মাস্ক। তা-ও ৪২ গ্রাম ওজনের। ‘রক্ষাকবচ মাস্ক’ – সৌমেন পালের গড়া প্রতিমার মাধ্যমে বিশ্বের কাছে এই বার্তাই তুলে ধরতে চাইছে গৌরীবেড়িয়া সর্বজনীন পুজো কমিটি। এই অভিনব ভাবনায় রয়েছেন সৌরভ নাগ।

Loading videos...

কমিটির জয়েন্ট সেক্রেটরি মান্টা মিশ্র বলেন, ৮৭তম বর্ষে করোনা পরিস্থিতির জন্য বাজেট এই বারে অনেকটাই কম। অন্য বার উৎসব হয়। কিন্তু এই বারে হবে পুজো। অনেককেই দেখা যাচ্ছে এখনও পর্যন্ত মাস্ক ব্যবহারের গুরুত্ব বুঝছেন না। তাই দেবী দুর্গার মাধ্যমে সমাজের কাছে তাঁরা বার্তা দিতে চাইছেন যে, নিজেদের সুরক্ষার স্বার্থে যথাযথ ভাবে মাস্ক অবশ্যই ব্যবহার করুন। এতে নিজেকে যেমন সুরক্ষা দিতে পারবেন, তেমনই পরিবারকেও সুরক্ষা দিতে পারবেন।

করোনা মোকাবিলার স্বার্থে পুজোর মণ্ডপে থাকছে স্যানিটাইজার টানেল, মাস্ক, স্যানিটাইজার পাউচ, অক্সিজেনের ব্যবস্থা। ক্লাব সদস্যদের হাতে থাকবে থার্মাল স্ক্যানার, তাতে কোনো দর্শকের শরীরে তাপমাত্রা বেশি দেখা গেলে তাঁকে মণ্ডপে প্রবেশ করতে অনুমতি দেওয়া হবে না। মণ্ডপও একদম খোলামেলা থাকবে। গোটা মাঠটাই খোলা থাকবে। ২৫ জনের বেশি দর্শক প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। কোনো রকম ভিড় যেন না হয় সে দিকে নজর রাখা হবে।

গৌরীবেড়িয়া সর্বজনীন দুর্গোৎসব ও প্রদর্শনী’-এর পুজোমণ্ডপ খান্নার মোড় থেকে উলটোডাঙা স্টেশনে যাওয়ার পথে পড়ে। অরবিন্দ সেতুতে ওঠার আগেই। সেতুর বাঁ পাশ দিয়ে সরু রাস্তা চলে গেছে সেতুর সমান্তরালে। সেতুর ওপর দিয়ে যাওয়ার সময় পুজোপ্রাঙ্গণ দেখতে পাওয়া যায়।

আরও – কুমোরটুলি সর্বজনীনে ‘নব্বইতে শূন্য নেই – শুরু’

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.