durga idol made of thickened milk

নিজস্ব প্রতিনিধি, বারুইপুর: ছোটোবেলায় আমরা অনেকেই অবনীন্দ্রনাথের ‘ক্ষীরের পুতুল’ পড়েছি। কিন্তু কখনও শুনেছেন কি ক্ষীরের দুর্গাপ্রতিমার কথা? শোনা তো কোন ছার, এ বার নিজের চোখেই দেখবেন। বারুইপুর নিয়ে আসছে ক্ষীরের দুর্গাপ্রতিমা।

কলকাতার উপকণ্ঠে দক্ষিণ ২৪ পরগণার এই মহকুমা শহরে অনেক অনেক নামীদামি পুজোর আসর বসে। কিন্তু এ বার যে ক্ষীরের দুর্গাপ্রতিমা সকলের নজর কাড়বে, সে ব্যাপারে স্থিরনিশ্চিত এই পুজোর আয়োজকরা।

artist busy with his work
প্রতিমা গড়ার কাজে ব্যস্ত শিল্পী।

১২ ফুট দৈর্ঘ্যের ক্ষীরের দুর্গাপ্রতিমা দেখতে গেলে আপনাকে আসতে হবে বারুইপুর ফায়ার ব্রিগেডের কাছে। প্রমিলাবাহিনীর পুজোর এ বছরের থিম হল ক্ষীরের দুর্গা।

পুজো কমিটির সদস্যরা জানালেন, এই প্রতিমা তৈরি করতে প্রায় তিনশো কেজি ক্ষীর লাগছে। খরচ হচ্ছে প্রায় তিন লক্ষ টাকা।

প্রতিমাশিল্পী শংকর পাল জানালেন, এই প্রতিমা তৈরি করতে প্রায় তিন মাস ধরে কাজ করছেন। এই প্রতিমা পুরোটাই ক্ষীর দিয়ে তৈরি করা এবং যে কেউ ইচ্ছে করলে সেই ক্ষীর টেস্ট করে দেখতে পারেন। তাঁর দাবি, এই প্রতিমা সম্পূর্ণ হয়ে যাওয়ার পর প্রায় এক মাস খোলা জায়গায় রেখে দেওয়া যাবে এবং এই প্রতিমা যদি কাচের মধ্যে রাখা যায় তা হলে প্রায় এক বছর রেখে দেওয়া যাবে।

প্রতিমাশিল্পী এসেছেন হাওড়ার রামরাজাতলা থেকে। শংকরবাবু বিয়েবাড়িতে তত্ত্ব সাজানোর কাজ করেন। এ বারই প্রথম এত বড়ো ক্ষীরের প্রতিমা গড়ছেন। তাঁর কথায়, “গোড়ায় একটু ভয় পেয়েছিলাম। তবে আস্তে আস্তে প্রতিমা গড়ার কাজ প্রায় শেষ করে ফেলেছি। এখন শেষ বেলার কাজ চলছে।”

 

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here