palli unnayan samity
পল্লি উন্নয়ন সমিতি। নিজস্ব চিত্র।
smita das
স্মিতা দাস

সমাজে সব থেকে বেশি লাঞ্ছিত হয় নারীরাই। আবার সেই নারীই হল গোটা সমাজের ধারক বাহক। নারীদের প্রতি অত্যাচারের হারের নিরিখে বিশ্বের প্রথম সারিতে থাকা দেশগুলির মধ্যে ভারতবর্ষ একটি। আবার সব থেকে লম্বা সময়ের জন্য নারীর আরাধনাতেও মাতে এই ভারতবর্ষ। প্রতিপদ থেকে শুরু হয় চলে টানা নয় নয়টি দিন। সেই সমাজকেই সংযত করতে বার্তা দিতে এগিয়ে এসেছে পশ্চিম পুটিয়ারির পল্লি উন্নয়ন সমিতি ব্যানার্জিপাড়া। এদের থিম ‘ছায়াছবি’। ৬৪তম বর্ষে এই থিমের মাধ্যমে এরা বার্তা দিতে চায় – ‘আদম ক্ষুধায় লাগাম টানো, দাও উমাকে সম্মান’।

আরও পড়ুন শঙ্খচিল ওড়ে না, তোপ শুনে বলিও হয় না, তবু সোমসারের পালেদের জমিদারির স্মৃতি এই দুর্গাপুজোই

পল্লি উন্নয়নের এ বছরের থিমশিল্পী শিবাজি দে। গোটা থিমটি তিনি দাঁড় করিয়েছেন, লাইট অ্যান্ড শ্যাডোর মাধ্যমে। তিনি বলেন, ছায়াছবি মানে যে সিনেমা তা এক দমই ঠিক। তবে তা রিলে বন্দি নয়, আলো-ছায়ার খেলায়। মণ্ডপের ভেতরে দর্শনার্থীদের দেখানো হচ্ছে প্রায় সাড়ে ছ’ মিনিটের একটা ছোটো সিনেমা। বিভিন্ন জিনিসের ওপর আলো ফেলে তার থেকে সৃষ্ট ছায়া দিয়ে তৈরি হচ্ছে এই সিনেমা। গল্পটা গ্রামের উমাকে ঘিরে। একটা অষ্টম শ্রেণির ছোটো মেয়েকে গণধর্ষণ করা হয়। সে গ্রাম ছেড়ে পাড়ি দেয় শহরে। শহরে এসে জীবনযুদ্ধ চালিয়ে লেখাপড়া শিখে শিক্ষিকা হয়ে ওঠে শহরের নামী স্কুলে। পরবর্তী কালে চাকরি নিয়ে তাকে চলে যেতে হয় নিজের গ্রামেরই স্কুলে। এই গোটা বিষয়টা উঠে আসছে আলোছায়ায়।

light and shade
পল্লি উন্নয়ন সমিতিতে ‘ছায়াছবি’। নিজস্ব চিত্র।

রয়েছে অন্য আর একটি জোনও। সেটি হল শ্যাডো তৈরির টেকনিক্যাল জোন। ব্যবহার করা হয়েছে সমস্ত ফায়ারপ্রুফ, অদাহ্য জিনিসপত্র। বিশেষ প্লাই যাতে আগুন ধরে না, নন ওভেন ক্লথ, লোহার কাঠামো, মেটাল শিট, প্রচুর এলইডি আলো। গোটা মণ্ডপটি সাদাকালোয় মোড়া। রয়েছে বিষয়কেন্দ্রিক মানানসই ভয়েসওভারও।

মাতৃপ্রতিমায় গ্রামের মেয়ের ছাপ থাকলেও তাতে তেজ আর ভক্তির এক সুন্দর মিশেল রয়েছে। বিশেষ আকর্ষণ হল প্রতিমা সম্পূর্ণ বাতাসে ভাসছে। পুজোর উদ্বোধন হবে চতুর্থীতে।

পথনির্দেশ

কুদঘাট বা নেতাজি মেট্রো স্টেশনে নেমে পুটিয়ারি ক্লাবের দিকে ৫ মিনিটের দূরত্বে মণ্ডপ। জায়গাটির নাম ব্যানার্জিপাড়া। অথবা হরিদেবপুরের রাস্তায় করুণাময়ী ব্রিজ থেকে নেমে বাঁ দিকে পাঁচ মিনিটের হাঁটা পথ।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন