jodhpur park pandal
যোধপুর পার্কের মণ্ডপ। নিজস্ব চিত্র।
smita das
স্মিতা দাস

‘নিরুদ্দেশের খোঁজে’ কখনও বেরিয়েছেন? ভেবে দেখার ফুরসত হয়েছে কখনও ঠিক কী কী হারিয়ে গিয়েছে আমাদের জীবন থেকে? তার পরিবর্তে কোন কোন বিষয় সমাজজীবনে উড়ে এসে জুড়ে বসেছে। আর তার পরিণতি কী? তেমন ভাবে কখনও ভাববার সময় হয়নি – তাই তো?

ছোটো কয়েকটা জিনিস যেমন, পাটের বা চটের থলে, ড্যাঙ্গুলি খেলা, গুলি খেলা, চাকা চালানো, মাঝবয়সিদের মনে কোথাও একটা ধুলো চাপা স্মৃতির ভিড়ে হারিয়ে গিয়েছে। এই নামগুলো শুনলেই সবাই এক সঙ্গে হ্যাঁ হ্যাঁ করে উঠবেন। ঠিক সেই রকম বেশ কিছু বিষয় তুলে আনা হয়েছে আর এক হারিয়ে যাওয়া সম্পদ পাটের হাত ধরে। যাঃ এই জায়গাটাতে কেমন সব গুলিয়ে গেল। আসল ব্যাপার হল যোধপুর পার্কের ৬৬তম বর্ষের থিমের কথা বলছি। এই বছরে এদের থিম ‘নিরুদ্দেশের খোঁজে’। শিল্পী বাপাই সেন।

interior decoration of the pandal
মণ্ডপে কারুকাজ। নিজস্ব চিত্র।

বাপাই সেন জানান, পাট জীবন থেকে হারিয়ে গিয়েছে। কিন্তু এটা শিল্প সৃষ্টির খুব সুন্দর একটা মাধ্যম। তাই এই হারিয়ে যাওয়া জিনিসটি দিয়ে আরও অনেক হারিয়ে যাওয়াকে খুঁজে আনা হয়েছে। তাই মণ্ডপে দেখা যাচ্ছে রানারের পিঠে বোঝা নিয়ে সেই ছুটে চলা, লাট্টু খেলা, রান্নাবাটি, বৌ বাসন্তী খেলা, পালকি করে বিয়ে করতে যাওয়া থেকে শুরু করে পুরোনো টিভির অ্যানটিনা, ঘুড়ি ওড়ানো এমন অনেক বিষয়ই। পাটকে ব্লিচ করে রঙ বদল করা হয়েছে। মূলত পাটের শাড়ি তৈরি করা হয়েছে। সেই শাড়ি কেটে বিভিন্ন রূপ দেওয়া হয়েছে। শুধু তা-ই নয় প্রতিমার পরনেও রয়েছে পাটের গয়নাগাটি। ঠাকুর করেছেন শিল্পী অরুণ পাল।

শিল্পী জানান, আবহও করা হয়েছে হারিয়ে যাওয়া অতি পরিচিত কিছু মিউজিক দিয়েই। তার মধ্যে রয়েছে আকাশবাণীর অনুষ্ঠান শুরুর আগের কিছু হারিয়ে যাওয়া মিউজিক, দূরদর্শনের হারানো কিছু মিউজিক ইত্যাদি একত্রিত করেই। গোটা আবহ মিউজিকের দায়িত্বে মল্লার ঘোষ।

গত বছরে থিম ছিল ‘নীড় ছোটো ক্ষতি নেই, আকাশ তো বড়ো’। মণ্ডপ ছিল যেন বিশাল পাখির বাসা। সাবেক প্রতিমায় ছিল থিমের ছোঁয়া।

আরও পড়ুন অবহেলিত বাংলা ভাষাকে ফেরাচ্ছে বেহালা ক্লাব

যাই হোক মহালয়ার দিন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাতে হয়ে গিয়েছে উদ্বোধন। এখন তো মণ্ডপে ঢুকে হারিয়ে পাওয়ার দেশে প্রবেশ করার অপেক্ষা।

পথনির্দেশ

ঢাকুরিয়ার দিকে থেকে গেলে সেলিমপুর বাসস্টপে নেমে ডান দিকে রাস্তায় পার্কের গা লাগিয়ে পুজো।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন