putiyari sarbojanin
স্মিতা দাস

পুটিয়ারি ক্লাব পরিচালিত সর্বজনীন দুর্গোৎসবের এ বার ৭০ বছর। পুজোর থিমের ব্যাপারে কথা হচ্ছিল কমিটির তরুণ সদস্য দীপ মুখোপাধ্যায়ের সঙ্গে।

তিনি বলেন, এ বারে অনেক ছোটো ছোটো সিংহাসন দিয়ে একটা বিরাট সিংহাসন করা হচ্ছে। বিশাল মন্দিরের আদলে হবে এই সিংহাসনটা। তবে মন্দিরটা কাল্পনিক। আর মন্দিরের ভেতরে থাকবেন এক চালার মাতৃপ্রতিমা। থিমের শিরোনাম ‘সিংহাসনেই যাবে চেনা পুটিয়ারি ক্লাবের সাবেকিয়ানা।

এ বছরের থিমশিল্পী রাজা চট্টোপাধ্যায়। আর প্রতিমাশিল্পী অধীর পাল।

উপকরণে কাঠের সিংহাসন ব্যবহার করা হচ্ছে। তার ওপর থাকবে রং-তুলির কাজ। আর এই রঙের কাজে কমবেশি হাত লাগাচ্ছেন পাড়ার ছোটো বড়ো সব সদস্যই। পুটিয়ারির এ বারের বাজেট সাত লক্ষ টাকা।

theme of putiyari sarbojanin
পুটিয়ারি সর্বজনীনের থিম।

গত বছর কী থিম ছিল? দীপবাবু জানান, গত বছর হয়েছিল ‘শক্তিরূপেণ সংস্থিতা’।

সে বারে থিমশিল্পী আর প্রতিমাশিল্পী ছিলেন অঞ্জন ভট্টাচার্য ও দেবনাথ রায়। থিমে ব্যবহার করা হয়েছিল বিভিন্ন বাদ্যযন্ত্র।

চতুর্থীর দিন উদ্বোধনে উপস্থিত থাকবেন পরিচালক হরনাথ চক্রবর্তী আর এভারেস্টজয়ী মলয় মুখোপাধ্যায়।

কুদঘাট বাসস্টপে নেমে সামনেই পুজোমণ্ডপ। মণ্ডপের কাছের মেট্রো স্টেশন নেতাজি।

উত্তর দিন

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন