পাঁচে পেঁচা। পাঁচে পঞ্চবাণ। পাঁচে পঞ্চপাণ্ডব। আবার পাঁচে পুজোও। মানে দুর্গাপুজোর কথাই বলছি। ষষ্ঠী থেকে দশমী তো পাঁচদিনই বটে। পাঁচদিনের পুজো উদ্‌যাপনের জন্য এবার বাঙালিকে পাঁচটি ছবি উপহার দিতে চলেছে টলিউড। আরও মজার ব্যাপার হল, সব ছবিই ব্যবসা করার সুযোগ পাচ্ছে গোটা পুজোটাই। কারণ ৭ অক্টোবর ষষ্ঠী, আর সেটা শুক্রবার। সেদিনই সিঙ্গল স্ক্রিন আর মাল্টিপ্লেক্স কাঁপাতে চলে আসছেন সৃজিত মুখার্জি, অঞ্জন দত্ত, বিরসা দাশগুপ্ত, রাজ চক্রবর্তী ও নবাগত সিড।

হ্যাঁ। পরিচালকদের নামগুলোই বললাম প্রথমে। অন্যরা তো আছেনই। প্রসেনজিৎ, দেব, জিৎ, যিশু, পরমব্রতরা। 

সৃজিত মুখার্জি পরিচালিত ছবি ‘জুলফিকার’ ছবিতে রয়েছে গোটা টলিউড। প্রসেনজিৎ, দেব, কৌশিক সেন, যিশু, অঙ্কুশ, পরমব্রত। না হলে চলেই বা কী করে। জুলিয়াস সিজার এবং অ্যান্টনি অ্যান্ড ক্লিওপেট্রা- শেক্সপিয়রেরর দুই বিখ্যাত নাটককে কলকাতার অন্ধকার জগতে টেনে এনেছেন পরিচালক। এই ছবিকে ঘিরে বাঙালি দর্শকদের যে চূড়ান্ত আগ্রহ থাকবে তা বলাই বাহুল্য।

byomkesh

এরপরই ফ্র্যানচাইসি ছবির কথা। ব্যোমকেশ।  অঞ্জন দত্তর বেশ কিছু ব্যোমকেশ বাঙালি দেখে ফেলেছেন। কিন্তু এবারের ছবি নিয়ে আগ্রহ অনেক বেশি। কারণ এই ছবিতে যিশুর চরিত্রে অনেকদিন আগেই অভিনয় করে গিয়েছেন বাঙালির মহানায়ক উত্তমকুমার। সেই ‘চিড়িয়াখানা’ ছবির পরিচালক ছিলেন স্বয়ং সত্যজিত রায়। এই ছবির নামটা অবশ্য একটু পাল্টে দিয়েছেন পরিচালক। ব্যোমকেশ ও চিড়িয়াখানা।

avimaan

এরপর রয়েছে রাজ চক্রবর্তীর অভিমান। যেখানে প্রধান ভূমিকায় থাকছেন সমকালের আরেক গুরুত্বপূর্ণ নায়ক জিৎ।

gangster

‘গ্যাংস্টার’। বিরসা দাশগুপ্তর এই ছবিতে মিমি চক্রবর্তীর বিপরীতে অভিনয় করছেন নবাগত নায়ক যশ দাশগুপ্ত। গ্যাংস্টার অবশ্য ইতিমধ্যেই আলোচনার কেন্দ্র চলে এসেছে সম্পূর্ণ অন্য কারণে। ইস্তানবুলে এই ছবির শুটিং-এ গিয়েই তরুণ তুর্কি মিলির প্রেমে পড়েছেন মিমি। ছেড়েছেন দীর্ঘদিনের বয়ফ্রেন্ড রাজ চক্রবর্তীকে।

prem-ki-bujhini

শেষ নবীন পরিচালক সিডের ‘প্রেম কী বুঝিনি’। মুখ্য ভূমিকায় রয়েছেন শুভশ্রী ও ওম।

সব মিলিয়ে এবারের পুজো ফুল ফিল্মি।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here