partha chattopadhyay

কলকাতা: পর্যাপ্ত শিক্ষকের অভাবে শিকেয় উঠেছে রাজ্যের অসংখ্য সরকারি স্কুলের পঠনপাঠন। বেশ কয়েকবার শিক্ষক নিয়োগের পরীক্ষা নিয়েও মামলায় জর্জরিত রাজ্যের শিক্ষা দফতর সেই শূন্যপদ পূরণ করতে পারছে না। ফলে এ বার কতকটা মরিয়া হয়েই আসরে নামতে চলেছেন রাজ্যের শিক্ষামন্ত্রী পার্থ চট্টোপাধ্যায়।

আরও পড়ুন: বিএড বিশ্ববিদ্যালয় চালু করছে নতুন ৬টি বিভাগ, শিক্ষক নিয়োগ শীঘ্রই

বিধানসভায় দাঁড়িয়ে সোমবার মন্ত্রী বলেন, “শিক্ষক নিয়োগ করতে আমরাও এ বার হাইকোর্টে যাব। বেশির ভাগ ক্ষেত্রেই শিক্ষক নিয়োগ নিয়ে মামলা চলায় তা আটকে রয়েছে। কেউ কেউ আবার প্যানেল বাতিলের দাবি তুলছেন। পড়ুয়াদের পঠন-পাঠন অব্যাহত রাখতে আমরা অন্য রকম উপায়ে শিক্ষক নিয়োগ করব”।

আরও পড়ুন: দেশে রমরমিয়ে চলছে ২৭৭টি ভুয়ো ইঞ্জিনিয়ারিং কলেজ, বাংলায় ২৭

এখন প্রশ্ন উঠছে, রাজ্য সরকার যদি সত্যিই হাইকোর্টে যায়, তা হলে সেটা কী ভাবে? তা ছাড়া মন্ত্রী যে অন্য উপায়ের কথা বলেছেন, সে বিষয়েও নির্দিষ্ট করে কিছু জানাননি। ওয়াকিবহাল মহলের মতে, শিক্ষক নিয়োগ মূলত হয়ে থাকে স্কুল সার্ভিস কমিশন (এসএসসি)-এর মাধ্য়মে। প্ৰশ্ন উঠছে, তা হলে কি এ বার সরকার কমিশনকে এড়িয়েই সেই অন্য উপায়ের প্রয়োগ করতে চলেছে? তবে এ নিয়ে কোনো ইঙ্গিত দেননি শিক্ষামন্ত্রী।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন