তথ্যপ্রযুক্তি কর্মীদের জন্য সুখবর! করোনা-ধাক্কা এড়িয়ে অনেকটাই বাড়বে নিয়োগ, মত ৯৫ শতাংশ সিইও-র

0

খবর অনলাইন ডেস্ক: আগের বছরের তুলনায় এ বার তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে নিয়োগের সংখ্যাও অনেকটা বাড়তে পারে বলে প্রত্যাশা করছে সংশ্লিষ্ট মহল।

করোনাভাইরাস মহামারিতে বিধ্বস্ত অর্থনীতির বৃদ্ধি হ্রাস পেয়েছে উল্লেখযোগ্য ভাবে। তবে ভারতের তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে এর বড়োসড়ো ব্যতিক্রম ধরা পড়েছে।

Loading videos...

শিল্প সংগঠন ন্যাসকমের অনুমান, ২০২০-২১ আর্থিক বছরে এই ক্ষেত্রটিতে ২.৩ শতাংশ বৃদ্ধি হয়ে ১৯,৪০০ কোটি ডলারে গিয়ে ঠেকতে পারে। যদিও তারা এখনও নির্দিষ্ট আর্থিক বৃদ্ধির হার প্রকাশ করেনি, যা শেষ বছরে ছিল ৮.৪ শতাংশ।

তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে বৃদ্ধির বাস্তব পরিস্থিতি তুলে ধরতে ন্যাসকম সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন সংস্থার সিইও-দের সঙ্গে কথা বলে একটি সমীক্ষা চালিয়েছে। ওই সমীক্ষায় দেখা গিয়েছে, “বিভিন্ন সংস্থার ৯৭ শতাংশ প্রধান নির্বাহী আধিকারিক ২০২০ সালের তুলনায় উন্নততর অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির প্রত্যাশা করছেন”।

ওই সমীক্ষাটিতেই উঠে এসেছে আরও একটি চমকপ্রদ তথ্য। যেখানে “৯৫ শতাংশ সিইও জানিয়েছেন, ২০২০-র থেকে তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে আরও বেশি নিয়োগ হতে চলেছে ২০২১-এ। পাশাপাশি ৬৭ শতাংশ সিইও মনে করেন, ভারতীয় প্রযুক্তিক্ষেত্রের বৃদ্ধি ২০২০-র থেকে উল্লেখযোগ্য ভাবে বৃদ্ধি পাবে চলতি বছরে”।

সমীক্ষা রিপোর্টে বলা হয়েছে, “পরবর্তী স্বাভাবিক ক্ষেত্রে, সিইও-দের সঙ্গে আলোচনার মাধ্যমে বোঝা যাচ্ছে যে এই শিল্পটির সঙ্গে সংশ্লিষ্ট অন্যান্য ক্ষেত্রগুলিও যথেষ্ট ইতিবাচক হয়ে উঠেছে”।

ভারতের জিডিপির ৮ শতাংশ দখল করে রয়েছে তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্র। অন্য দিকে প্রযুক্তি ক্ষেত্রে ডিজিটাল আয় ছিল শিল্প আয়ের ২৮-৩০ শতাংশ বা ৫০০০-৫৩০০ ডলার, যার নিরিখে সামগ্রিক পরিষেবাগুলির বৃদ্ধির হার পাঁচগুণ বাড়ছে। নাসকমের রিপোর্টে আরও বলা হয়েছে যে, সংস্থাগুলি ডিজিটাইজেশনকে অগ্রাধিকার দেওয়ার জন্য তাদের প্রযুক্তি ব্যয়গুলিকে ফের ভারসাম্যের জায়গায় পৌঁছে দিচ্ছে।

প্রসঙ্গত, চলতি আর্থিক বছরে ক্যাম্পাস থেকে নিয়োগে বড়োসড়ো প্রভাব ফেলেছে করোনা অতিমারি। যে কারণে চাহিদা বেড়েছে। সব মিলিয়ে আগের বছরের তুলনায় এ বার সরাসরি ক্যাম্পাস থেকে নিয়োগের সংখ্যাও অনেকটা বাড়তে পারে বলে প্রত্যাশা করা হচ্ছে। তবে সংশ্লিষ্ট মহলের মতে, ২০২১-২২ অর্থবর্ষে প্রায় ৯১ হাজার নতুন কর্মী নিয়োগ করতে পারে টিসিএস, ইনফোসিস, এইচসিএল টেকনোলজিস এবং উইপ্রোর মতো বৃহত্তম তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থাগুলি।

বিস্তারিত পড়তে পারেন এখানে: ৯১ হাজার ফ্রেশার নিয়োগ করতে পারে বৃহত্তম চার তথ্যপ্রযুক্তি সংস্থা

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.