mahakash and ratnadeep
চতুর্থ স্থানাধিকারী মহাকাশ ও পঞ্চম স্থানাধিকারী রত্নদীপ। নিজস্ব চিত্র।

নিজস্ব প্রতিনিধি, বাঁকুড়া: মাধ্যমিকের পর উচ্চ মাধ্যমিকেও জয়জয়কার বাঁকুড়ার। ২০১৯ উচ্চমাধ্যমিকের ফল প্রকাশের পর দেখা যাচ্ছে মেধা তালিকায় ১৩৭ জনের মধ্যে প্রথম দশে বাঁকুড়ার বেশ কয়েক জন ছাত্র রয়েছে।

আরও পড়ুন অলচিকি হরফে লিখে উচ্চ মাধ্যমিকে সাঁওতালিতে প্রথম বাঁকুড়ার দুই ছাত্রী

এ বার উচ্চ মাধ্যমিকে চতুর্থ স্থান অধিকার করেছে বাঁকুড়া জেলা স্কুলের মহাকাশ রক্ষিত। তার প্রাপ্ত নম্বর ৪৯২। প্রতি দিন সাত-আট ঘণ্টা পড়াশোনা করেছে সে। তবে তার পিছনে মায়ের অবদান অনেক খানি জানিয়ে এই কৃতী ছাত্র বলে, রাতে সে যতক্ষণ পড়াশোনা করেছে মা পাশে বসে থাকতেন। এই সাফল্য তার মা-বাবাকেই সে উৎসর্গ করতে চায়। প্রিয় বিষয় ‘ফিজিক্স’। আর্ত মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসতে সে ভবিষ্যতে ডাক্তার হতে চায় বলেই জানিয়েছে।

বন আশুড়িয়া হাই স্কুলের ছাত্র রত্নদীপ সেন এ বার উচ্চ মাধ্যমিকে পঞ্চম স্থান অধিকার করেছে। রত্নদীপের তালডাংরায় বাড়ি হলেও বাবার কর্মসূত্রে সে এখন বনআশুড়িয়াতে থাকে। তার এই সাফল্যে বাবা-মায়ের পাশাপাশি শিক্ষকশিক্ষিকাদের গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে বলে সে জানায়। ভবিষ্যতে ইতিহাস অথবা ইংরেজি নিয়ে পড়ার ইচ্ছা তার।

বাঁকুড়া জেলা স্কুলের ছাত্র রম্যজিৎ সরকার এ বারের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় দশম স্থান অধিকার করেছে । এ ছাড়াও এ বার জেলা থেকে জেলা স্কুলের মোজাম্মেল হক ষষ্ঠ ও সায়ন্তন মুখোপাধ্যায় সপ্তম, বঙ্গ বিদ্যালয়ের গৌরব সিংহ এবং জেলা স্কুলের শুভদীপ নন্দী অষ্টম, ছাঁদার গার্লস হাই স্কুলের ঈষিতা পণ্ডা ও বিবেকানন্দ হাই স্কুলের লক্ষীপ্রিয়া পতি নবম, খ্রিশ্চান কলেজিয়েট স্কুলের অর্পণ ব্যানার্জি ও জেলা স্কুলের রঞ্জিত সরকার দশম স্থান অধিকার করেছে।

এ ছাড়া জেলার চাতরি পণ্ডিত রঘুনাথ মুর্মু আবাসিক বিদ্যালয়ের দুই ছাত্রী অনিমা মুর্মু ও সনকা হেমব্রম অলচিকি হরফে পরীক্ষা দিয়ে রাজ্যে মেয়েদের মধ্যে প্রথম স্থান অধিকার করেছে। দু’ জনের প্রাপ্ত নম্বর ৪৪৫।

একটি উত্তর ত্যাগ

Please enter your comment!
Please enter your name here