টেট ২০১৪: ১১টি প্রশ্ন ভুল প্রমাণিত হলে কী নির্দেশ দিতে পারে হাইকোর্ট?

0

কলকাতা: ২০১৪ সালের টেট পরীক্ষায় যে ১১টি প্রশ্নে ভুল ছিল বলে দাবি করা হয়েছে, সেগুলি যদি সত্যিই ভুল বলে প্রমাণিত হয় তা হলে কী নির্দেশ দেওয়া হতে পারে হাইকোর্টের তরফে?

গত শুক্রবার কলকাতা হাইকোর্টে এই মামলার শুনানিতে আদালত রবীন্দ্রভারতী বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য সবুজকলি সেনকে এ বিষয়ে তদন্তের জন্য নতুন কমিটি গঠনের নির্দেশ দিয়েছে। সেই তদন্ত কমিটির সিলবন্ধ খামে রিপোর্ট জমা পড়ার কথা আগামী ১৯ সেপ্টেম্বর। কিন্তু এর আগেই উপাচার্যকে রিপোর্ট জমা দেওয়ার কথা বলেছিল হাইকোর্ট। তা পালন করা হয়নি। তবে তর্কের খাতিরে যদি ধরে নেওয়া হয়, এ বার নির্ধারিত দিনেই কমিটি হাইকোর্টে রিপোর্ট জমা করল তা হলে হাইকোর্ট মামলাকারীদের স্বপক্ষে কী নির্দেশ দিতে পারে, এমন প্রশ্নেরই উত্তরের খোঁজ চলছে পরীক্ষার্থীদের মনে।

জানা গিয়েছে, কমিটির রিপোর্টে যদি স্বীকার করে নেওয়া হয়, ওই ১১টি এমসিকিউ ধাঁচের প্রশ্নের জন্য ৪টি করে বিকল্প উত্তর দেওয়া ছিল সেগুলি ভুল, তা হলে প্রত্যেক পরীক্ষার্থীর প্রাপ্ত মোট নম্বরের সঙ্গে আরও ১১ নম্বর যোগ হবে। কারণ এই ধরনের একটি নির্দিষ্ট প্রশ্নের জন্য ৪টি বিকল্প উত্তর দেওয়া থাকে। এই চারটির মধ্যে থেকেই সঠিক উত্তরটি বেছে নিতে হয় পরীক্ষার্থীদের।

amazon

আরও পড়ুন: আরও জটিলতা বাড়ল টেট ২০১৪-য়, প্রশ্ন বিতর্কে প্রাথমিক মান্যতা হাইকোর্টের

উল্লেখ্য, ২০১৪ জারি করা টেট বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী পরীক্ষা গৃহীত হয়েছিল ১১ অক্টোবর, ২০১৫ তারিখে। প্রশ্নপত্রে ত্রুটি রয়েছে অভিযোগ তুলে হাইকোর্টে মামলা করেন ১০০ জন পরীক্ষার্থী। তাঁরা প্রত্যেকেই ওই পরীক্ষায় অকৃতকার্য হয়েছিলেন।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন