কলকাতা: সাফল্যের শিখর ছুঁলেন কলকাতার দেবাদিত্য প্রামাণিক। সিবিএসই দ্বাদশ শ্রেণির পরীক্ষায় রাজ্যে প্রথম হওয়ার পাশাপাশি রাজ্য জয়েন্ট এন্ট্রান্সেও প্রথম হয়েছিলেন তিনি। এ বার জেইই আডভ্যান্সড পরীক্ষায়ও পূর্বাঞ্চল থেকে শীর্ষ স্থান দখল করলেন তিনি।

পূর্বাঞ্চলে শীর্ষস্থানের পাশাপাশি সারা দেশে ৩৮-তম স্থান তাঁর। দেবাদিত্যর এই সাফল্যে খুশি তাঁর পরিবার। তাঁর বাবা বলেন, “ছোটো থেকেই পড়াশোনায় খুবই ভালো দেবাদিত্য। আমরা আশা করেছিলাম এই সাফল্য আসবে।” সারা দেশে প্রথম পঞ্চাশ জনের মধ্যে রয়েছে ছেলে, এই ভেবেই আনন্দে আত্মহারা তাঁর বাবা, যিনি পেশায় একজন তথ্যপ্রযুক্তি কর্মী। অন্য দিকে তাঁর মা বলেন, ছোটো থেকেই বিভিন্ন অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণ করে পদক জিতে এসেছে দেবাদিত্য।

২০১৪ সালে আর্জেন্তিনায় অনুষ্ঠিত জুনিয়র অলিম্পিয়াডে সোনা জেতেন দেবাদিত্য। ২০১৫ সালে অ্যাস্ট্রোনমি এবং অ্যাস্ট্রোফিজিক্সের একটি অলিম্পিয়াডে অংশগ্রহণ করেন তিনি। সেখানেই সোনা বাগিয়ে আনেন। একই ভাবে ২০১৬ এবং এই বছরেও যথাক্রমে ফিনল্যান্ড এবং রাশিয়ার অলিম্পিয়াডেও সোনা জেতেন তিনি।

তবে দেবাদিত্য শুধুমাত্র পড়াশোনাই করেন, এই ধারণা একেবারেই ভুল। পড়াশোনার পাশাপাশি ফুটবল খেলা তাঁর অত্যন্ত প্রিয়। ক্যারাটেতেও ব্ল্যাকবেল্ট তিনি, পচ্ছন্দ করেন সিন্থেসাইজার বাজানোও। তাঁর এই সাফল্যের ব্যাপারে দেবাদিত্য বলেন, “ভালো রেজাল্ট হবে এই আশা করেছিলাম। পড়াশোনাও ভালো করেছিলাম, কিন্তু এত ভালো ফল হবে আশা করিনি।” তাঁর সাফল্যের জন্য নিজের শিক্ষক-শিক্ষিকাদের অবদান কথাও জানাতে ভোলেননি তিনি।

তবে আইআইটিতে সুযোগ পেলেও, বিজ্ঞান নিয়ে উচ্চশিক্ষা করতে চান দেবাদিত্য। পদার্থবিজ্ঞান নিয়ে গবেষণা করতে চান তিনি।

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন