স্কুল শিক্ষক ছাত্র

কলকাতা: গত বছরেই ডানা ছাঁটা গিয়েছিল স্কুল শিক্ষা দফতরের নতুন নির্দেশিকায়। এ বার নতুন কমিটি গঠন করার ব্যাপ‌ারেও সমস্যায় পড়ল সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুলগুলির পারিচালন সমিতি।

আশা করা হয়েছিল, মার্চ মাসের মধ্যেই পঞ্চায়েত ভোট শেষ হয়ে যাবে। স্বাভাবিক ভাবে পরিচালন সমিতির মেয়াদ বাড়িয়ে করা হয় ৩১ মার্চ পর্যন্ত। কিন্তু মার্চ শেষ হয়ে এপ্রিলের প্রান্তে এসে পৌঁছলেও এখন ভোটের ভবিষ্যৎ নিয়ে কোনো আগাম বার্তা নেই। ফলে বেশ কিছু মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়া সমিতি নিজের মতো করেই কাজ চালিয়ে যাচ্ছে।

গত বছরের নভেম্বর মাসে রাজ্যের স্কুল শিক্ষা দফতর নির্দেশিকা জারি করে জানিয়ে দেয়, সরকারি সাহায্যপ্রাপ্ত স্কুলগুলির সমিতি চাইলেই ভেঙে দিতে পারে পর্ষদ। এক মাত্র প্রধান শিক্ষকের নিয়োগের ব্যাপারে হস্তক্ষেপ করলেও অন্যান্য শিক্ষক নিয়োগে কমিটির কোনো অধিকার নেই। মোট কথা স্কুল পরিচালনার যাবতীয় সিদ্ধান্ত প্রধান শিক্ষক সরাসরি পৰ্যদকে জানাতে পারবেন। এর জন্য কমিটির হস্তক্ষেপের কোনো পথই খোলা রাখেনি দফতর।

কিন্তু পড়ুয়াদের নিত্য প্রয়োজনে সমিতির কার্যকারিতা এখনও বহাল রয়েছে। যেমন পানীয় জল, শৌচালয় এবং মিড-ডে মিলের মতো নিত্যদিনের ব্যবহার্য বিষয়গুলির দেখভাল সমিতিই তত্ত্বাবধান করে থাকে। স্বাভাবিক ভাবে নতুন সমিতির মেয়াদ বৃদ্ধি না করা হলে ওই সমস্ত কাজে ব্যাঘাত সৃষ্টি হতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here