জেনারেল স্টাডিজে অনেকগুলি বিষয় থাকে। অর্থাৎ কেবল একটি বিষয়ে জোর দিলে হবে না। সব ক’টি বিষয়ের উপরই খুব জোর দিতে হবে। যে বিষয়গুলি আছে —-

১) ইতিহাস

২) ভূগোল

৩) জীবন বিজ্ঞান

৪) ভৌত বিজ্ঞান

৫) রসায়ন

রসায়নের কথাই আগে বলি। যারা মাধ্যমিক পরবর্তীতে কলা বিভাগ মানে ‘আর্টস’ নিয়ে পড়াশোনা করেছ, তারা এই বিভাগটায় খুবই দুর্বল। সেই কারণেই এটার ওপর বেশি জোর দেবে।

এই পরীক্ষায় প্রত্যেকটি বিষয়ে আলাদা ভাবে কোয়ালিফাই করতে হবে। যদি না পারো তা হলে মোট নম্বর দিয়ে পাশ হবে না। এটার ক্ষেত্রেও পূর্বপাঠের পুনরালোচনা পড়তে হবে। সাধারণ গ্যাস, অক্সিজেন ও হাইড্রোজেন সম্পর্কে ধারণা থাকতে হবে। অক্সিডেশন, রিডাকশন, জল, কার্বন-ডাই-অক্সাইড সম্পর্কে জানতে হবে। পাঠ্য বই পড়ার সময় প্রশ্ন তুমি নিজে তৈরি করে নেবে তা হলে সুবিধা হবে।

ভৌত বিজ্ঞান – এই অংশে পূর্বপাঠের পুনরালোচনা হিট, টেম্পারেচার, ম্যাগনেট, ইলেকট্রিসিটি ইত্যাদি বিষয়গুলির উপর জোর দেবে। বই খুঁটিয়ে পড়বে। পড়বে আর খাতায় লিখে রাখবে। নিজে প্রশ্ন তৈরি করে তার উত্তর লিখবে। অর্থাৎ নিজেই একটা প্রশ্নোত্তরের খাতা বানিয়ে ফেলবে।

ভূগোল – বিষয়টা পড়ার ক্ষেত্রে প্রাকৃতিক ভূগোলের সিলেবাসের অংশ, উত্তর আমেরিকা, প্রতিবেশী দেশ প্রভৃতি ভালো করে পড়তে হবে। ভূগোল পড়ার সময় ম্যাপ সম্পর্কে ধারণা দরকার। না হলে উত্তর আমেরিকা আর অন্যান্য জায়গার ভূপ্রকৃতি, নদনদী, জলবায়ু বুঝতে অসুবিধে হবে। ভূগোলের ক্ষেত্রেও পূর্বপাঠের পুনরালোচনা পড়তে হবে।

জীবন বিজ্ঞান – এই বিষয়ের পূর্বপাঠের পুনরালোচনা আর সেই সঙ্গে জীবনের একক, মানুষের শরীরের গঠন (অ্যানাটমি, ফিজিওলজি), উদ্ভিদের ফিজিওলজি ইত্যাদি পড়বে।

ইতিহাস –  ইতিহাসের সিলেবাসটা সব সময় বড়োই হয়। বেশি পড়তে হয়। এ ক্ষেত্রেও তাই। তবে এখানে যে বিষয়গুলির উপর জোর দেবে – পুঁজিবাদের উত্থান, উদার অর্থনীতি, গণতন্ত্র, ইউরোপের ইতিহাস। এখানে একটা কথা বলে রাখি পুরোনো ও নতুন সিলেবাস একই রকমের। ইতিহাসের ক্ষেত্রে খুব আলাদা করা তো সম্ভব হয় না।

তোমরা যারা পুরোনো সিলেবাসে পড়াশোনা করেছ, তারা নতুন সিলেবাসও দেখতে পারো। যদি নতুন সিলেবাস সহজ বা সুবিধাজনক লাগে, তা হলে সেটাকেও বাছা যাবে। নতুন সিলেবাসে কিন্তু খুব বেশি লোক পরীক্ষা দেবে না। কারণ নতুন সিলেবাস তো খুব বেশি দিন আসেনি। শুধু মনে রাখতে হবে যে কোনো একটা বাছতে হবে – হয় নতুন না হয় পুরোনো। পর্ষদের ওয়েবসাইটে গিয়ে সিলেবাসের প্রিন্ট আউট নিয়ে রাখা ভালো। তাতে পড়ার সময় সুবিধে হবে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here