পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্তে হস্তক্ষেপ নয়, সিবিএসই, আইসিএসই দ্বাদশের মূল্যায়ন পরিকল্পনায় অনুমোদন সুপ্রিম কোর্টের

0
class 12 exam
পরীক্ষা বাতিলের দাবিতে আর্জির শুনানি সুপ্রিম কোর্টে। প্রতীকী ছবি

বোর্ড যে মূল্যায়ন পরিকল্পনা নির্ধারণ করেছে, সেগুলি ন্যায্য এবং যুক্তিসঙ্গত। এ ব্যাপারে আদালতের হস্তক্ষেপ করার কোনো কারণ নেই।

খবর অনলাইন ডেস্ক: করোনা মহামারির কারণে বোর্ড পরীক্ষা বাতিল হওয়ার পরে পরীক্ষার্থী এবং অন্যান্য অংশীদারদের আবেদনের ভিত্তিতে সিবিএসই এবং আইসিএসই দ্বাদশের মূল্যায়ন পরিকল্পনার বিষয়ে মঙ্গলবার শুনানি হল সুপ্রিম কোর্টে। মূল্যায়নের ফরমুলা সম্পর্কিত কয়েকটি ধারা নিয়ে আরজি জানানো হয়েছিল সর্বোচ্চ আদালতে। একই সঙ্গে পরীক্ষা বাতিলের সিদ্ধান্ত নিয়ে যে সব আবেদন জমা পড়েছিল, তাও খারিজ করল সুপ্রিম কোর্ট

Loading videos...

কী বলল সুপ্রিম কোর্ট?

দুই বোর্ডের আইনজীবীরা এ দিন সুপ্রিম কোর্টের বিচারপতি এএম খানউইলকর এবং বিচারপতি দীনেশ মাহেশ্বরীর বেঞ্চের কাছে যাবতীয় তথ্য পেশ করেন। সুপ্রিম কোর্ট (Supreme Court) বলে, সিবিএসই (CBSE) এবং সিআইএসসিই (CISE) যে মূল্যায়ন পরিকল্পনা নির্ধারণ করেছে, সেগুলি ন্যায্য এবং যুক্তিসঙ্গত। এ ব্যাপারে আদালতের হস্তক্ষেপ করার কোনো কারণ নেই। দু’টি প্রধান বোর্ড দ্বাদশের জন্য যে মূল্যায়ন ফরমুলা নির্ধারণ করেছে, তা গ্রহণযোগ্য।

কম্পার্টমেন্টদের পরীক্ষা

একই সঙ্গে সিবিএসই কম্পার্টমেন্ট পরীক্ষা ২০২১ বাতিল করতে চেয়ে একটি আবেদন জমা পড়েছিল। ওই আবেদনেরও শুনানি করে সুপ্রিম কোর্ট। ১,১৫২ জন পড়ুয়ার যৌথ আবেদনে আর্জি জানানো হয়েছিল, নিয়মিত পরীক্ষার্থীদের মতোই একই ফরমুলায় মূল্যায়ন করা হোক কম্পার্টমেন্ট প্রাপ্তদের। এ দিনের শুনানিতে সর্বোচ্চ আদালত সিন্ধান্ত নেয়, কম্পার্টমেন্ট বা প্রাইভেট অথবা ঐচ্ছিক পরীক্ষার্থীদের জন্য অনুকূল পরিস্থিতিতে পরীক্ষা নেওয়া হবে। তারা আগামী ১৫ আগস্ট থেকে ১৫ সেপ্টেম্বরের মধ্যে নির্ধারিত দিনে শারীরিক ভাবে উপস্থিত হয়ে পরীক্ষা দিতে পারবে।

ঐচ্ছিক পরীক্ষা

[করোনার কারণে বাতিল হয়েছে পরীক্ষা। প্রতীকী ছবি]

স্বাভাবিক ভাবে, কম্পার্টমেন্ট পরীক্ষা বাতিল নিয়ে ১,১৫২ জন পড়ুয়ার যে আবেদন জমা পড়েছিল, তা খারিজ করে দেয় আদালত। বোর্ড জানিয়েছে, ৩১ জুলাইয়ের মধ্যে নির্ধারিত ফরমুলায় ফলাফল প্রকাশিত হবে। মূল্যায়নে অসন্তুষ্ট পরীক্ষার্থী চাইলে পরীক্ষায় বসতে পারে। ক্ষেত্রে ঐচ্ছিক পরীক্ষায় প্রাপ্ত নম্বর চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে। কম্পার্টমেন্ট প্রাপ্তদের মতোই তারাও শারীরিক ভাবে উপস্থিত হয়ে পরীক্ষা দিতে পারবে।

আরও পড়তে পারেন: কোভ্যাক্সিনের কার্যকারিতা কতটা, তৃতীয় দফার ট্রায়ালে উঠে এল চমকপ্রদ তথ্য

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

This site uses Akismet to reduce spam. Learn how your comment data is processed.