অভিজিৎ ব্যানার্জি:

বিভিন্ন পরীক্ষার জন্য, বিশেষ করে ব্যাঙ্কের পরীক্ষার জন্য, ব্যাঙ্ক ও অর্থনীতি বিষয়ক কিছু তথ্য সম্পর্কে সচেতন থাকা দরকার।

(১) দেশে ডিজিট্যাল লেনদেন প্রসারের দায়িত্ব কেন্দ্রীয় সরকার এখন ‘নিতি আয়োগ’-এর পরিবর্তে ‘মিনিস্ট্রি অব আইটি ও ইলেকট্রনিকস’-এর ওপর ন্যস্ত করেছে। ‘নিতি আয়োগ’ এখন শুধুমাত্র বিভিন্ন সরকারি যোজনা সুপারিশ ও বাস্তবায়নের দিকেই লক্ষ রাখবে।

(২) ভারতীয় স্টেট ব্যাঙ্ক ও তার সহযোগী পাঁচটি ব্যাঙ্কের সংযুক্তিকরণ হয়েছে। সংযুক্তিকরণের পর এসবিআই-এর সম্পত্তির পরিমাণ হবে প্রায় ৩৭ লক্ষ কোটি টাকা। শাখার সংখ্যা হবে ২২ হাজার ৫০০। এটিএমের সংখ্যা হবে ৫৮ হাজার, গ্রাহকের সংখ্যা ৫০ কোটি।

(৩) এসবিআই ১ এপ্রিল থেকে সেভিংস অ্যাকাউন্টে এমএবি বা মিনিমাম অ্যাভারেজ ব্যালেন্সের নির্দিষ্ট পরিমাণ ধার্য করেছে। মহানগরীতে এমএবির পরিমাণ ৫ হাজার টাকা। শহরে এই পরিমাণ ৩ হাজার টাকা, মফস্‌সলে ২ হাজার টাকা, গ্রামে ১ হাজার টাকা।

(৪) ময়লা নোট বিনিময় করতে প্রত্যাখ্যান করলে বাণিজ্যিক ব্যাঙ্কগুলিকে আরবিআই-এর নির্দেশে ১০ হাজার টাকা জরিমানা দিতে হবে।

(৫) বাতিল ৫০০ ও হাজার টাকার নোটের সঞ্চয় প্রতিরোধ করতে কেন্দ্রীয় সরকার ‘প্যাসিফিক ব্যাঙ্ক নোট অ্যাক্ট ২০১৭’ আইন পাস করেছে।

(৬) আরবিআই দশ টাকার প্ল্যাস্টিক নোট ছাপাতে চলেছে।

(৭) পেটিএম সংস্থা ক্রেডিট কার্ডের জন্য ২% অতিরিক্ত শুল্ক ধার্য করবে।

(৮) ভারত ৮০০ কিলোমিটার দৈর্ঘ্য বিশিষ্ট ‘বিশাখাপত্তনম চেন্নাই ইন্ডাস্ট্রিয়াল করিডর’-এ সাহায্যের জন্য এশিয়ান ডেভেলপমেন্ট ব্যাঙ্কের সঙ্গে ৩৭৫ মিলিয়ন তথা সাড়ে ৩৭ কোটি মার্কিন ডলারের মৌ স্বাক্ষর করেছে।

(৯) অনাথ ও কমবয়সি শিশুকন্যাদের আর্থ-সামাজিক উন্নয়নকল্পে চালু হওয়া ‘তেজস্বিনী প্রকল্প’-এ ৬৩ মিলিয়ন তথা ৬.৩০ কোটি মার্কিন ডলার সাহায্যের বিষয়ে ভারত সরকার বিশ্ব ব্যাঙ্কের সঙ্গে মৌ স্বাক্ষর করল।

(১০) সম্প্রতি ভারতের ন্যাশনাল হাইড্রোলজি প্রকল্পের জন্য বিশ্ব ব্যাঙ্ক ১৭৫ মিলিয়ন তথা ১.৭৫ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ সাহায্যের অনুমোদন প্রদান করেছে।

(১১) সম্প্রতি বিশ্ব ব্যাঙ্ক ভারতের পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের পঞ্চায়েত ব্যবস্থার সামগ্রিক উন্নয়নের জন্য ২১০ মিলিয়ন তথা ২.১০ কোটি মার্কিন ডলার ঋণ বরাদ্দ করেছে।

(১২) ভারতীয় স্টেট ব্যাঙ্কের কর্পোরেট ওয়েবসাইট sbi.co.in থেকে পরিবর্তন করে bank.sbi করা হল। এটা হল ‘জেনেরিক টপ লেভেল ডোমেন প্রোটোকল’ (জিটিএলডি)। এসবিআই হল প্রথম ব্যাঙ্ক যেটি জিটিএলডি ব্যবহার করছে। তবে গ্রাহকদের সুবিধার জন্য আগের ওয়েবসাইটও কার্যকর থাকবে।

(১৩) ডিজিট্যাল মাধ্যমে লেনদেনের সুবিধার জন্য ডিশ টিভি সংস্থাটি আইসিআইসিআই ব্যাঙ্কের সঙ্গে চুক্তিবদ্ধ হয়েছে।

(১৪) ভারতীয় স্টেট ব্যাঙ্ক তার কর্মীদের জন্য ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’-এর সুবিধা চালু করল। এসবিআই-এর কর্মীরা এখন বিশেষ প্রয়োজনে বাড়ি থেকেই মোবাইলের মাধ্যমে ক্রস সেলিং, মার্কেটিং, কমপ্লায়েন্ট ম্যানেজমেন্ট ও অন্যান্য পরিষেবা প্রদান করতে পারবেন।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here