high-court

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলকাতা: ফের নতুন জটে এসএসসি।সম্প্রতি মেধাতালিকায় থাকা ৫ হাজার শিক্ষকের সঙ্গে ২০১২ সালে পাশ করা ৩৬ হাজার শিক্ষক পদপ্রার্থী চাকরি পাবেন কি না, তা নিয়েই তৈরি হয়েছে জটিলতা।

২০১২ সালের পরীক্ষার্থীদের চাকরি না দিয়ে কেন নতুন নিয়োগ, সেই প্রশ্ন তুললেন কলকাতা হাইকোর্টের বিচারপতি আই পি মুখোপাধ্যায়ের ডিভিশন বেঞ্চ। ২০১২ সালে এসএসসি ‘ট্রেনড’ না কি ‘আনট্রেন্ড’, কারা পাবে চাকরি তা নিয়ে মামলা হয়। হাইকোর্ট নির্দেশ দেয়, আগে প্রশিক্ষণপ্রাপ্তদের চাকরি দিতে হবে। দেখা যায় সব মিলিয়ে ৩৬ হাজার ট্রেন্ড ও আনট্রেন্ড শিক্ষক পাশ করেছেন। ৩৬ হাজার শূন্যপদ রয়েছে সে বছর।

আরও পড়ুন: এসএসসির শিক্ষক নিয়োগের কাউন্সেলিংয়ে হাইকোর্টের রায়

কিন্তু সেই শূন্যপদ পূরণ না করেই এসএসসি ফের পরীক্ষা নেয়। এমনকি কাউন্সেলিংও শুরু করে দেয়। এসএসসির এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আদালত অবমাননার মামলা করেন ২০১২ পাশ করা পরীক্ষার্থীরা। শুক্রবার বিচারপতি আই পি মুখোপাধ্যায় নির্দেশ দেন, কেন আদালতের রায়কে মানা হয়নি তার জবাব দিতে হবে।

উল্লেখ্য, গত বৃহস্পতিবার এসএসসির নির্দেশিকা সংক্রান্ত অন্য একটি মামলাতেও হাইকোর্টের রায় আবেদনকারীদের পক্ষেই গিয়েছে।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here