পরীক্ষার নেগেটিভ মার্কিং না থাকলে পরীক্ষার্থীদের অনেকটাই সুবিধা হয়। তবে সবার ক্ষেত্রে এক নিয়ম। অতএব ভেবে সঠিক উত্তরটি বাছাই করার চেষ্টা করতে হবে। ৪৫ নম্বরের মধ্যে সাধারণ জ্ঞান, সাম্প্রতিক  ঘটনাবলি ও পাটিগণিতের প্রত্যেকটি ১৫ নম্বর করে থাকবে। সময় থাকবে এক ঘণ্টা। এখানে গ্রুপ-ডি পরীক্ষার কিছু প্রশ্ন নিয়ে আলোচনা করছি।

প্রশ্ন-১ : মৌর্য বংশের শেষ সম্রাট কে?

a)অশোক b) বৃহদ্রথ c) চন্দ্রগুপ্ত d) কনিষ্ক

উত্তর হবে – b) বৃহদ্রথ

তোমাকে এই প্রশ্ন থেকে আরও দু’টি প্রশ্ন তৈরি রাখতে হবে। মৌর্য বংশের প্রতিষ্ঠাতা / প্রথম সম্রাট কে?  দ্বিতীয় – শ্রেষ্ঠ সম্রাট কে?

অনেকে প্রতিষ্ঠাতা/প্রথম সম্রাটকে শ্রেষ্ঠ সম্রাট বলে মনে রাখে। এটা কিন্তু ঠিক নয়। ঐতিহাসিকরা যেভাবে যাঁকে শ্রেষ্ঠত্ব দিয়েছেন সেই মতোই বলতে হবে, আমাদের মনগড়া নয়। আর একটু পরিষ্কার করি – মুঘল/মোগল বংশের প্রতিষ্ঠাতা- জাহিরুদ্দিন মহম্মদ বাবর। শ্রেষ্ঠ সম্রাট আকবর। মুঘল বংশের পতন ধরা হয় ১৭০৭ খ্রিষ্টাব্দে ঔরঙ্গজেবের মৃত্যু দিয়ে। কিন্তু দ্বিতীয় বাহাদুর শাহকে আমরা তার পরেও সম্রাট হিসেবে ইতিহাস বই থেকে জানতে পেরেছি। অতএব তোমাকে সচেতন তো হতেই হবে।

প্রশ্ন-২ : আকবরের পর মুঘল সাম্রাজ্যের অধিপতি কে হন?

a)বাবর b) হুমায়ুন  c) শেরশাহ  d) জাহাঙ্গির

উত্তর – d) জাহাঙ্গির

ইতিহাসের এই বংশ পরিচয় ক্রমান্বয়ে মুখস্থ করতে একটি প্রচলিত ছড়াই যথেষ্ট  —- ‘বাবার হল আবার জ্বর সারল ঔষধে’

ব-বাবর

হ- হুমায়ুন

আ- আকবর

জ- জাহাঙ্গির

স- সাহাজাহান

ঔ- ঔরঙ্গজেব

যারা চাকরির পরীক্ষায় কোচিং সেন্টারে পড়ে তারা তো অনেক কিছু শিখতে পারে। কিন্তু যারা পড়ে না তাদের তো অসুবিধা হয়। আর এগুলো কোনো বইতে আলাদা ভাবে দেওয়া থাকে না। অঙ্কের সব সমাধান সহজ পদ্ধতিতে করতে যাবে না। আবার কিছু অঙ্ক শর্টকাট পদ্ধতি ছাড়া অন্য পদ্ধতিতে করতে যাবে না। এটা কিন্তু প্রিলিমিনারি পরীক্ষার কথা বলছি। মেন পরীক্ষায় অবশ্য তোমাকে পুরো অঙ্ক কষে দেখাতে হবে। এ বার একটা অঙ্কের কথা বলি —-

প্রশ্ন-১ : দিনের তাপমাত্রা প্রথমে ১২% বৃদ্ধি পেয়ে বিকেলে ১২% কমে গেল। মোটের ওপর সারাদিনে তাপমাত্রা কত বৃদ্ধি বা হ্রাস পেল?

a) ১.৪১ b) ১.৪২ c) ১.৪৩ d) ১.৪৪

উত্তর হবে —  d) ১.৪৪।

এই অঙ্কটার জন্যে যেই সূত্রটা ব্যবহার করবে সেটা হল:

x2/100, এখানে x = 12 (দু’টো একই সংখ্যা)

তাহলে উত্তর হবে 122/100 = 144/100 = 1.44%  হ্রাস

বেড়ে একই সংখ্যা (১২%) কমলে সব সময় পরে হ্রাস পাবে।

এই অঙ্কটা পাটিগণিতের নিয়মে করতে গেলে দেখবে কী অবস্থা হয়। তবে এই পদ্ধতি কিন্তু মেন পরীক্ষায় চলবে না। এর পরে আরো অঙ্ক বা অন্যান্য বিষয় নিয়ে আলোচনা করা যাবে।

প্রয়োজনীয় বইগুলি
      

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here