election commission

কলকাতা: উচ্চ প্রাথমিকে শিক্ষক নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করার আবেদন জানিয়ে রাজ্য নির্বাচন কমিশনের দ্বারস্থ হয়েছিল স্কুল সার্ভিস কমিশন (এসএসসি)। রাজ্যের পঞ্চায়েত ভোট ঘোষণার আগেই টেট-এর প্রক্রিয়া শুরু হয়ে যাওয়ায় এসএসসি কর্তৃপক্ষ ধারণা করেছিলেন, ভোট ঘোষণা হলেও নিয়োগ প্রক্রিয়ায় তা প্রতিবন্ধকতার সৃষ্টি করবে না। কিন্তু গত বৃহস্পতিবার এসএসসির পাঠানো আবেদন খতিয়ে দেখে পর দিনই কমিশন জানিয়ে দিয়েছে, ভোট না-হওয়া পর্যন্ত নিয়োগ প্রক্রিয়া কোনো মতেই শুরু করা যাবে না।

উল্লেখ্য, পঞ্চম থেকে অষ্টম শ্রেণীতে শিক্ষক নিয়োগের এই প্রক্রিয়াটি নিয়ে দীর্ঘ টালবাহানার পর গত সোমবারই কলকাতা হাইকোর্ট নিয়োগের উপর স্থগিতাদেশ তুলে নেয়। সংরক্ষিত ১০ শতাংশের বিষয়ে আদালত এখনই কোনো সিদ্ধান্তে উপনীত না হলেও ৯০ শতাংশ আসনে নিয়োগ শুরু করার নির্দেশ দেওয়া হয়। তার ফলশ্রুতিতেই এসএসসি নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দিয়ে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করার কথা জানায়। কিন্তু কমিশনে মতে, এখনই নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করলেই তো চাকরি দেওয়া যাবে না। ফলে ভোট মিটে গেলেই শুরু হোক।

আরও পড়ুন: পঞ্চায়েতের জন্য কি ঝুলে থাকবে উচ্চপ্রাথমিকে নিয়োগ? কমিশনে গেল এসএসসি

উচ্চপ্রাথমিকে ১৫ হাজার শূন্যপদে নিয়োগের জন্য ২০১৪ সালে পরীক্ষা নেওয়ার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছিল। কিন্তু সে বছর লোকসভা ভোটের জন্য পরীক্ষা আটকে যায়। নানা টালবাহানার পর প্রায় দেড় বছর পর পরীক্ষা নেওয়া হয়। একই ভাবে পরীক্ষা হওয়ার এক বছর পরে প্রকাশিত হয় ফল। আদালতের নির্দেশে ফের দেড় বছর বাদে নিয়োগ প্রক্রিয়া শুরু করতে চাইল এসএসসি। কিন্তু আবার একটি ভোটের (পঞ্চায়েত) জন্য আপাতত ছেদ পড়ল সেই উদ্যোগেও।

মন্তব্য করুন

Please enter your comment!
Please enter your name here