শিক্ষার্থীদের শিক্ষার মান উন্নত করতে SAS পরীক্ষা শুরু করতে চলেছে রাজ্য

0

দীর্ঘকালীন করোনা পরিস্থিতির কারণে শিক্ষাব্যবস্থায় মারাত্মক প্রভাব পড়েছিল। এরফলে প্রায় বেশিরভাগ শিক্ষার্থী পড়াশুনা থেকে বিচ্যুত হয়েছে। প্রায় অনেক শিক্ষার্থীর মধ্যে পড়াশুনার আগ্রহটাই  চলে গেছে। এরফলে সেই প্রভাবটা পড়ছে তাদের পরীক্ষার নম্বরে।

তাই এইসমস্ত বিষয় পূক্ষানুপূক্ষ ভাবে বিচার করে রাজ্যসরকার এক নতুন আলোর দিশার কথা ভেবেছেন শিক্ষার্থীদের জন্য। রাজ্যে শিক্ষার মানকে আরও উন্নত করতে চায় সরকার। শিক্ষার মানকে উন্নত করতে গেলে পড়ুয়ারা কতটা শিখছে বা তাদের মেধার মান যাচাই করা দরকার। এর জন্য বিশেষ পরীক্ষা চালু করতে চলেছে রাজ্য সরকার। স্টেট অ্যাচিভমেন্ট সার্ভে নিয়ে শিক্ষা দফতরের উচ্চপদস্থ অধিকারীদের বৈঠকে এই সিদ্ধান্তই  নেওয়া হয়েছে।

সূত্রের খবর, বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে প্রাথমিক থেকে মাধ্যমিক স্তর পর্যন্ত চারটি শ্রেণীতে এই পরীক্ষা নেওয়া হবে।

এর মধ্যে রয়েছে তৃতীয় শ্রেণি, পঞ্চম শ্রেণি, অষ্টম শ্রেণি এবং দশম শ্রেণি। এই ক্ষেত্রে প্রতিটি জেলার প্রতিটি সার্কেল থেকে স্কুল বেছে নিয়ে পড়ুয়াদের পরীক্ষা নেওয়া হবে। যার মধ্যে তৃতীয় শ্রেণির ক্ষেত্রে প্রতিটি জেলার সার্কেল থেকে ১০টি করে এবং পঞ্চম ও অষ্টম শ্রেণির জন্য ৫টি করে স্কুল  বেছে নেওয়া হতে পারে। পরীক্ষা নেওয়া হবে বাংলা, ইংরেজি, হিন্দি, উর্দু, নেপালি এবং সাঁওতালি এই ৬ টি ভাষাতে। এমসিকিউ পদ্ধতিতে পরীক্ষা নেওয়া হবে । অর্থাৎ পরীক্ষার্থীদের উত্তর দিতে হবে ওএমআর শিটে।

এমনকি, পরীক্ষা যাতে সঠিকভাবে সম্পন্ন করা যায় তার জন্য উচ্চপদস্থ আধিকারিকদের নিয়ে একটি কমিটিও গঠন করা হবে বলে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। আগামী ডিসেম্বর থেকেই এই পরীক্ষা নেওয়া শুরু করতে চায় রাজ্য। এই পরীক্ষার নাম দেওয়া হয়েছে স্টেট অ্যাচিভমেন্ট সার্ভে পরীক্ষা বা স্যাস পরীক্ষা।

আধিকারিকদের বক্তব্য, এই ধরনের পরীক্ষা হলে সেই ক্ষেত্রে শিক্ষার মানোন্নয়ন করা সম্ভব হবে। এছাড়াও আঞ্চলিক ভিত্তিতেও পড়ুয়ারা কতটা এগিয়ে রয়েছে  জানা যাবে। সেই মতো পড়ুয়াদের শিক্ষা ব্যবস্থার মান উন্নয়নে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া সম্ভব হবে।

রাজ্যের সিলেবাস কমিটির চেয়ারম্যান অভীক মজুমদার বলেন, ‘শিক্ষার্থীদের লেখাপড়ার মান এবং ভবিষ্যতের তাদের উন্নতির প্রক্রিয়া এই পরীক্ষার মাধ্যমে সম্ভব হবে। আগামী দিনে ছাত্রছাত্রীরা যাতে আরও ভাল পড়াশোনা করতে পারে তার জন্য প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ করা যাবে’।

শিক্ষা ও কেরিয়ারের খবর পড়তে এখানে ক্লিক ক্রুন

dailyhunt

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন