উচ্চমাধ্যমিকের পরে কী করবেন ভাবছেন? পড়তে পারেন এই ১০টি কোর্স নিয়ে

0

খবর অনলাইন ডেস্ক: চলতি বছরের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার ফল প্রকাশিত হয়েছে। কিন্তু উচ্চমাধ্যমিকের পরে কলা বিভাগের ছাত্র-ছাত্রীদের কাছে অনেক সময়ে চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়ায়, কী বিষয় নিয়ে তারা কোথায় পড়বেন। তবে ছাত্র-ছাত্রীদের এত বিভ্রান্ত হওয়ার কিছু নেই। কলা বিভাগ নিয়ে পড়েও অনেক বিকল্প রাস্তা এখন ছাত্র-ছাত্রীদের সামনে খুলে গেছে।

কেরিয়ারের বিকল্প পথগুলি একবার দেখে নিন-

১। ব্যাচেলর অব ফাইন আর্টস-

যত দিন যাচ্ছে ব্যাচেলর অব ফাইন আর্টস বর্তমানে এই বিষয়টির জনপ্রিয়তা ধীরে ধীরে বৃদ্ধি পাচ্ছে। এখন কলা বিভাগের অনেক ছাত্র-ছাত্রী এই বিষয়টিকে কেরিয়ারে অপশন হিসাবে বেছে নিচ্ছে। ফাইন আর্টস এর জনপ্রিয়তা দিনে দিনে বৃদ্ধি পাচ্ছে।

তবে এই বিষয়টি কলা বিভাগের সব ছাত্র-ছাত্রীদের জন্য নয়। যে সকল ছাত্র-ছাত্রীরা নাটক, গান, ফটোগ্রাফি, মিউজিক, প্রিন্টমেকিং, পেন্টিং ও অভিনয়ের প্রতি আগ্রহ আছে তাদের জন্য এই ফিল্ডে যথার্থ কেরিয়ার আছে।

২। জার্নালিজম ও মাসকমিউনিকেশন-

বর্তমান আধুনিক সময়ে জার্নালিজম ও মাসকমিউ নিকেশনের চাহিদা ক্রমশ বৃদ্ধি পাচ্ছে।

শুধুমাত্র ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়া নয় বর্তমান সময়ে অনলাইন মিডিয়ার প্রভাব যথেষ্ট গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। তাই আর চিন্তা না করে নিজের কেরিয়ারের অপশন হিসাবে বেছে নিতে পারেন এই কোর্সটি।

৩। ফ্যাশন ডিজাইনিং-

সময়ের সঙ্গে সঙ্গে অনেক বদল এসেছে উচ্চশিক্ষার কোর্সগুলিতে। গতানুগতিক পড়াশুনার গণ্ডি থেকে বেরিয়ে এসে আপনি পড়তে পারেন ফ্যাশন ডিজাইনিং নিয়ে। যে সব ছাত্র-ছাত্রীদের ফ্যাশন ডিজাইনিংয়ের ওপরে আগ্রহ আছে তারা এই কোর্সটি করতে পারেন।

টেক্সটাইল, প্যাটার্ন মেকিং ফ্যাশন স্টাডিস এই বিষয়গুলি ফ্যাশন ডিজাইনিংয়ের মধ্যে শেখানো হয়। তাই আপনার যদি মনে হয় নতুন ভাবে কিছু শেখার তাহলে অনায়েসে বেছে নিতে পারেন এই কোর্সটি।

৪। ডিজিটাল মার্কেটিং-

আধুনিকতার পরিবর্তনে বর্তমান সময়ে সবকিছুই ডিজিটাল হয়ে যাচ্ছে। যেমন- অনলাইন শপিং, অনলাইনে ফুড অর্ডার। এমনকি যাবতীয় বহু গুরুত্বপূর্ণ কাজ ইন্টারনেটের মাধ্যমে সম্পন্ন হচ্ছে। সেই পরিপ্রেক্ষিতে দাড়িয়ে ডিজিটাল মার্কেটিং এখন ভালো কেরিয়ারে অপশন হয়ে দাড়িয়েছে।

যেসব ছাত্র-ছাত্রীরা আধুনিক টেকনোলজি, সোশ্যাল মিডিয়ার ওপরে কাজ করতে আগ্রহী তারা ডিজিটাল মার্কেটিং কে কেরিয়ার অপশান হিসাবে বেছে নিতে পারেন।

৫। গ্রাফিক্স ডিজাইনিং-

এখন সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে গেলে অনেক কিছু শিখে রাখা খুব জরুরি হয়ে দাঁড়িয়েছে। সেরকম যদি আপনি কোনও কলেজে কলা বিভাগে কোনও কোর্স নিয়ে পড়ছেন তার পাশাপাশি যদি গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এর কোর্স করে রাখেন তাহলে কিন্তু আপনি লাভবান হবেন।

বর্তমানে এই কোর্সের প্রচুর চাহিদা বেড়েছে। যে সব ছাত্র-ছাত্রীরা ক্রিয়েটিভ কাজকর্ম করতে পছন্দ করেন তাদের অবশ্যই গ্রাফিক্স ডিজাইনিং এর কোর্সটি করা উচিত।

৬। হোটেল ম্যানেজমেন্ট-

হোটেল ম্যানেজমেন্ট আজকের দিনে একটি বিশেষ লাভজনক পেশা হিসাবে ধরা হয়। চাকরির বাজারে হোটেল ম্যানেজমেন্টের চাহিদা এখন তুঙ্গে।

তাই যাদের আগ্রহ রয়েছে এই বিষয়টির ওপরে তারা হোটেল ম্যানেজমেন্ট কোর্সটিতে ভর্তি হতে পারেন।

৭। ইন্টিরিয়র ডিজাইনিং-

আজ থেকে হয়ত ১৫-২০ বছর আগে উচ্চমাধ্যমিক পাস করার পরে কলা বিভাগের ছাত্র-ছাত্রীদের বিশাল বড় চিন্তার কারণ হয়ে দাঁড়াত কি বিষয় নিয়ে পড়াশোনা করবেন। কিন্তু এখন সেই চিন্তার অনেকেটাই
অবকাশ হয়েছে।

প্রায় অনেকেই এখন ইন্টিরিয়র ডিজাইনিং নিয়ে পড়তে চান। ইন্টিরিয়র ডিজাইনিং এর পাঠক্রমের মধ্যে থেকে বিল্ডিং কোড, বিল্ডিং কাঠামো সংক্রান্ত নানা বিষয়। এথিক, সাইকোলজি, কম্পিউটার অ্যাডেড ড্রয়িং সহ বিভিন্ন খুঁটিনাটি বিষয়।
ইন্টিরিয়র ডিজাইনিং নিয়ে ডিপ্লোমা, সার্টিফিকেট কোর্স করার সুযোগ রয়েছে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান থেকে। তাহলে আর দেরী না করে উচ্চমাধ্যমিকের ফল প্রকাশের পরে ভর্তি হয়ে যান আপনার পছন্দের প্রতিষ্ঠানে।

৮। ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুরিসম-

আপনি কি নিজে ঘুরতে ভালোবাসেন? তবে সবসময় কি নিজে একা ঘুরতে ভালোলাগে? যদি পরিবারের সাথে কোথাও একটু ছোট্ট ছুটির ঠিকানায় যাওয়া যায়। তাহলে তো মন্দ হয় না।

তা হলে আপনি উচ্চমাধ্যমিকের পরে পড়াশুনার জন্য বেছে নিতে পারেন ট্রাভেল অ্যান্ড ট্যুরিসম কোর্সটি। এই দুর্দান্ত কোর্সটিতে ডিপ্লোমা করে আপনি বিভিন্ন ট্যুরিসম ভিত্তিক সংস্থায় চাকরি পেতে পারেন।

৯। ফটোগ্রাফি-

৮-৮০! ছবি তোলার নেশায় এখন বুঁদ হয়ে থাকে প্রতিটি প্রজন্ম।তাই এখন ফটোগ্রাফিকে যদি কেরিয়ারে অপশন হিসাবে বেছে নেন তাহলে আখেঁড়ে লাভ কিন্তু আপনার হবে।

বর্তমানে সোশ্যাল মিডিয়া নির্ভর দুনিয়ায় ভালো ছবি, ভিডিওর চাহিদা সবসবময় তুঙ্গে থাকে। ফটোগ্রাফি শিখে বিভিন্ন ইভেন্টে, অনুষ্ঠানে ফটোগ্রাফি সুযোগের পাশাপাশি সংবাদমাধ্যমে কাজের সুযোগ রয়েছে।

১০। ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট-

এখন প্রায় বেশিরভাগ অনুষ্ঠানের দায়িত্ব গিয়ে পড়ে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট সংস্থাগুলির ওপরে। সে বিয়াবাড়ি থেকে অন্নপ্রাশন । সবকিছুতেই এখন ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টের দরকার পড়ে।

তাই একই গতানুগতিক কোর্সের মধ্যে না ঢুকে একটু অন্যভাবে যদি নিজের জীবনটাকে গুছিয়ে নিতে চান। তাহলে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টকে নিজের কেরিয়ার অপশন বানিয়ে ফেলুন।

খবরের সব আপডেট পড়ুন খবর অনলাইনে। লাইক করুন আমাদের ফেসবুক পেজ। সাবস্ক্রাইব করুন আমাদের ইউটিউব চ্যানেল

বিজ্ঞাপন