eid-prayer
বখরি ইদের জামাত

নাসিক : বখরি ইদ মানেই উৎসর্গের উৎসব। আর এই উৎসবের প্রার্থনায় বন্যা দূর্গত কেরলবাসীদের জন্য প্রার্থনা করল নাসিকের ২০,০০০ মুসলমান।

বুধবার ইদগা গ্রাউন্ড (গল্ফ ক্লাব) সকাল ৮টায় ইদুজ্জোহার প্রার্থনা অনুষ্ঠিত হয়। নাসিকের নিকটবর্তী গ্রামগুলো থেকে বহু মানুষ এই প্রার্থনায় জমায়েত হন।

‘‘উৎসর্গ, ভক্তি এবং বিশ্বাস ইসলামের মূল কথা। বখরি ইদ সেই কথাগুলিকেই মনে করিয়ে দেয়,’’ বলে জানিয়েছেন অধ্যাপক সাদিক আলি।

[আরও পড়ুন : ইদুজ্জোহায় নিজেকে সুস্থ রাখতে এই ৪টি নিয়ম মেনে চলুন]

বখরি ইদের জামাত আদায়ের স্থানগুলিতে কড়া নিরাপত্তায় মুড়ে দেওয়া হয়েছে উত্তরপ্রদেশে। বিশেষ নিরাপত্তাবাহিনী মোতায়েন করা হয়েছে মালেগাঁওতে। বেশ কয়েকটি জায়গা থেকে বিস্ফোরক সহ বেশ কয়েকজন দুষ্কৃতীকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।১৩টি এলাকায় মালগাঁও পুলিশ নাকাবন্দিও চালাচ্ছে বলে জানিয়েছে টাইমস অফ ইন্ডিয়া। ১১টি জায়াগায় সিসিটিভিও লাগানো হয়েছে। প্রকাশ্যে পশু না কাটতে পুলিশ অনুরোধ জানিয়েছে।   

একই ভাবে দিল্লি-এনসিআরের বাসিন্দারাও ইদের জামাতে প্রার্থনা করেছেন কেরলের বন্যাদুর্গতদের উদ্দেশে। দিল্লিবাসী লেখক-ঐতিহাসিক রানা সফভি জানিয়েছেন,‘‘ যেখানে কেরলের মানুষ জলের তলায় সেখানে আমরা কী করে উৎসব পালন করতে পারি।’’

হিন্দুস্থান টাইমস জানিয়েছে, বেশ কয়েকটি সংগঠন আহ্বান জানিয়েছে, ইদুজ্জোহা উৎসবের খরচ কমিয়ে, সেই টাকা কেরলের ত্রাণ তহবিলে দান করতে। 

একটি উত্তর ত্যাগ

আপনার মন্তব্য দিন !
আপনার নাম লিখুন